• Home
  • »
  • News
  • »
  • life-style
  • »
  • Protect your child’s eye sight : সন্তানের ডায়েটে নিয়মিত রাখুন এই খাবারগুলি, শৈশব হোক চশমামুক্ত

Protect your child’s eye sight : সন্তানের ডায়েটে নিয়মিত রাখুন এই খাবারগুলি, শৈশব হোক চশমামুক্ত

অতিরিক্ত স্ক্রিনটাইমের জেরে আপনার শিশুর চোখে অত্যন্ত চাপ পড়ে

অতিরিক্ত স্ক্রিনটাইমের জেরে আপনার শিশুর চোখে অত্যন্ত চাপ পড়ে

স্মার্টফোন, ল্যাপটপ, টেলিভিশন স্ক্রিন-বাচ্চাদের চোখের ক্ষতিসাধনের উপকরণ এখন অজস্র (protect your child’s eyesight)

  • Share this:

    বাচ্চাদের হাতে মোবাইল এখন সহজলভ্য৷ বরং অণু পরিবারে বাচ্চাকে নিজের মনে ব্যস্ত রাখার জন্য বাবা মা-ই তার হাতে স্মার্টফোন তুলে দেন৷ অতিমারি পরিস্থিতিতে তো স্মার্টফোন এখন শিশু থেকে বালক বা কিশোর কিশোরীদের কার্যত নিত্যসঙ্গী (harmfulness of excessive screentime)৷ স্মার্টফোন, ল্যাপটপ, টেলিভিশন স্ক্রিন-বাচ্চাদের চোখের ক্ষতিসাধনের উপকরণ এখন অজস্র (protect your child’s eyesight)৷

    অতিরিক্ত স্ক্রিনটাইমের জেরে আপনার শিশুর চোখে অত্যন্ত চাপ পড়ে৷ চোখ শুকিয়ে যায়৷ ব্যাহত হয় মেলাটোনিন হরমোনের ক্ষরণ৷ ফলে সহজেই শিশুরা অনিদ্রা সমস্যার শিকার হয়ে পড়ে৷ ফলে তাদের মেজাজও খিটখিটে হয়ে যায়৷ এই পরিস্থিতিতে বাচ্চার ডায়েটে যত্ন নেওয়া একান্ত প্রয়োজনীয়৷ বাচ্চার দৃষ্টিশক্তি তীক্ষ্ণ রাখতে এবং চোখ ভাল রাখার জন্য তাদের নিয়মিত কী কী খাবার খাওয়াতে হবে-

    আরও পড়ুন : ছিপছিপে এবং রোগমুক্ত শরীর চান? নিয়মিত ছাতু খান

    মাছ-

    মাছে থাকা ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিডকে বলা হয় স্বাস্থ্যকর ফ্যাট৷ এই উপাদান চোখের রেটিনা ভাল রাখে৷ দূর করে ড্রাই আইজ-এর সমস্যা৷

    ডিম-

    ডিমের কুসুমে থাকে ভিটামিন এ, লাটেইন এবং জিঙ্ক৷ চোখের স্বাস্থ্য এবং দৃষ্টিশক্তির জন্য এই উপাদানগুলি প্রয়োজনীয়৷ ভিটামিন এ ভাল রাখে কর্নিয়াকে৷ লাটেইনে প্রতিহত হয় চোখের দুরারোগ্য অসুখ৷ জিঙ্কে ভাল থাকে রেটিনা৷

    আরও পড়ুন : রান্নার পর একটু আধটু সব্জি বেঁচে গিয়েছে? ফেলে না দিয়ে তৈরি করুন শীতের আদর্শ উপকারী পানীয়

    আমন্ড-

    আমন্ডে আছে ভিটামিন ই৷ এই উপাদানের ফলে চোখ শুকিয়ে যায় না৷ পরবর্তীতে ‘ম্যাক্যুলার ডিজেনারেশন’-এর মতো জটিল চোখের অসুখকেও প্রতিহত করে ভিটামিন ই৷ রাতভর ভিজিয়ে রাখুন আমন্ড৷ সকালে সেই নরম আমন্ড খেতে দিন বাচ্চাকে৷ আমন্ডের স্বাস্থ্যগুণ এভাবেই রাখুন ডায়েটে৷

    গাজর-

    গাজরে আছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ এবং বিটা ক্যারোটিন৷ সংক্রমণ-সহ চোখের যে কোনও সমস্যাকে নিয়ন্ত্রণ করে এই দুই উপাদান৷

    আরও পড়ুন : ডিভোর্সের পর নতুন সম্পর্ক শুরু করতে চাইছেন? ভেবে দেখুন কিছু বিষয়

    দুগ্ধজাত খাবার-

    দুধ ও টকদইয়ের মতো ডেয়ারি প্রডাক্ট বা দুগ্ধজাত খাবার চোখের স্বাস্থ্যের জন্য অতুলনীয়৷ ডেয়ারিজাত খাবারে আছে ভিটামিন এ এবং জিঙ্ক৷ তাই সন্তানের দৃষ্টিশক্তি ভাল রাখতে বাচ্চার ডায়েটে অবশ্যই রাখুন দুধ ও দুগ্ধজাত খাবার৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: