রাজাবাজারের পর মানিকতলায় মিলল ভাগাড়ের মাংস রাখার আরও এক হিমঘর

নিজস্ব চিত্র

রাজাবাজারের পর মানিকতলা। নিউজ এইটিন বাংলার ক্যামেরায় ভাগাড়ের মাংস রাখার আরও এক হিমঘর।

  • Share this:

    #কলকাতা: রাজাবাজারের পর মানিকতলা। নিউজ ১৮ বাংলার ক্যামেরায় ভাগাড়ের মাংস রাখার আরও এক হিমঘর। মানিকতলা থানার পাশেই এই হিমঘরের মালিকও আশিস ঝুনঝুনওয়ালা। অভিযোগ, ভাগাড় থেকে নিয়মিত মাংস আসত এই হিমঘরে। টিমটিম করে আলো জ্বলছে। তাপমাত্রা হেরফেরে অন্যরকম আবহ। কী আছে হিমঘরের অন্দরে, তা খুঁজতে এগিয়ে চলল নিউজ এইটিন বাংলার ক্যামেরা।

    আরও পড়ুন: ভাগাড় কাণ্ড: নিউটানের নামী রেস্তোরাঁয় আসত মরা পশুর মাংস

    দশ বছর আগে এই হিমঘর কিনেছিলেন আশিস ঝুনঝুনওয়ালা। ইতিমধ্যেই রাজাবাজারে তাঁর হিমঘরে তল্লাশি চালিয়ে কুড়ি হাজার টন ভাগাড়ের মাংস উদ্ধার করেছে পুলিশ। বেপাত্তা আশিসের খোঁজ চলছে। পাশাপাশি রাখা হয়েছে তাঁর বাকি হিমঘরের দিকে নজর। অভিযোগ, রাজাবাজারের উদ্ধৃত্ত মাংস চলে আসত মানিকতলার এই হিমঘরে। তার খোঁজ নিতেই হিমঘরে হাজির নিউজ এইটিন বাংলা। সন্দেহজনক ভাবে ক্যামেরায় ধরা পড়ল বন্ধ একটা দরজা। কেন বন্ধ সিক্স বি ? প্রশ্ন করতে, ঢোঁক গিলছেন কর্মীরা।

    আরও পড়ুন: গড়িয়া থেকে গ্রেফতার ভাগাড় কাণ্ডের বড় চাঁই সূত্রের খবর, ফল-ফুল-মাছ-মিষ্টির আড়ালেই রাখা হত ভাগাড়ের মাংস। বিশেষ করে হিমঘরের যেদিকটা ডিম মজুত থাকে, তার নীচে বেশ কয়েকটি ঘর আছে বলেও জানা গিয়েছে। ভাগাড় কারবারে গ্রেফতার সানি, শরাফত, বিশ্বনাথদের জেরা করেই আশিসের এই নতুন হিমঘরের খোঁজ পেয়েছে পুলিশ।

    আরও পড়ুন: ভাগাড় কাণ্ডের জের, বিপাকে আফগান রেস্তোরাঁ, কমছে আমিষ পদের চাহিদা

    First published: