আর এন টেগোর হাসপাতালে রাজ্যের মন্ত্রীকে লিফটে থেকে নামিয়ে দেওয়া হল

আর এন টেগোর হাসপাতালে রাজ্যের মন্ত্রীকে লিফটে থেকে নামিয়ে দেওয়া হল
Photo- File

ওসব মন্ত্রি-টন্ত্রি জানি না, লিফট্ থেকে নেমে যান ।রাজ্যের শ্রমদপ্তর এর রাষ্ট্রমন্ত্রী জাকির হোসেনকে আর এন টেগোর হাসপাতালের লিফট্ থেকে নামিয়ে দেওয়া হল।

  • Share this:

Avijit Chanda

#কলকাতা :  মুর্শিদাবাদের সুতির  দাপুটে বিধায়ক জাকির হোসেন । শুধু সুতি কেন,তার আশপাশের এলাকাতেও জাকির হোসেনের দাপট প্রবল।  আর সেই মন্ত্রীকেই কি না হাসপাতালের লিফট থেকে  নামিয়ে দেওয়া হল। ইএম বাইপাসের পাশে  মুকুন্দপুর এর আর এন টেগোর হাসপাতালে  হেনস্থার অভিযোগ উঠল রাজ্যের শ্রম দফতরের রাষ্ট্র মন্ত্রী জাকির হোসেন কে। ৫ ডিসেম্বর,বৃহস্পতিবার, দুপুর ১:৫০ নাগাদ তিনি হাসপাতালে যান ডাক্তার দেখানোর জন্য। সেখানকার ও পি ডি বিল্ডিংয়ের লিফটে উঠতে যাওয়ার সময়ই ঘটল ঝঞ্ঝাট।

Photo- File Photo- File

তখনই  লিফট থেকে তাকে নেমে যেতে বলা হয়। হাসপাতালের গ্রুপ D স্টাফ, মন্ত্রীর সিকিউরিটি সহ মন্ত্রিকে লিফট থেকে নামিয়ে দেয়। মন্ত্রী পরিচয় দেওয়া সত্ত্বেও  তাকে লিফট থেকে  নামিয়ে দেওয়া হয় । দৃশ্যতই  হতভম্ব হয়ে যান মন্ত্রী ।মন্ত্রীর নিরাপত্তা রক্ষী বারবার অনুরোধ করলেও করতব‍্যে অবিচল লিফটম‍্যান।শুরু হয় বচসা।পরবর্তীতে তিনি অবশ্য মন্ত্রীর পরিচয়পত্র দেখিয়ে লিফটে ওঠেন ও ডাক্তার দেখান।

আরও পড়ুন -  Ind vs WI: টসে জিতে ফিল্ডিং শুরু ভারতের, প্রথম T20 তে একাধিক সিনিয়রকে বিশ্রাম

দেড় বছর আগেই জাকির হোসেনের বাইপাস সার্জারি হয়। হৃদরোগী মন্ত্রী জাকির হোসেন রুটিন চেকআপ এর জন্য আর এন টেগর হাসপাতালে ডাক্তার দেখাতে যান ।সেখানেই এই বিপত্তি ঘটে। শুক্রবার আর এন টেগোর হাসপাতাল এর পক্ষ থেকে ফোন করে মন্ত্রীর কাছে দুঃখ প্রকাশ করা হয়। আপাতভাবে ড্যামেজ কন্ট্রোল হলেও যে লিফটম্যান মন্ত্রী কে লিফট থেকে নামিয়ে দেওয়ার দুঃসাহস দেখিয়ে ছিলেন, তার বিরুদ্ধে আপাতভাবে কোন ব‍্যবস্থা নিচ্ছে না হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।তবে লিফটম‍্যান এর বক্তব্য, তিনি তার কাজ করেছেন ওই লিফট,চিকিৎসক ও রোগীদের জন্য। সেখানে অন্য কাউকে উঠতে দেওয়া নিয়মবিরুদ্ধ ,ফলে মন্ত্রী হলেও তিনি জাকির হোসেন ও তাঁর নিরাপত্তারক্ষীকে নেমে যাওয়ার অনুরোধ করেন ,তবে মন্ত্রীর সঙ্গে তিনি কোন দুর্ব্যবহার করেন নি।যদিও গোটা ঘটনায় আর এন টেগোর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ক্ষমা চাওয়ায় মন্ত্রী রাগও জল হয়ে গেছে।

আরও দেখুন

First published: December 6, 2019, 7:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर