Home /News /life-style /

Lifestyle Tips: একঘেয়ে স্ন্যাকসে বিরক্ত, নিরামিষ ও স্বাস্থ্যকর গুজরাতি স্ন্যাকসে মাতুন এবার

Lifestyle Tips: একঘেয়ে স্ন্যাকসে বিরক্ত, নিরামিষ ও স্বাস্থ্যকর গুজরাতি স্ন্যাকসে মাতুন এবার

Lifestyle Tips: 7 best gujarati snacks and why they should be in your pantry more often

Lifestyle Tips: 7 best gujarati snacks and why they should be in your pantry more often

একেবারে নিরামিষ হলেও বিভিন্ন জায়গার মানুষের রসনায় জায়গা পেয়েছে। এই ধরনের খাবার খেতে তো ভালোই, তার সঙ্গে লাইফস্টাইলের (Lifestyle) জন্য স্বাস্থ্যকর এবং পুষ্টিকরও বটে।

  • Share this:

#কলকাতা: আমাদের দেশের বিভিন্ন প্রদেশের খাওয়াদাওয়ার (food) ধরন ভিন্ন ভিন্ন হয়। তবে এমন অনেকেই রয়েছেন, যাঁরা সব প্রদেশের খানাপিনা চেখে দেখতে ভালোবাসেন। আজ আলোচনা করা যাক, গুজরাতের কিছু বিখ্যাত স্ন্যাক্সের (snacks) প্রসঙ্গে। আসলে গুজরাতি খানা অনেক পুরনো এবং এর পিছনে ইতিহাসও জড়িয়ে রয়েছে। গুজরাতের এই সব স্ন্যাক্স (Gujrati Snacks) একেবারে নিরামিষ হলেও বিভিন্ন জায়গার মানুষের রসনায় জায়গা পেয়েছে। এই ধরনের খাবার খেতে তো ভালোই, তার সঙ্গে লাইফস্টাইলের (Lifestyle) জন্য স্বাস্থ্যকর এবং পুষ্টিকরও বটে। এ বার সরাসরি চলে আসি প্রধান প্রসঙ্গে।

ধোকলা (Dhokla):

গুজরাতি খানার  (Gujrati Snacks) তালিকায় প্রথমেই রয়েছে ধোকলা (Dhokla)। স্পঞ্জের মতো নরম এই খাবার দোকানে তো পাওয়া যায়ই, সেই সঙ্গে বাড়িতেও সহজেই বানিয়ে ফেলা যায়। ধোকলা অত্যন্ত পুষ্টিকর এবং উপাদেয় খাবার। আর চিনির সিরাপের জন্য একটা মিষ্টি স্বাদও এর মধ্যে থাকে। সেই সঙ্গে ধোকলা লো ক্যালোরি খাবার, ফলে এটা খেলে ওজনের উপর প্রভাব পড়বে না। ২-৩ পিস ধোকলা খেয়ে নিলে অনেক ক্ষণ পেট ভরা থাকে। ফার্মেন্টেড মিশ্রণের দিয়ে ভাপিয়ে বানানো হয় ধোকলা, যা প্রোটিনে ভরপুর থাকে।

আরও পড়ুন - Weather Update: হুড়মুড়িয়ে নামছে তাপমাত্রার পারদ, ‘এই’ এলাকায় জারি অরেঞ্জ অ্যালার্ট

ফাফড়া (Fafda):

চায়ের সঙ্গে খাওয়ার দারুণ স্ন্যাকস্ হল ফাফড়া। জোয়ানের মতো মশলা, হলুদ এবং নুন দিয়ে ঠাসা এই পুষ্টিকর খাবার মশলা চায়ের সঙ্গে দারুণ জমে যাবে। যদিও এটা ভেজে খাওয়া হয়। ক্রেভিংয়ের ক্ষেত্রে এই স্ন্যাকস্ দারুণ। বাড়িতে রাখা যেতে পারে। কখনও কখনও জিলিপির সঙ্গেও খাওয়া হয়। আবার চায়ের সঙ্গে খাওয়া যেতে পারে।

আরও পড়ুন - Food: খাবারেই বিষ! রোজ গপগপ করে এই খাবার খেয়ে ডেকে আনছেন মৃত্যু

পাত্রা (Patra):

গুজরাতি স্টিমড স্ন্যাকস্-এর মধ্যে অন্যতম হল পাত্রা। যা পুষ্টির আধার। এটি বানানোর প্রধান উপকরণ হল- কচু পাতা, বেসন এবং কয়েকটি সাধারণ মশলা। বাড়িতে এটা স্টোর করে রাখা যেতে পারে। তবে এই স্ন্যাকস্ ২-৩ দিনের বেশি রেখে খাওয়া উচিত নয়।

মশলা খাখরা (Masala Khakra):

পুষ্টিকর এবং মচমচে মশলা খাখরা বোধহয় গুজরাতি খানার মধ্যে সব থেকে বেশি স্বাস্থ্যকর ড্রাই স্ন্যাকস্। এটা অবশ্যই রান্নাঘরের খাবারের ভাণ্ডারে থাকা উচিত। চায়ের সঙ্গে ২-৩টে মচমচে খাখরা খেয়ে নিলে ডায়েটের ক্ষেত্রে তেমন প্রভাব পড়বে না। খিদেও মিটবে, সেই সঙ্গে রসনাতৃপ্তিও হবে।

থেপলা (Thepla):

বিখ্যাত গুজরাতি স্ন্যাকস্ থেপলা হল আসলে মেথির পরোটা। যে কোনও সময় এটা খাওয়া যেতে পারে। টক-ঝাল লেবুর আচার অথবা চাটনি দিয়ে থেপলা দারুণ জমে যায়। এটা ২-৩ দিন স্টোর করে রাখা যেতে পারে। আর থেপলা যথেষ্ট পুষ্টিকর হয়।

মুঠিয়া (Muthiya):

দারুণ স্বাস্থ্যকর এই স্ন্যাকস্ খাবারের ভাণ্ডারে অবশ্যই থাকা উচিত। বেসন, লাউ, সুজি, আটা এবং নানান মশলা দিয়ে তৈরি মুঠিয়া ফ্রিজে বহু দিন পর্যন্ত সংরক্ষণ করা যেতে পারে। এটা সাইড ডিশ হিসেবে খাওয়া যেতে পারে। নানান ধরনের গুজরাতি খানার সঙ্গে সাইড ডিশ হিসেবে এটা খেয়ে দেখতে পারেন।

গুজরাতি চকরি (Gujarati Chakri):

গুজরাতি স্ন্যাকস-এর মধ্যে জনপ্রিয় এই চকরি। অন্যান্য জায়গায় যেটা মুরুক্কু নামে পরিচিত। খাবারের ভাণ্ডারে এটা বহু দিন রাখা যায়। চায়ের সঙ্গে এই স্ন্যাকস্ খেতে সব থেকে বেশি ভালো লাগে। আর এতটাই মুখরোচক যে, এক বার খেলে বার বার খেতে ইচ্ছে করবে।

Published by:Debalina Datta
First published:

Tags: Food, Lifestyle, Snacks

পরবর্তী খবর