corona virus btn
corona virus btn
Loading

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে পঠন-পাঠন ও প্রশাসনিক কাজ শুরুর প্রস্তুতি, শুরু হল স্যানিটাইজেশন

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে পঠন-পাঠন ও প্রশাসনিক কাজ শুরুর প্রস্তুতি, শুরু হল স্যানিটাইজেশন
  • Share this:

#কলকাতা: করোনা ভাইরাস মুক্ত করতে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় শুরু হল স্যানিটাইজেশনের কাজ। গত সপ্তাহের শনিবার থেকেই বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসগুলিতে এই কাজ শুরু করা হয়েছে।

গত শনি ও রবিবার বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ স্ট্রিট ক্যাম্পাসের বিভিন্ন জায়গায় স্যানিটাইজ করার পাশাপাশি ধাপে ধাপে বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য ক্যাম্পাসগুলো স্যানিটাইজ করার প্রক্রিয়া শুরু করা হয়েছে। ক্যাম্পাসের  লাইব্রেরি, ল্যাবরেটরি, ক্লাস রুম সহ বিভিন্ন জায়গা সানিটাইজ করা হচ্ছে। কার্যত স্যানিটাইজ প্রক্রিয়ার মাধ্যমেই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনিক ও পঠন পাঠন সংক্রান্ত কাজকর্ম শুরু করার এক প্রকার প্রস্তুতি নিয়ে নিল বলেই বিশ্ববিদ্যালয়ের একাংশের মত।

এ প্রসঙ্গে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সোনালী চক্রবর্তী বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন " আমাদের বিভিন্ন বিভাগ ইতিমধ্যেই খুলতে শুরু করেছে। কাজের নিরিখে কর্মচারিরাও আসছেন। তাঁদের নিরাপত্তার কথা ভেবেই এই স্যানিটাইজ প্রক্রিয়া করা হচ্ছে।"

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে চলছে স্যানিটাইজেশন কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ে চলছে স্যানিটাইজেশন

করোনা ভাইরাসের সংক্রমণের কথা মাথায় রেখে আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত রাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয় গুলি বন্ধ রাখার নির্দেশ  ইতিমধ্যেই জারি হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়গুলি খুললেই এক মাসের মধ্যে ফাইনাল সেমিস্টারের পরীক্ষা নেওয়ার কথা ইতিমধ্যে ঘোষণা করেছেন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তার প্রস্তুতিও ইতিমধ্যে নিয়েছে কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়। কলেজ গুলিকে ইতিমধ্যেই নির্দেশিকা পাঠিয়ে পরীক্ষা নেওয়ার প্রস্তুতি যাবতীয় পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য বলা হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের তরফে। শুধু তাই নয় স্নাতক ও স্নাতকোত্তর স্তরের পরীক্ষা কিভাবে নেওয়া হবে তা নিয়ে ইতিমধ্যেই বিভিন্ন বিভাগের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সেক্ষেত্রে অফলাইনে না অনলাইনে কিভাবে পরীক্ষা নেওয়া যেতে পারে ছাত্র-ছাত্রীদের সে বিষয়েও মতামত নেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু হয়ে গেছে। স্নাতক স্তরের পরীক্ষা কলেজ ভিত্তিক হলেও স্নাতকোত্তর স্তরের পরীক্ষা বিশ্ববিদ্যালয়কে ক্যাম্পাসগুলো থেকেই নিতে হবে। সেক্ষেত্রেও পরীক্ষার ধরন বা প্রশ্ন কিরকম হবে তা নিয়েও আলোচনা ইতিমধ্যেই শুরু হয়েছে।

তবে  লকডাউন এর আনলক ওয়ান পর্বে কিছু নিয়ম শিথিল হওয়ায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগে গবেষক পড়ুয়ারা আসতে শুরু করেছেন। কয়েকটি বিভাগে গবেষণার কাজ শুরু হয়েছে। সে ক্ষেত্রে লকডাউন হওয়ার আগে বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ হয়ে যাওয়ায় নতুন করে আর স্যানিটাইজ করার সুযোগ পাইনি কর্তৃপক্ষ। তাই এবার গত সপ্তাহ থেকেই এই স্যানিটাইজা করার প্রক্রিয়া শুরু করার মাধ্যমে কার্যত ইঙ্গিত দিয়ে দিল খুব শীঘ্রই বিশ্ববিদ্যালয় জোরকদমে শুরু হতে চলেছে প্রশাসনিক ও পঠন-পাঠন সংক্রান্ত কাজ।

 SOMRAJ BANDOPADHYAY

Published by: Arindam Gupta
First published: June 10, 2020, 2:47 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर