হোম /খবর /কলকাতা /
শিল্পী রশিদ খানের গাড়ি আটকে ঘুষ চাওয়ার অভিযোগ, তদন্তের নির্দেশ লালবাজারের

শিল্পী রশিদ খানের গাড়ি আটকে ঘুষ চাওয়ার অভিযোগ, তদন্তের নির্দেশ লালবাজারের

ইতিমধ্যে পুলিশ অফিসাররা শিল্পী রশিদ খানের বাড়িতে গিয়ে বয়ান রেকর্ড করেছেন।

  • Share this:

#অর্পিতা হাজরা , কলকাতা : শিল্পী রশিদ খানের চালককে হেনস্থা এবং ঘুষ চাওয়ার অভিযোগকে ঘিরে এবার ঘটনায় বিভাগীয় তদন্ত শুরুর নির্দেশ লালবাজারের। সূত্রের খবর, সেদিন কোন কোন অফিসার ডিউটিতে ছিলেন, ঠিক কী ঘটেছিল, তা খতিয়ে দেখা হবে। ইতিমধ্যে পুলিশ অফিসাররা শিল্পী রশিদ খানের বাড়িতে গিয়ে বয়ান রেকর্ড করেছেন। এবার বিভাগীয় তদন্ত শুরু হয়েছে অভিযোগকে ঘিরে।

শিল্পী স্ত্রীয়ের অভিযোগ, মঙ্গলবার গভীর রাতে এক পরিচিত সঙ্গীত শিল্পীকে দমদম বিমানবন্দরে পৌঁছে দিচ্ছিল তাঁদের গাড়ি। সেই সময় বেলেঘাটা ট্রাফিক গার্ডের অধিকারিকরা গাড়িটিকে আটকান। রশিদ খানের স্ত্রীর অভিযোগ, লম্বা লাইন ছিল সেই সময়ে। সেখানে চালকের থেকে টাকা চাইছিল। চালকের কাছে ওত টাকা ছিল না। দিতে অস্বীকার করায় তাঁকে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়। গাড়ি আটক করে প্রগতি ময়দান থানা। এমনকী গাড়ি ছাড়ানোর জন্য শিল্পী রশিদ খান ও স্ত্রীকে থানাতে আসতে বলা হয়।

শিল্পী রশিদ খানের স্ত্রীর দাবি, পুলিশের এই সিস্টেমের উপর ভরসা নেই। তাই তাঁরা অভিযোগ করবেন না। অন্যদিকে, পুলিশের দাবি, রশিদ খানের চালক মত্ত অবস্থায় ছিলেন। হাসপাতালে মেডিক্যাল টেস্টের রিপোর্ট অনুসারে পুলিশ দাবি করেছে, ওই চালক মদ খেয়ে গাড়ি চালাচ্ছিলেন। রশিদ খানের চালকের বিরুদ্ধে ১৮৫ ধারায় কেস হয়। অর্থাৎ মত্ত অবস্থায় গাড়ি চালানোর কেস হয়েছে বলে প্রগতি ময়দান থানায় পুলিশ সূত্রে খবর।

আরও পড়ুন, জামিন পাওয়ার পরেও ফের গ্রেফতার সাকেত! নির্বাচন কমিশনের কাছে যাচ্ছে ক্ষুব্ধ TMC

পুলিশের দাবি, এই গাড়িচালকের বিরুদ্ধে গত মে মাসেও একই কেস হয়েছিল সম্ভবত ভবানীপুর থানায়। তখনও মদ খেয়ে গাড়ি চালানোর অভিযোগ ছিল।

আরও পড়ুন, শিয়ালদহে দুই বাসের রেষারেষি, দুর্ঘটনার কবলে কুণাল ঘোষের গাড়ি

এই ঘটনায় চালক জানান, তিনি মত্ত অবস্থায় ছিলেন না। মেডিক্যাল কোনও টেস্ট হয়নি। হাসপাতালে নিয়ে গিয়ে শুধু টিপ সই দিতে বলে। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ক্ষোভ উগরে দেন শিল্পী রশিদ খানের পরিবারের সদস্যরা। সেই ঘটনায় এবার বিভাগীয় তদন্তের নির্দেশ লালবাজারের।

Published by:Suvam Mukherjee
First published:

Tags: Kolkata Police, Lalbazar