Home /News /life-style /
Drink Luke Warm Water: ঘুমের আগে এক গ্লাস কুসুম গরম জল! শরীরের অর্ধেক সমস্যা কমবে এতেই

Drink Luke Warm Water: ঘুমের আগে এক গ্লাস কুসুম গরম জল! শরীরের অর্ধেক সমস্যা কমবে এতেই

Benefits of Water: ঘুমনোর আগে জল খেলে বা ঘুম ভেঙে উঠে জল খেলে তা শরীরের জন্য অত্যন্ত ভালো একটি অভ্যাস।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি: তেষ্টায় গলা শুকিয়ে মাঝরাতে ধড়ফড় করে উঠে বসতে হয়েছে, এমন অভিজ্ঞতা নিশ্চয়ই হয়েছে আপনারও! শরীরে জলের মাত্রা কমে গেলেই হাজারো সমস্যা। আমাদের শরীরকে হাইড্রেটেড (Drink Luke Warm Water) রাখার চেয়ে গুরুত্বপূর্ণ আর কিছু নেই। শরীরে জলের ভারসাম্য ঠিক রইলেই মেজাজ ফুরফুরে থাকে, হজম হয় ভালো, উদ্বেগ হ্রাস পায় এবং সংক্রমণও প্রতিহত হয়। সারাদিন কাজের মধ্যে জল খাওয়া (Drink Luke Warm Water) যতটা গুরুত্বপূর্ণ, ঘুমনোর সময়ও হাইড্রেশন ঠিক ততটাই গুরুত্বপূর্ণ। ঘুমনোর আগে জল খেলে বা ঘুম ভেঙে উঠে জল খেলে তা শরীরের জন্য অত্যন্ত ভালো একটি অভ্যাস।

    ঘুমের আগে জল খাওয়ার বেশ কিছু উপকারিতা রয়েছে।

    আরও পড়ুন- শুক্রাণুর স্বাস্থ্যের খেয়াল রাখেন না পুরুষরাই, ক্রমেই বাড়ছে পুরুষদের বন্ধ্যাত্ব!

    ঘুম ভালো হয়

    জল আমাদের মেটাবলিজমের উন্নতিতে সাহায্য করে। খাবার হজম করার সময় আমাদের শরীর বিশ্রামে থাকার সময়ের চেয়ে বেশি শক্তি ব্যবহার করে। আমাদের হৃদস্পন্দনকে বাড়িয়ে তোলে এবং ঘুম আসাকে আরও কঠিন করে তোলে। যখন আমাদের গলা এবং অনুনাসিক নালি অত্যধিক শুকিয়ে যায়, তখন আমাদের নাক ডাকা বেড়ে যায় এবং তেষ্টা পেয়ে ধড়ফড়িয়ে জেগে ওঠার সম্ভাবনাও বেড়ে যায়। ঘুমনোর আগে (Drink Luke Warm Water) পর্যাপ্ত জল খেলে এই সমস্যা এড়ানো সম্ভব।

    বদহজমের সমস্যা সমাধান

    গরম জল হজমশক্তি বাড়ায় কারণ গরম জল খাবার হজম করার জন্য পাকস্থলীতে পাচক রসের নিঃসরণ বাড়ায়। হজম ভালো হলে অ্যাসিডিটি সংক্রান্ত সমস্যাও কমে। রাতে গরম জল (Drink Luke Warm Water) খেলে খাবার দ্রুত হজম হয়।

    আরও পড়ুন- চল্লিশ পেরোলেই উপোস করুন মহিলারা, নিয়ম মেনে থাকুন ছিপছিপে, সুস্থ

    টক্সিক পদার্থ বেরিয়ে যায়

    রাতে ঘুমনোর আগে গরম জল খেলে শরীরের তাপমাত্রা বেড়ে যায়। এর ফলে অতিরিক্ত ঘাম হতে পারে, যা শরীর থেকে টক্সিন বের করে দেয়।

    ওজন কমাতে সহায়ক

    রাতে এক গ্লাস কুসুম কুসুম গরম জল খেলে তা ওজন কমাতেও সাহায্য করে। শরীরের অতিরিক্ত মেদ কমায় বলে চিকিৎসকরাও রাতে গরম জল খাওয়ার পরামর্শ দেন।

    মেজাজ চাঙ্গা রাখে

    যখন তেষ্টা পায় তখন আমাদের সেরোটোনিন এবং ডোপামিনের মাত্রা কমে যেতে পারে। এই দু’টি হরমোনই উদ্বেগ নিয়ন্ত্রণ করে। ফলস্বরূপ রাতে ভালো ঘুম হতে পারে। জল সাধারণত হরমোনের মাত্রার মাধ্যমেই মেজাজ ভালো রাখে।

    ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো রাখে

    শুধু পেটের জন্যই নয়, ত্বকের জন্যও গরম জল উপকারী। বলা হয়, ঘুমনোর আগে গরম জল খেলে ত্বক উজ্জ্বল হয় এবং ত্বক সংক্রান্ত অনেক অসুখও সারে।

    Published by:Madhurima Dutta
    First published:

    Tags: Dehydration

    পরবর্তী খবর