Home /News /kolkata /
Paresh Adhikari: সাড়ে ন'ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদের পর নিজাম প্য়ালেস থেকে বেরিয়ে গেলেন পরেশ অধিকারী

Paresh Adhikari: সাড়ে ন'ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদের পর নিজাম প্য়ালেস থেকে বেরিয়ে গেলেন পরেশ অধিকারী

Photo- Facebook

Photo- Facebook

Paresh Adhikari: এর আগে শুক্রবার সকালে, এসএসসি-তে স্কুল শিক্ষক নিযোগ মামলায় শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর মেয়ে অঙ্কিতা অধিকারীকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার নির্দেশ দেয় আদালত।

  • Share this:

    #কলকাতা: সিবিআইয়ের নিজাম প্য়ালেসের অফিস ছেড়ে বেরিয়ে গেলেন পরেশ অধিকারী। শুক্রবার সকাল ১০.৪০ মিনিট নাগাদ জিজ্ঞাসাবাদের জন্য় নিজাম প্য়ালেসের অফিসে হাজির হন পরেশ। সেখানে দীর্ঘ সাড়ে ন'ঘণ্টা চলে জিজ্ঞাসাবাদ। সেই জিজ্ঞাসাবাদের শেষে রাত ৮.২৫ মিনিট নাগাদ অফিস ছেড়ে বেরিয়ে যান রাজ্য়ের শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারী।

    এর আগে শুক্রবার সকালে, এসএসসি-তে স্কুল শিক্ষক নিযোগ মামলায় শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী পরেশ অধিকারীর মেয়ে অঙ্কিতা অধিকারীকে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার নির্দেশ দেয় আদালত। আপাতত চাকরি থেকে বরখাস্ত করা হল পরেশ কন্যাকে। তাঁকে ৪৩ মসের বেতন ফেরত দেওযারও নির্দেশ দিয়েছে আদালত। বেতন ফেরত দিতে হবে আদালতের রেজিস্ট্রারের কাছে। ২ কিস্তিতে বেতন ফরত দেওয়ার নির্দেশ। আগামী ৭ জুনের মধ্য়ে প্রথম কিস্তি ফেরত দিতে হবে। অভিযোগ ছিল, পার্সোনালিটি টেস্টে না বসে, কম নম্বর পাওয়ার পরেও চাকরি পেয়েছিলেন মন্ত্রী কন্যা। মামলকারীর নম্বর ছিল তাঁর থেকে বেশি, তাও তিনি চাকরি পাননি। এই সত্য সামনে আসতেই শুরু হয় তোলপাড়।

    আরও পড়ুন - মেয়ে-জামাইয়ের জন্য মাংস আনতে বলেছিলেন স্ত্রী, রাগের চোটে স্বামী যা করলেন, তা দেখে চমকে যেতে হয়

     এ দিকে বৃহস্পতিবারের পরে শুক্রবারও সিবিআই-এর জেরার সামনে পড়েন পরেশ অধিকারী। সকালেই তিনি নিজাম প্যালেসে চলে আসেন জিজ্ঞাসাবাদের জন্য। এর আগে বৃহস্পতিবার কোচবিহার থেকে স্পাইসজেটের বিমানে কলকাতায় পৌঁছন পরেশ অধিকারী। সেখান থেকে তিনি সাতটা নাগাদ সিবিআই দফতরে পৌঁছে যান, সেখানে তিন ঘণ্টা পাঁচ মিনিট জেরা চলে তাঁর। তার পর সেই নিজাম প্যালেস থেকে বেরিযে তিনি চলে যান বিধায়ক হস্টেলে। তার পরেই ফের তলব করা হয় তাঁকে।

    সিবিআই সূত্রে খবর পাওয়া যায়, দেরি করে পৌঁছানোয় জিজ্ঞাসাবাদ সম্পূর্ণ করতে পারেনি সিবিআই। সেই কারণেই ফের তলব করা হয়। শুক্রবার সকাল ১০.৪০ মিনিটে নিজাম প্যালেসের সিবিআই দফতরে পৌঁছে যান। সেখানেই শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ। তার মধ্যেই খবর আসে আদালত থেকে যে চাকরি থেকে বরখাস্ত করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, যদিও এ নিয়ে মন্ত্রী কন্যার কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।

    Published by:Uddalak B
    First published:

    Tags: Paresh Adhikari

    পরবর্তী খবর