• Home
  • »
  • News
  • »
  • kolkata
  • »
  • KMC Election Result 2021: উপনির্বাচনের তুলনায় ব্যবধান কমল মাত্র ২টি ওয়ার্ডে, ভবানীপুর বিধানসভার সব ওয়ার্ডেই জয়ী তৃণমূল

KMC Election Result 2021: উপনির্বাচনের তুলনায় ব্যবধান কমল মাত্র ২টি ওয়ার্ডে, ভবানীপুর বিধানসভার সব ওয়ার্ডেই জয়ী তৃণমূল

নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব চিত্র

TMC won all wards in Bhabanipur Assembly Constituency: উপনির্বাচনের তুলনায় ভোটের ব্যবধান কমেছে দুটি ওয়ার্ডে। ৭২ ও ৭৭ নম্বর ওয়ার্ডে উপনির্বাচনের তুলনায় কমেছে ভোট ৷

  • Share this:

আবীর ঘোষাল,কলকাতা: কলকাতা পুরভোটের ফলাফল অনুযায়ী মুখ্যমন্ত্রীর বিধানসভার ৮ ওয়ার্ডেই জয় নিশ্চিত করেছে তৃণমূল কংগ্রেস (TMC won all wards in Bhabanipur Assembly Constituency)। তবে উপনির্বাচনের তুলনায় ভোটের ব্যবধান কমেছে দুটি ওয়ার্ডে। ৭২ ও ৭৭ নম্বর ওয়ার্ডে উপনির্বাচনের তুলনায় কমেছে ভোট (KMC Election Result 2021)।

ভবানীপুর উপনির্বাচনের মাধ্যমেই  কলকাতা পুরসভা নির্বাচনের প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছিল। ২০২১-এর বিধানসভা নির্বাচনে ভবানীপুরের বিভিন্ন ওয়ার্ডে যে সংখ্যক প্রাপ্ত ভোট ছিল তা বেড়েছে। কলকাতা পুরসভার ভোটকে বলা হয় মিনি ইন্ডিয়ার ভোট। আর তার মধ্যে ভবানীপুর হল এমন একটি বিধানসভা কেন্দ্র। যার আট ওয়ার্ডে ছড়িয়ে আছে বিভিন্ন ভাষাভাষীর মানুষ। ফলে দেশের মানুষের কাছে ভবানীপুর বিধানসভার আট ওয়ার্ডের ফলাফল নজরে রাখার মতই।

আরও পড়ুন-বিয়ের ৬ মাস পরেই সন্তানের জন্ম! শাশুড়ি বউমাকে ঘরছাড়া করলে জানা গেল আসল রহস্য

একই সঙ্গে এই বিধানসভা কেন্দ্রের মধ্যে রয়েছে তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও তৃণমূলের সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের বাড়ি। ভবানীপুর বিধানসভার কেন্দ্রের মধ্যে থাকা একটি ওয়ার্ড যা মুখ্যমন্ত্রীর নিজের ওয়ার্ড, যেখানে প্রার্থী বদল করা হয়েছে। ভবানীপুর উপনির্বাচনে ৬৩ নম্বর, ওয়ার্ড যেখানে বহুতল ও হিন্দি ভাষী ভোটারের সংখ্যা বেশি সেখানে তৃণমূলের লিড আছে ২২৪৬ ভোটে। ভবানীপুর বিধানসভা ভোটে লিড ছিল তৃণমূলের ৪১৩ ভোটে। পুরভোটে ব্যবধান হয়েছে বেড়ে ৩৭৪৩ ভোট।

ভবানীপুরে নজরকাড়া ওয়ার্ড ৭০। যে ওয়ার্ডকে বলা হয় মিনি গুজরাত।  সেখানে উপনির্বাচনে তৃণমূল এগিয়ে ১৭২৪ ভোটে। যদিও বিধানসভা ভোটে সেখানে তৃণমূল পিছিয়ে ছিল ২০৯২ ভোটে। পুর ভোটে সেখানে জয়ের ব্যবধান বেড়ে হয়েছে ৪০২৮ ভোটে। ৭১ নম্বর ওয়ার্ড সেখানে উপনির্বাচনে এগিয়ে তৃণমূল ৫৯৮৩ ভোটে। বিধানসভা ভোটে সেখানে এগিয়ে ছিল তৃণমূল ১৯৬৫ ভোটে। পুর ভোটে সেখানে এগিয়ে ৮৮৬১ ভোটে। ৭২ নম্বর ওয়ার্ডে এগিয়ে তৃণমূল ৩৪৭৫ ভোটে। বিধানসভা ভোটে এখানে এগিয়ে ছিল তৃণমূল মাত্র ৩৩৯ ভোটে। এখানে ব্যবধান বিধানসভা ভোটের তুলনায় বাড়লেও, উপনির্বাচনে কমেছে।

আরও পড়ুন- কী কাণ্ড ! বয়ফ্রেন্ড তাঁকে চুমু খান না... এই অভিযোগ জানাতে সোজা পুলিশকে ফোন তরুণীর

পুর ভোটে ব্যবধান ১৭৩৫ ভোটে।  ৭৩ নম্বর ওয়ার্ডে তৃণমূল এগিয়ে ৫৮২৮ ভোটে। বিধানসভা ভোটে সেখানে এগিয়ে ছিল ১৮৩১ ভোটে। পুর ভোটে সেখানে ব্যবধান বেড়েছে ৬৪৯৩ ভোটের। ৭৪ নম্বর ওয়ার্ড, যেখানে বহুতলের সংখ্যা প্রচুর। সেখানেও উপনির্বাচনে তৃণমূল এগিয়ে ৪৮১০ ভোটে। যদিও এই ওয়ার্ডে তৃণমূল পিছিয়ে ছিল ৫৩৭ ভোটে। আর পুরভোটে ব্যবধান বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৩৮১ ভোটের। ৭৭ নম্বর ওয়ার্ড যা সংখ্যালঘু ভোট সবচেয়ে বেশি সেখানে তৃণমূল এগিয়ে যায় ২১৬৭৫ ভোটে।

বিধানসভা ভোটে সেখানে লিড ছিল ২১৩৭৯ ভোটে। পুর ভোটে অবশ্য জয়  বিশাল অঙ্কের হলেও ব্যবধান কমে হয়েছে ১৬০৭৭ ভোটে। এই বিধানসভা কেন্দ্রেই প্রাক্তন মেয়র ফিরহাদ হাকিমের ওয়ার্ড ৮২ ছিল। যেখানে তৃণমূল এগিয়ে ১২৫৫৮ ভোটে। বিধানসভা ভোটে তৃণমূল এগিয়ে ছিল ৫২০৯ ভোটে। পুর ভোটে তৃণমূলের ব্যবধান বেড়ে হয়েছে ১৪৯১৬ ভোটের।

Published by:Siddhartha Sarkar
First published: