Tamarind seeds : চিকুনগুনিয়া, হৃদরোগ-সহ একাধিক সমস্যায় উপকারী তেঁতুলবীজ

তেঁতুলের বীজ একাধিক গুণে ভরপুর, ফাইল ছবি

  • Share this:

    আচার, চাটনি এবং কিছুটা বিরিয়ানি ছাড়া বাঙালি হেঁসেলে তেঁতুলের ব্যবহার সেরকম উল্লেখযোগ্য নয় ৷ অনেক বাড়িতে গরমকালে তেঁতুল, গুড়, জল দিয়ে সরবত বানিয়ে খাওয়া হয় ৷ এতে শরীর শীতল হয় ৷ দক্ষিণ ভারতীয় রসুইয়ে তেঁতুলের (Tamarind) ব্যবহার অনেক বেশি ৷ কিন্তু জানেন কি তেঁতুলের বীজও (Tamarind Seeds) একাধিক গুণে ভরপুর !

    বছর তিনেক আগে আইআইটি রুরকি-র বায়োটেকনলজি বিভাগের কিছু অধ্যাপক এই নিয়ে গবেষণা করেন ৷ তাঁদের দাবি, তেঁতুলবীজের অ্যান্টিভাইরাল উপাদান চিকুনগুনিয়া প্রতিরোধে খুবই কার্যকর ৷ ভারতীয় লোকসংস্কৃতিতেও প্রাচীনকাল থেকেই তেঁতুলবীজের ব্যবহার চলে আসছে ৷ আসুন, দেখে নিই তেঁতুলদানার আর কী গুণাগুণ৷

    ধূমপায়ীদের দাঁতের জন্য

    বলা হয়, তেঁতুলবীজের গুঁড়ো দাঁতের জন্য খুব উপকারী ৷ বিশেষ করে যাঁরা ধূমপান করেন, তাঁদের ক্ষেত্রে ৷ বেশিমাত্রায় কোল্ড ড্রিঙ্ক পান করলে ও সিগারেট খেলে দাঁতে প্লেক ও টার্টারের প্রলেপ পড়ে ৷ সেক্ষেত্রে তেঁতুলবীজের গুঁড়ো দাঁতের মাজনে মেশালে উপকার পাওয়া যায় ৷

    বদহজম সারাতে

    তেঁতুলের বীজের রস পেটের জন্য খুব উপকারী ৷ এর ফলে বদহজমে সমস্যা সেরে যায় ৷ তাছাড়া ফাইবারে সমৃদ্ধ এই রস সাহায্য করে কোলেস্টেরল সারাতেও ৷ ফাইবারের প্রভাবে উন্নত হয় হজম প্রক্রিয়া ৷

    সংক্রমণ থেকে রক্ষা

    অ্যান্টি ভাইরাল গুণের জন্য তেঁতুলের বীজের প্রভাবে ত্বকে সংক্রমণ হয় না ৷ পাশাপাশি, খাদ্যনালী ও মূত্রনালীর সংক্রমণও প্রতিহত হয় ৷

    মধুমেহ মোকাবিলায়

    তেঁতুলবীজের গুঁড়ো জলে মিশিয়ে সেই মিশ্রণ পান করলে মধুমেহ রোগ সেরে যায় ৷ মধুমেহ রোগীদের মধ্যে এই মিশ্রণ পান করার রীতি প্রচলিত ভারতে ৷

    হাইপারটেনশন ও হৃদরোগে

    তেঁতুলবীজে পটাশিয়াম থাকে ৷ ফলে উচ্চরক্তচাপ ও হৃদরোগের সমস্যায় কার্যকর ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: