Home /News /life-style /
Coronavirus: করোনা সারলেও দুটি বড় উপসর্গ থেকে যাবে ১ বছর! বলছে ল্যানসেট-এর গবেষণা

Coronavirus: করোনা সারলেও দুটি বড় উপসর্গ থেকে যাবে ১ বছর! বলছে ল্যানসেট-এর গবেষণা

Coronavirus: প্রথম ও দ্বিতীয় ঢেউয়ে বহু মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন এবং হাসপাতালেও ভর্তি হয়েছেন। সুস্থ হয়ে অনেকেই বাড়ি ফিরেছেন। কিন্তু আতঙ্কের শেষ এখানেই নয়।

  • Last Updated :
  • Share this:

#বেজিং: করোনার (Coronavirus) প্রকোপ একটু কমলেও এই মুহূর্তে তৃতীয় ঢেউয়ের আশঙ্কায় রয়েছে মানুষ। এরই মধ্যে ল্যানসেট জার্নাল (Lancet journal) নতুন তথ্য জানাল। প্রথম ও দ্বিতীয় ঢেউয়ে বহু মানুষ করোনা আক্রান্ত হয়েছেন এবং হাসপাতালেও ভর্তি হয়েছেন। সুস্থ হয়ে অনেকেই বাড়ি ফিরেছেন। কিন্তু আতঙ্কের শেষ এখানেই নয়। করোনার জেরে তৈরি হওয়া নানা সমস্যা দীর্ঘ সময়ের জন্য ভোগাতে পারে। ল্যানসেট-এর গবেষণা বলছে, করোনায় যাঁরা আক্রান্ত হয়েছেন তাঁদের প্রায় এক বছরের জন্য দুটি সমস্যা থেকে যেতে পারে।

এই দুটি সমস্যা হল শ্বাসকষ্ট এবং ফুসফুসের দুর্বলতা। গবেষকরা বলছেন, এই দুটি সমস্যাই থেকে যাচ্ছে বহুদিনের জন্য। প্রতি তিন জন মানুষের মধ্যে একজনের এই সমস্যা আছে বলে জানাচ্ছেন। চিনের উহানের ১২৭৬ জন রোগীর উপরে এই গবেষণা করা হয় বলে জানা যাচ্ছে। দেখা যাচ্ছে, যাঁরা করোনা আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তাঁদের সেরে উঠতে এক বছর লাগছে। এছাড়া করোনা থেকে সেরে উঠলেও, যাঁরা করোনায় আক্রান্ত হয়নি তাঁদের তুলনায় তাঁরা অনেকটাই দুর্বল।

চিনের এক হাসপাতালের গবেষক বিন কাও বলছেন অনেকেই করোনা থেকে সেরে উঠেছেন। কিন্তু এদের মধ্যে যাদের অবস্থা সংকটজনক হয়েছিল বা হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন তাঁদের মধ্যে কিছু সমস্যা থেকে যাচ্ছে। এদের পুরোপুরি সুস্থ হতে এক বছর সময় লাগবে।

গবেষণায় এও দেখা যাচ্ছে, পুরুষদের থেকে মহিলাদের মধ্যেই ১.৪ গুণ বেশি ক্লান্তি ভাব, দুর্বলতা এবং হাড় ও পেশির সমস্যা থেকে যাচ্ছে। এছাড়াও রয়েছে অ্যাংজাইটি, ডিপ্রেশনের সমস্যা রয়েছে। ফুসফুসের সমস্যা থেকে সেরে উঠতে প্রায় ১ বছর লেগে যাচ্ছে। প্রতি পাঁচ জন রোগীর মধ্যে ১ জনের পেশীর সমস্যা লেগেই রয়েছে। যাঁদের উপরে গবেষণা করা হয়েছিল, তাঁদের মধ্যে ৩৫৩ রোগী ৬ মাস পরে সিটি স্ক্যান করানোর পরে দেখা যায়, তাঁদের ফুসফুসে বেশ কিছু সমস্যা দেখা দিয়েছে।

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published:

Tags: Coronavirus