হোম /খবর /কলকাতা /
'সৌজন্যকে দুর্বলতা ভাববেন না,' চায়ের আমন্ত্রণ প্রসঙ্গে শুভেন্দুকে তোপ শান্তনুর

'সৌজন্যকে দুর্বলতা ভাববেন না,' চায়ের আমন্ত্রণ প্রসঙ্গে শুভেন্দুকে তোপ শান্তনুর

শুভেন্দু অধিকারী এবং শান্তনু সেন - ফাইল ছবি

শুভেন্দু অধিকারী এবং শান্তনু সেন - ফাইল ছবি

বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে কার্যত একহাত নিলেন তৃণমূল নেতা শান্তনু সেন।

  • Share this:

#কলকাতা: বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারীকে কার্যত একহাত নিলেন তৃণমূল নেতা শান্তনু সেন। এদিন একাধিক ইস্যুতে বিজেপিকে নিশানা করেন তিনি। এদিন শান্তনু সেন বলেন, "সিএএ হল বিজেপির কাছে সাপের ছুঁচো গেলার মতো। ওদের দ্বিমত পোষণ আমরা দেখেছি। অসমে কী করল? সিএএ কার্যকর ওরা করবে না। এটা ওদের রাজনৈতিক ট্রাম্প কার্ড। সবাই নাগরিক। ওনারা করে দেখান? এখন নাগরিকত্ব দিতে চাইলে, যাদের ভোটে জিতে এলেন তাদের ভোট তাহলে অবৈধ? সবার আগে সেটা করে দেখাক তাহলে।"

শান্তনু সেন বলেন, "শুভেন্দু অধিকারী কালকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে চা খাওয়ার পরে, আজ আবার এই বক্তব্য করে উনি দিলীপ ঘোষকে খুশি করতে চাইলেন। শুভেন্দু অধিকারী সবজান্তা গামছাওয়ালা হয়ে গেছে। এই সৌজন্যকে দুর্বলতা ভাববেন না। বিরোধীদের কথা বলার সুযোগ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় করে দিয়েছেন। যে ধরণের কথা বলছেন, তাতে তাঁকে বলি, যেদিন হাঁড়িতে হ্যান্ডেল থাকবে, সেদিন ওনার স্বপ্ন সফল হবে। বিজেপি বামের ভোট নিয়ে জিতেছিল। পরে সেই ভোট সরতেই বিজেপির আসন কমল। যত দিন যাচ্ছে তৃণমূলের ভোট বাড়ছে।"

তিনি আরও বলেন, "বিজেপি ২০০ পার বলে, ৭৭ আটকে গিয়েছিল। তেমনি ওদের কটা গোষ্ঠী, ওরা নিজেরাই জানে না। এখন আবার নতুন বিজেপি হচ্ছে, মিঠুন বিজেপি। সঙ্গে আবার তথাগত রায়ের বিজেপি বাঁচাও কমিটি হয়েছে। মতুয়াদের জন্য কী করেছে ওরা? সেভেন স্টার হোটেল থেকে খাবার কিনে নিয়ে গিয়ে প্লেটে রেখে খেয়ে মুখ মুছে চলে এসেছেন। আর মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ওঁনাদের জন্যে একাধিক কাজ করে দিয়েছেন। তাই মতুয়ারা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সঙ্গে আছেন।"

আরও পড়ুন, প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী করে ছাড়ব! প্রণাম- সৌজন্য পর্ব মিটতেই মমতাকে চ্যালেঞ্জ শুভেন্দুর

শুভেন্দুকে তোপ দেগে শান্তনু বলেন, "শুভেন্দু অধিকারী বিজেপিতে যোগ দিলেও, তাঁর বাবা ও ভাই অন্য দলের প্রতীকে জিতে আসার সাহস এখনও দেখাননি৷ আমরা শৃঙ্খলাবদ্ধ দল। আমাদের কমিটি আছে। দলের শীর্ষ নেতারা সিদ্ধান্ত নেন, কে আসবেন দলে, আর কে আসবেন না।"

মিঠুনকে তোপ দেগে শান্তনু সেন বলেন, "মিঠুন চক্রবর্তী কে? এক সময় সফল অভিনেতা। একজন ব্যর্থ রাজনীতিবিদ। একবার উনি সাংসদ হয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জন্য। উনি মুখ খুললে, বিজেপির মুখ পুড়বে। গেরুয়া ত্যাগের প্রতীক। আমরা যোগীর গেরুয়ায় বিশ্বাস করিনা। ভেকধারী শুভেন্দুর কথা আমরা শুনব না। তুমি বিশ্বাসঘাতকতা করেছো। লোডশেডিংয়ে জেতা বিধায়ক। নিজের কী হবে দেখো?"

আরও পড়ুন, তৃণমূলকে হারাতে মহাজোট চান মহাগুরু! পত্রপাঠ খারিজ সিপিএমের, জবাব দিলেন কুণাল

বিজেপিকে নিশানা করে তিনি বলেন, "সিএএ হল বিজেপির কাছে সাপের ছুঁচো গেলার মতো। ওদের দ্বিমত পোষণ আমরা দেখেছি। আসামে কী করল? সিএএ কার্যকর ওরা করতে হবে না। এটা ওদের রাজনৈতিক ট্রাম্প কার্ড। সবাই নাগরিক। ওনারা করে দেখান? এখন নাগরিকত্ব দিতে চাইলে, যাদের ভোটে জিতে এলেন তাদের ভোট তাহলে অবৈধ? সবার আগে সেটা করে দেখাক তাহলে।"

Published by:Suvam Mukherjee
First published:

Tags: BJP, Santanu Sen, Suvendu Adhikari, TMC, তৃণমূল, বিজেপি