Home /News /life-style /
Travel Tips: পকেটে টান! তাই অনেকক্ষণের ফ্লাইটেও ইকনমি ক্লাসের টিকিট, জেনে নিন বিন্দাস থাকার উপায়

Travel Tips: পকেটে টান! তাই অনেকক্ষণের ফ্লাইটেও ইকনমি ক্লাসের টিকিট, জেনে নিন বিন্দাস থাকার উপায়

Travel Tips: tips for surviving long time travel in economy flightsTravel Tips: tips for surviving long time travel in economy flights- Photo-File

Travel Tips: tips for surviving long time travel in economy flightsTravel Tips: tips for surviving long time travel in economy flights- Photo-File

Travel Tips: সস্তায় পুষ্টিকর, তবে ইকোনমি ক্লাসে লম্বা উড়ানে খেয়াল রাখা দরকার এই বিষয়গুলো

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ইকোনমি ক্লাসে দীর্ঘ দূরত্বের ফ্লাইটের যাওয়া কম ক্লান্তিকর নয়। কীভাবে দীর্ঘ দূরত্বের ফ্লাইটে স্বচ্ছন্দে থাকা যায় জেনে নেওয়া যাক।

ফ্লাইটে বিনোদনের বন্দোবস্ত রাখা বিশ্রামের পাশাপাশি, দীর্ঘ যাত্রায় সময় কাটানোর সবচেয়ে বড় উপায় হল বই পড়া বা সিনেমা দেখা। কিন্ডল বা ট্যাবলেট নিয়ে ভ্রমণ করলে, বই, পডকাস্ট, শো এবং সিনেমা দেখা যেতে পারে। কনটেন্ট ডাউনলোড করা থাকলে তো আর চিন্তাই নেই।

স্বাস্থ্যবিধির প্রয়োজনীয় বিষয় স্বাস্থ্য এবং পরিচ্ছন্নতা সংক্রান্ত টুকিটাকি জিনিস হাতব্যাগে ভরে রাখলে ভাল হয়। টুথ ব্রাশ বা টুথপিক, ডিওডোরেন্ট বা দরকারে পরবর্তন করার মতো পোশাক সঙ্গে রাখা যায়।

আরও পড়ুন - IND vs SL: ভারত বনাম শ্রীলঙ্কা দ্বিতীয় টেস্টের জন্য দলে এলেন অক্ষর প্যাটেল, নাম কাটা গেল ‘এই’ ক্রিকেটারের

অতিরিক্ত স্ন্যাকস প্যাকিং করে নেওয়া এয়ারলাইন খাবারের প্রাচুর্য সবসময় থাকে না, তাই যাত্রীদের শারীরিক ভাবে চাঙ্গা থাকার জন্য স্ন্যাকস প্যাকিং করতে ভুললে চলবে না। পছন্দসই স্ন্যাকস দীর্ঘ বিমানযাত্রার বোরডম কাটিয়ে দেবে সহজেই।

ব্যথা প্রতিরোধের ওষুধ ভ্রমণের সময় ছোটখাটো ব্যথা এবং যন্ত্রণা হতে পারে। তাই একটু আগাম পরিকল্পনা করে কিছু ওষুধ সঙ্গে নিয়ে নিলে ভ্রমণকে কম চাপমুক্ত করা যায়।

আরও পড়ুন - Shane Warne Passes Away: মাটিতে, বালিশে, তোয়ালেতে লেগে রক্তের ছোপ, তবে শরীরে নেই ড্রাগের অস্তিত্ব, ওয়ার্নের মৃত্যু তদন্তের আপডেট

যথাযথ জল পান করা বিমানে বাতাস বেশ কম থাকে। তাই এই সময় যাত্রীদের প্রচুর জল পান করা উচিত।

ফ্লাইট ছাড়ার আগে কম খাওয়া বমি বমি ভাব অনুভব না করতে চাইলে দূরপাল্লার আন্তর্জাতিক ফ্লাইটে ওঠার আগে যথা সম্ভব কম খেতে হবে। এ ক্ষেত্রে ফ্যাটলেস কিছু খাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়।

আরামদায়ক পোশাক পরা যাত্রীদের তাদের নিজ নিজ ফ্লাইটে যাওয়ার সময়ে শারীরিক স্বস্তি বজায় রাখা উচিত। হালকা কার্ডিগান বা সোয়েটশার্ট সবসময় হাতে রাখা উপকারী।

ভালো ভাবে ঘুমানো উচ্চ-মানের আই মাস্ক, ইয়ারপ্লাগ ইত্যাদি সঙ্গে রাখলে ফ্লাইটের কোলাহল থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে সহজেই ভালো ঘুমানো যায়। তাতে সময়টাও কেটে যায় চোখের নিমেষে।

অটোমোবাইলের মতোই স্মার্ট সিট বাছাই টিকিট বুক করার সময় বসার আসন ভাল করে ভেবে-চিন্তে বেছে নেওয়া দরকার। তাতে যেমন শরীর আরাম পাবে, তেমনই মানসিক বিরক্তিও গ্রাস করবে না।

প্লেনের প্রথম কয়েকটি সারি, পেছনের সারি, করিডোর বা জানালার সিট এবং প্লেনের সামনের পাশের আসনগুলিকে প্রায়শই সেরা এয়ারলাইন সিট হিসাবে বিবেচনা করা হয়। যাঁরা উইন্ডো সিট বেছে নেন, তাঁদের বিরক্ত হওয়ার সম্ভাবনা কম হবে, তবে DVT ঝুঁকি সম্পর্কে সচেতন থাকতে হবে।

নিশ্চিন্ত ও আরামদায়ক যাত্রা ফ্লাইট হলের উদ্বেগকে একপাশে রেখে মুহূর্তগুলোকে উপভোগ করতে হবে। প্রয়োজনে ভালো গল্পের বই, রোমান্টিক কমেডি দেখা যেতে পারে।

Published by:Debalina Datta
First published:

Tags: Flight, Flights, Travel

পরবর্তী খবর