লাইফস্টাইল

corona virus btn
corona virus btn
Loading

শীতে থাকুন তরতাজা আর পাতে রাখুন এই ৬ খাদ্যশস্য, কাজ হবে মন্ত্রের মতো!

শীতে থাকুন তরতাজা আর পাতে রাখুন এই ৬ খাদ্যশস্য, কাজ হবে মন্ত্রের মতো!

পুজো শেষ। এ বার ধীরে ধীরে শীত পড়তে শুরু করেছে। আবহাওয়ার এই পরিবর্তন আমাদের শারীরিক ও হজম প্রক্রিয়াতেও একাধিক পরিবর্তন আনে। তাই এই সময়ে খাওয়াদাওয়া ও তার পুষ্টিগত দিকগুলি নিয়ে আমাদের একটু সচেতন হতে হয়।

  • Share this:

পুজো শেষ। এ বার ধীরে ধীরে শীত পড়তে শুরু করেছে। আবহাওয়ার এই পরিবর্তন আমাদের শারীরিক ও হজম প্রক্রিয়াতেও একাধিক পরিবর্তন আনে। তাই এই সময়ে খাওয়াদাওয়া ও তার পুষ্টিগত দিকগুলি নিয়ে আমাদের একটু সচেতন হতে হয়। এই সময় নানা ধরনের ভাইরাল ফিবার, সংক্রমণ হয়। ইতিমধ্যেই করোনা থাবা বসিয়েছে। অতএব রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর দিকেও নজর দিতে হবে আমাদের। এই সময়ে তাই বেশ কিছু খাদ্যশস্যকে রাখতে পারেন আপনার ডায়েটে। যেগুলি দিয়ে রুটি, পরোটা, খিচুড়ির মতো নানা ধরনের খাবার বানিয়ে নিতে পারেন। মাথায় রাখবেন- এই খাদ্যশস্যগুলি শুধুমাত্র আপনার রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় না, আপনার সুগার বা উচ্চ রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণেও ভূমিকা নেয়। ভালো রাখে হৃদযন্ত্র। আসুন দেখে নেওয়া যাক, এই শীতের মরশুমে কোনগুলি ডায়েটে রাখবেন আপনি।

বাজরা

প্রচুর পরিমাণে ফাইবার ও পটাসিয়াম থাকে বাজরায়। শীতকালে আপনার ডায়েটে রাখতে পারেন বাজরা। ফাইবার ছাড়াও এতে প্রচুর পরিমাণে Omega-3 ও আয়রন থাকে। তাই বাজরা দিয়ে আপনি রুটি, চাপাটি, উত্থাপাম, ডালিয়া কিংবা খিচুড়ি বানিয়ে নিতে পারেন।

জোয়ার

এই খাদ্যশস্য আমাদের হজম প্রক্রিয়া ভালো রাখে। সুগারের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে। হৃদযন্ত্র ভালো রাখতেও সাহায্য করে জোয়ার। জোয়ারের সাহায্যে আপনি রুটি, উপমা, দোসা, প্যান কেকের মতো একাধিক জিনিস তৈরি করতে পারেন।

কংগনি

শীতকালে এই ধরনের খাদ্যশস্য আপনার ডায়েটে রাখতে পারেন। এতে B12 ভিটামিন থাকে। কংগনি হৃদপিণ্ড এবং স্নায়ুতন্ত্রের প্রক্রিয়া সচল ও স্বাভাবিক রাখে। চুলের বৃদ্ধিতেও অত্যন্ত কার্যকরী কংগনি। এটি খুব সহজেই রান্না করা যায়। পোলাও, খিচুড়ি, রুটি তৈরিতে ব্যবহার করা যেতে পারে এই ফক্সটাইল মিলেট।

মক্কি

অবাঙালিদের, বিশেষ করে পঞ্জাবিদের অনেকেরই প্রিয় খাবার হল হল মক্কির তৈরি রুটি ও সর্ষে শাকের তরকারি। শীতকালে খাদ্যশস্য হিসেবে অত্যন্ত কার্যকরী মক্কি। এতে ভিটামিন A, C, K, বেটা ক্যারোটিন ও সেলেনিয়াম থাকে। এতে প্রচুর পরিমাণে আয়রন থাকে। তাই অ্যানিমিয়া রোগীদের জন্য খুব উপকারী মক্কি।

রেগি

বাদামি রঙের দেখতে হয় এটি। এতে প্রচুর পরিমাণে ক্যালসিয়াম থাকে। ওজন কমানোর ক্ষেত্রেও রাগি দারুণ উপকারী। এটি সহজেই হজম হয়ে যায়। যাঁরা ডায়াবেটিসে ভুগছেন, তাঁদের অনেক সময় রেগির তৈরি রুটি বা খাবার খেতে বলা হয়।

কুট্টু

উৎসবের মরশুমে এই বিশেষ ধরনের আটার বেশি ব্যবহার হয়। যাঁরা ব্রত করেন, তাঁরা বেশিরভাগ সময়ে কুট্টুর আটা খান। তবে অন্য সময়েও খাওয়া যেতে পারে এই বিশেষ গমজাতীয় শস্য বা Buckwheat। এতে ফাইবার থাকে। তাই খাওয়ার পর অনেকক্ষণ পর্যন্ত পেট ভর্তি থাকে ও এনার্জি পাওয়া যায়। এ ছাড়াও ভিটামিন B2 অর্থাৎ রাইবোফ্ল্যাভিন ও নিয়াসিন থাকে। তাই পরোটা, প্যান কেক, লুচি, রুটি তৈরি করে এই বিশেষ ধরনের গমজাতীয় শস্য খাওয়া যেতে পারে।

Published by: Uddalak Bhattacharya
First published: October 30, 2020, 6:07 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर