• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • STATE GOVERNMENT EARNS ALMOST 33 CRORES BY IMPOSED FINE FOR OVERLOADING OF GOODS CARRIER PB

state government| 'কারও পৌষমাস কারও সর্বনাশ'! ওভারলোডিং থেকে রাজ্যের আয় প্রায় ৩৩ কোটি!

photo source collected

state government| ওভারলোডিং থেকে ফাইন বাবদ গত তিন মাসে রাজ্যের কোষাগারে এত বিপুলসংখ্যক অর্থ জমা পড়েছে। ওভারলোডিং আটকাতে যাকে ইতিবাচক হিসেবেই দেখছে।

  • Share this:

#কলকাতা: একেই বলে "কারো পৌষ মাস কারো সর্বনাশ।" গত তিন মাসে ওভারলোডিং থেকে ফাইন বাবদ রাজ্যের (state government) আয় হয়েছে প্রায় ৩৩ কোটি টাকা। যাকে কার্যত নজিরবিহীন বলেই দাবি করছে নবান্নের শীর্ষ মহল।শুধু তাই নয়, ওভারলোডিং থেকে এত টাকা আদায়কে ওভারলোডিং আটকাতে ইতিবাচক বলেই মনে করছে নবান্ন। কয়েক সপ্তাহ আগে পরিবহন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম ওভারলোডিং নিয়ে জেলাশাসক ও পুলিশ সুপারদের সঙ্গে বৈঠক করেন। বৈঠকে ওভারলোডিং আটকাতে কয়েক দফা নির্দেশ দেন। যদিও গত জুন মাস থেকেই ওভারলোডিং নিয়ে কড়া মনোভাব নিয়েছিল রাজ্য। তারপর থেকেই পরিবহন দপ্তর এর সমীক্ষায় উঠে এসেছে প্রায় ১০ হাজার গাড়ি থেকে ওভারলোডিং নিয়ে জরিমানা করা হয়েছে রাজ্য ব্যাপী বিভিন্ন জাতীয় ও রাজ্য সড়ক থেকে।

নবান্ন সূত্রে খবর গত জুন মাসে মোট চেকিং করা হয়েছে ২৯৫৫৭টি গাড়ি। তারমধ্যে ২৬৯৬টি গাড়িকে ধরা হয়েছে ওভারলোডিং (overloading)  এর জন্য। জুন মাসে ওভারলোডিং থেকে জরিমানা বাবদ রাজ্যের আয় হয়েছে ৭ কোটি ১৮ লক্ষ টাকা। অন্যদিকে জুলাই মাসে মোট চেকিং করা হয়েছে ৪৮৩৪৯টি গাড়িকে। তারমধ্যে ৩৭১০ টি গাড়িকে ওভারলোডিং এর জন্য ফাইন করা হয়েছে। জুলাই মাসে ওভারলোডিং থেকে রাজ্যের আয় হয়েছে ৯ কোটি ৭০ লক্ষ টাকা। আগস্ট মাসে মোট ৫৭২৯০টি গাড়িকে চেকিং করা হয়েছে। তারমধ্যে ৩৪৭১ টি গাড়ি কে জরিমানা করা হয়েছে ওভারলোডিং এর জন্য। গত ২৭ শে আগস্ট পর্যন্ত রাজ্যের আয় হয়েছে ১৫ কোটি ৭৪ লক্ষ টাকা।

মঙ্গলবার ও মুখ্যসচিব ওভারলোডিং (overloading) নিয়ে কড়া নির্দেশ দেন জেলা শাসকদের। মঙ্গলবার সকালে জেলা শাসকের নির্দেশ দেওয়া হয় ওভারলোডিং নিয়ে প্রত্যেকদিন কত গাড়ি চেকিং হচ্ছে তার রিপোর্ট পাঠাতে হবে পরিবহন সচিব কে। পাশাপাশি ওভারলোডিং আটকানোর জন্য পুলিশকে আরো সতর্ক হতে হবে বলেও মঙ্গলবার সন্ধ্যা বেলায় ভিডিও কনফারেন্স করে পুলিশ সুপার,কমিশনারদের বলেন মুখ্যসচিব বলেই নবান্ন সূত্রে খবর। নবান্নের (Nabanna) শীর্ষ মহল মনে করছে ওভারলোডিং নিয়ে রাজ্যের যে বিপুল সংখ্যক আয় হয়েছে সে ক্ষেত্রে পুলিশ আরো সতর্ক হলে ওভারলোডিং থেকে পুরোপুরিভাবেই নিয়ন্ত্রণে আনা সম্ভব।

সোমরাজ বন্দ্যোপাধ্যায়

Published by:Piya Banerjee
First published: