• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • West Bengal Assembly: মিহিরের পা ভাঙার হুমকি উদয়নের, বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বিরোধী প্রস্তাব পাশ বিধানসভায়

West Bengal Assembly: মিহিরের পা ভাঙার হুমকি উদয়নের, বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বিরোধী প্রস্তাব পাশ বিধানসভায়

বিধানসভায় মিহিরকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উদয়নের বিরুদ্ধে৷

বিধানসভায় মিহিরকে হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উদয়নের বিরুদ্ধে৷

অভিযোগ, এ দিন প্রস্তাবের পক্ষে বলতে উঠে বিজেপি বিধায়ক মিহির গোস্বামীর পা ভেঙে দেওয়ার হুমকি দেন সদ্য নির্বাচনে জিতে আসা উদয়ন (West Bengal Assembly)৷

  • Share this:

#কলকাতা: প্রত্যাশিত ভাবেই বিধানসভায় পাস হয়ে গেল বিএসএফের এক্তিয়ার বৃদ্ধির বিরোধিতায় আনা প্রস্তাব৷ কিন্তু এই প্রস্তাব পাসকে কেন্দ্র করে তপ্ত হয়ে উঠল বিধানসভার অধিবেশন৷ যার কেন্দ্রে দিনহাটার তৃণমূল বিধায়ক উদয়ন গুহর বিতর্কিত মন্তব্য৷

অভিযোগ, এ দিন প্রস্তাবের পক্ষে বলতে উঠে বিজেপি বিধায়ক মিহির গোস্বামীর পা ভেঙে দেওয়ার হুমকি দেন সদ্য নির্বাচনে জিতে আসা উদয়ন৷ যে বক্তব্যকে কেন্দ্র করে তীব্র উত্তেজনা ছড়ায় শাসক এবং বিরোধী শিবিরের মধ্যে৷ এই উত্তেজনার মধ্যেই ১১২-৬৩ ভোটের ব্যবধানে বিধানসভায় পাশ হয়ে যায় বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বিরোধী প্রস্তাব৷

আরও পড়ুন: রাজ্যে গ্রুপ-ডি নিয়োগের রহস্যভেদে সিবিআই? বুধবার হাইকোর্টের দিকে তাকিয়ে কমিশন   

উদয়ন গুহর এই মন্তব্যকে অবশ্য সমর্থন করেনি শাসক দলও৷ উদয়ন গুহর নিজের অবশ্য দাবি, পা ভেঙে দেওয়ার কথা তিনি বলেননি৷

সম্প্রতি সীমান্ত থেকে ৫০ কিলোমিটার ভিতরের এলাকা পর্যন্ত বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বৃদ্ধি করেছে কেন্দ্রীয় সরকার৷ এই প্রস্তাবের বিরোধিতায় এ দিন বিধানসভায় প্রস্তাব আনে রাজ্য সরকার৷ প্রস্তাবের পক্ষে তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে অন্যতম বক্তা ছিলেন দিনহাটার বিধায়ক উদয়ন গুহ৷

প্রস্তাবের পক্ষে বলতে উঠে গুহ অভিযোগ করেন, 'বিএসএফের মদত ছাড়া পাচার চোরাচালান হতে পারে না৷ ভোটে হেরে বাংলায় দ্বৈত শাসন চালাতে চাইছে বিজেপি৷' উদয়নের এই মন্তব্যের তীব্র বিরোধিতা করেন বিজেপি বিধায়করা৷ দু' পক্ষের মধ্যে বাদানুবাদ শুরু হয়ে যায়৷ অভিযোগ, এর পরেই কোচবিহার দক্ষিণের বিজেপি বিধায়ক মিহির গোস্বামীকে উদ্দেশ করে উদয়ন গুহ বলেন, 'এক পা ভেঙেছে, অন্য পাও ভেঙে দেব৷'

আরও পড়ুন: নারদ মামলায় জামিন পেয়ে খোশমেজাজে মদন, কলকাতাতেই চালালেন টয় ট্রেন!

উদয়ন গুহর এই মন্তব্যের তীব্র প্রতিবাদ করেন বিজেপি বিধায়করা৷ বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী বলেন, 'শুনে মনে হচ্ছিল একজন বিধায়ক নন, কোনও দুষ্কৃতী হুমকি দিচ্ছেন৷ একজন বিধায়কের উদ্দেশে অন্য একজন বিধায়ক কীভাবে এমন ভাষা ব্যবহার করতে পারেন?'

শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসও যে উদয়নের এই মন্তব্যকে সমর্থন করছে না, তা বুঝিয়ে দিয়েছেন পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷ তিনি বলেন, 'আমাদের দলের হোন বা বিরোধী পক্ষের, সংস্কৃতির বাইরে গিয়ে কেউ কথা বলুন এটা চাই না৷' উদয়নের মন্তব্যে ক্ষোভ প্রকাশ করেন অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায়ও৷

যদিও পরে উদয়ন গুহ দাবি করেন, 'আমি একবারও বলিনি হাত পা ভেঙে দেব৷ আমি বলেছি আপনার একবার পা ভেঙেছে, সাবধানে থাকুন৷ লাফালাফি করলে আর একটা পাও ভেঙে যেতে পারে৷ উনি আমার জেলারই লোক, প্রবীণ বিধায়ক, ওনার হাত- পা ভেঙে গেলে সেটা আমার দায়িত্ব না?'

এ দিন রাজ্য সরকারের আনা প্রস্তাবেরও সমালোচনা করেন বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী৷ তাঁর কটাক্ষ, 'শাসক দলের বিধায়কদের কথা শুনে মনে হচ্ছিল ভারতবর্ষে নয়, আফগানিস্তান বা পাকিস্তানের কোনও প্রদেশের বিধানসভায় বসে আছি৷ বিএসএফ-এর এক্তিয়ার বাড়িয়ে আশি কিলোমিটার করা উচিত৷'

রাজ্যের পরিষদীয় মন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় অবশ্য বলেন, 'এটা বিএসএফ-এর বিরুদ্ধে কোনও প্রস্তাব নয়৷ এই সিদ্ধান্ত রাজ্যের যুক্তরাষ্ট্রীয় ব্যবস্থাকে ভেঙে দেবে৷ এই সিদ্ধান্ত বিএসএফ আইনেরও বিরুদ্ধে৷'

Published by:Debamoy Ghosh
First published: