• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • NABANNA SEND REPLY TO ELECTION COMMISSION ON FINANCIAL HELP TO PUJA COMMETEE FOR DURGA PUJA 2021 DURING BY POLLS SB

Durga Puja 2021 ‍| West Bengal By Polls: মুর্শিদাবাদ ও ভবানীপুরের কোনও ক্লাব টাকা পায়নি! কমিশনের প্রশ্ন মাত্রই জবাব নবান্নের

নবান্নের জবাব

Durga Puja 2021 ‍| West Bengal By Polls: রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব নির্বাচন কমিশনকে কাছে জানিয়েছেন, বিধি মেনে সরকারি অনুষ্ঠান হয়েছিল। নির্দিষ্ট ভাবে মুর্শিদাবাদকে এবং ভবানীপুর এলাকার কোনও পুজো কমিটিকে এই বৈঠক থেকে সরকারি সুবিধা দেওয়া হয়নি।

  • Share this:

#কলকাতা: প্রতি বছরের মতো এবারও দুর্গাপুজোয় (Durga Puja) ক্লাবগুলিকে আর্থিক সাহায্যের ঘোষণা করেছে রাজ্য সরকার। এরপরই নির্বাচনী বিধিভঙ্গের অভিযোগ তুলেছে বিরোধী শিবির। এরপরই ভোট ঘোষণার পরেও কেন ক্লাবকে টাকা, তা জানতে চেয়ে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিবের কাছে ব্যাখ্যা চেয়ে পাঠিয়েছিল নির্বাচন কমিশন (Election Commission)। কমিশন সূত্রে এমনই খবর। আর নির্বাচন কমিশনের সেই চিঠি পাওয়া মাত্রই 'সদুত্তর' দিল নবান্ন। সূত্রের খবর, রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব কমিশনকে কাছে জানিয়েছেন, বিধি মেনে সরকারি অনুষ্ঠান হয়েছিল। নির্দিষ্ট ভাবে মুর্শিদাবাদকে এবং ভবানীপুর এলাকার কোনও পুজো কমিটিকে এই বৈঠক থেকে সরকারি সুবিধা দেওয়া হয়নি। ফলে এ বিষয়ে রাজ্য সরকারের উপর চাপ তাতে কিছুটা হলেও কমল বলে মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

আরও পড়ুন: বাড়ির গ্যারেজ থেকে শুরু, ৩৮ বছরের দুর্গাপুজো তাক লাগাচ্ছে গোটা ইন্দোনেশিয়ায়!

এদিন অবশ্য বিষয়টি নিয়ে বিজেপিকে তুলোধনা করতে ছাড়েননি মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। উপনির্বাচনের প্রথম কর্মীসভাতেই মমতা বলেন, 'মুর্খের দল জানে না। ঘোষণা তো করেছে মুখ্যসচিব। এসব বিষয় তো মুখ্যসচিব ঘোষণা করতেই পারে। ওরা বাঘ হলে আমিও বুনো ওল। আমি কি এটুকু জানি না যে নির্বাচন ঘোষণা হলে নতুন কিছু ঘোষণা করা যায় না?' এদিন বিজেপির বিরুদ্ধে পুজো নিয়ে একগুচ্ছ অভিযোগ করেছেন মমতা। পাল্টা দিতে সময় নেননি বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। তাঁর কথায়, 'পুজো নিয়ে জ্ঞান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের থেকে শুনব না। কোনও ক্লাব সাহায্য চায়নি। উনি নিজের ছবি লাগানোর জন্য, ক্লাবগুলোকে কিনে নেওয়ার জন্য এমন করছেন!'

অপরদিকে, নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর, কেন্দ্রীয় বাহিনী ঘেরাটোপেই ভবানীপুরে উপ-নির্বাচন ও মুর্শিদাবাদের দুই কেন্দ্রে নির্বাচন হতে চলেছে। প্রত্যেক বিধানসভাতে ৮-১০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী থাকার সম্ভবনা রয়েছে। ভবানীপুর উপনির্বাচনে একজন ব্যয় সংক্রান্ত পর্যবেক্ষক নিয়োগ করেছে নির্বাচন কমিশন। তাঁর নাম এন অশোক বাবু। সামসেরগঞ্জ, জঙ্গীপুরেও আসছেন একজন পর্যবেক্ষক। তাঁর নাম সঞ্জয় কুমার। এছাড়াও আসবে সাধারণ পর্যবেক্ষকও। প্রতি বিধানসভায় কম পক্ষে দুজন করে পর্যবেক্ষক থাকবেন।

Published by:Suman Biswas
First published: