corona virus btn
corona virus btn
Loading

গৃহবধূর রহস্যমৃত্যু, বাপের বাড়িতে না জানিয়েই দাহের প্রস্তুতি

গৃহবধূর রহস্যমৃত্যু, বাপের বাড়িতে না জানিয়েই দাহের প্রস্তুতি
representative image

বিয়ের পাঁচ মাসের মধ্যেই গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যুতে ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য ৷ এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে খুন করার অভিযোগ উঠল তাঁর স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির বিরুদ্ধে।

  • Share this:

#বারুইপুর: বিয়ের পাঁচ মাসের মধ্যেই গৃহবধূর অস্বাভাবিক মৃত্যুতে ছড়িয়েছে চাঞ্চল্য ৷ এক গৃহবধূকে শ্বাসরোধ করে খুন করার অভিযোগ উঠল তাঁর স্বামী ও শ্বশুর বাড়ির বিরুদ্ধে। খুনের পর বাপের বাড়ির লোককে না জানিয়ে চুপচাপ শ্মশানে গিয়ে দেহ দাহ করার চেষ্টা করা হয়েছে বলেও অভিযোগ ৷ মৃতার নাম রিতা চক্রবর্তী(২১)। ঘটনাটি ঘটেছে বারুইপুর থানার বিদ্যাধরপুর বনবিবিতলা এলাকায়।

গৃহবধূর রহস্যমৃত্যুর খবর পেয়ে বারুইপুর থানার পুলিশ শ্মশানে পৌঁছে দাহ আটকায় ৷ মৃত্যুর আসল কারণ জানতে বধূর মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য পাঠিয়েছে পুলিশ ৷ ঘটনায় মৃতার বাপের বাড়ির লোকেদের অভিযোগের ভিত্তিতে বারুইপুর থানার পুলিশ মৃতার স্বামী সুমন চক্রবর্তী,শ্বশুর তপন চক্রবর্তী ও দেওরকে আটক করেছে পুলিশ ৷ চলছে জিজ্ঞাসাবাদ ৷

গত মার্চ মাসে উত্তর ২৪ পরগনার সন্দেশখালি থানার গাববেরিয়া এলাকার বাসিন্দা রীতার সঙ্গে বিয়ে হয় বারুইপুরের বিদ্যাধরপুর বনবিবি তলার সুমনের ৷ বিয়ের আগে থেকেই একে অপরকে চিনতেন রীতা ও সুমন ৷ তবে তাদের এই সম্পর্কে সম্মতি ছিল না রীতার পরিবারের ৷ বাড়ির বিরুদ্ধে গিয়েই সাত পাকে বাঁধা পড়ে তারা দু’জন ৷

বিয়ের পাঁচ মাস পরেই মেয়ের এই পরিণতিতে ভেঙে পড়েছে রীতার পরিবার ৷ মৃতার পরিবারের অভিযোগ, খুন না করলে কেন তড়িঘড়ি তাহলে মৃতদেহ লোপাটের চেষ্টা করছিলেন সুমনের বাড়ির লোকজন? ইতিমধ্যেই এ বিষয়ে বারুইপুর থানায় খুনের অভিযোগ দায়ের করেছেন রীতার বাপের বাড়ির লোকেরা। সেই অভিযোগের ভিত্তিতে মৃতার স্বামী সহ মোট তিনজনকে গ্রেফতার করে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করেছে বারুইপুর থানার পুলিশ।

First published: August 18, 2018, 3:08 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर