Home /News /kolkata /
Jyoti basu memorial lecture: জ্য়োতি বসু স্মারক বক্তৃতায় হঠাৎ ইয়েচুরির হাতে এল চিরকূট, শোনালেন মজার গল্প

Jyoti basu memorial lecture: জ্য়োতি বসু স্মারক বক্তৃতায় হঠাৎ ইয়েচুরির হাতে এল চিরকূট, শোনালেন মজার গল্প

Jyoti basu memorial lecture: জ্যোতি বসুর জন্মদিন উপলক্ষে ৮ জুন কলকাতার প্রমোদ দাশগুপ্ত ভবনে বক্তব্য পেশ করতে আসেন সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি।

  • Share this:

#কলকাতা: কখনও তাঁর রাজনীতির কথা কখনও বা তাঁর সঙ্গে নিজের ব্যাক্তিগত সম্পর্ক। জ্যোতি বসু সম্পর্কে বক্তব্য পেশ করছিলেন সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। হলের মধ্যে শ্রোতারাও এক মন দিয়ে শুনছেন জ্যোতিবাবুর কথা। হঠাৎ তাল কাটলো। দর্শক আসন থেকে একজন শ্রোতা হঠাৎই নিচে নেমে এলেন। মঞ্চের কাছে গেলেন। সীতারাম ইয়েচুরিকে কিছু বলতে শুরু করলেন। ইয়েচুরিও নিজের বক্তব্য থামিয়ে সেই শ্রোতার সঙ্গে কথা বলতে শুরু করেছেন। হলের মধ্যেও শুরু হয়েছে গুঞ্জন। কী হলো?  এ বার একটি চিরকূট গুঁজে দিলেন সাধারণ সম্পাদকের হাতে।  তত ক্ষণে প্রেক্ষাগৃহ বসে থাকা দর্শক শ্রোতাদের মধ্যে বিশাল কৌতুহল। কী হচ্ছে ওখানে? কী লেখা আছে চিরকুটে? কেনও বক্তব্য থামিয়ে দিলেন সাধারণ সম্পাদক? মঞ্চের উপরে বসে থাকা নেতারাই বা কিছু বলছেন না কেনও? এ বার সকলের কৌতুহল নিরসন করলেন সীতারাম নিজেই। তিনি বলেন, "বাংলায় বলতে বলছেন। আমি তো আগেই জিজ্ঞেস করেছিলাম কোন ভাষায় বলবো?"

আরও পড়ুন: নতুন সংসদ ভবনের মাথায় ৯৫০০ কেজির অশোক স্তম্ভ, উদ্বোধনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি

জ্যোতি বসুর জন্মদিন উপলক্ষে ৮ জুন কলকাতার প্রমোদ দাশগুপ্ত ভবনে বক্তব্য পেশ করতে আসেন সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি। সীতারাম ছাড়াও সেখানে বক্তা হিসেবে সেখানে উপস্থিত ছিলেন বিমান বসু ও সিপিএমের রাজ্য সম্পাদক মহম্মদ সেলিম। বক্তব্য পেশ করার সময় সীতারাম শ্রোতাদের জিজ্ঞেস করেন কোন ভাষায় তাঁরা শুনতে চান। শ্রোতাদের মধ্যে থেকে বাংলা, হিন্দি ও ইংরেজি এই তিনটে ভাষায় বলার জন্য অনুরোধ আসে। এই সমস্যায় মেটাতে হস্তক্ষেপ করেন বিমান বসু। তিনি জানিয়ে দেন সীতারাম যে ভাষায় স্বচ্ছন্দ সেই ভাষাতেই বলবেন। সীতারাম ইংরেজি হিন্দি মিশিয়েই বলছিলেন। এমন সময় চিরকুট। এর পর সীতারাম জানান এতগুলো ভাষা জানায় এর আগেও তিনি সমস্যায় পড়েছিলেন।

আরও পড়ুন: ৬২০০ কোটি টাকার ঋণখেলাপি মামলার শাস্তি, বিজয় মালিয়ার ৪ মাসের জেল, ২ হাজার জরিমানা!

এমন কী জ্যোতিবাবু নিজে তাঁকে 'ভয়ঙ্কর মানুষ' বলেছিলেন। কেনও? তিনি বলেন, "একবার কোনও একটা কর্মসূচিতে আমি জ্যোতিবাবুর সঙ্গে বাংলায় কথা বলছিলাম, হরকিষান সিং সুরজিতের সঙ্গে পাঞ্জাবিতে কথা বলছিলাম। আর অন্ধ্রপ্রদেশের নেতাদের সঙ্গে আমার মাতৃভাষা তেলগুতে কথা বলছিলাম। এমন দেখে জ্যোতিবাবু বলছিলেছিলেন তুমি খুব ভয়ঙ্কর। তিনজনের সঙ্গে তিন ভাষায় কথা বলছো। তুমি সবার কথা বুঝছো। অথচ বাকিরা একে অন্যের কথা বুঝতে পারছে না।" এই কথা শুনে হাসির রোল ওঠে প্রেক্ষাগৃহে। এর পর তিনি বলেন, "ইংরেজিতে বলতে যে সময় লাগে বাংলায় বলতে গেলে তার চাইতে একটু বেশি সময় লাগে।" যাই হোক ফের বক্তব্য শুরু করলেন সীতারাম। ইংরেজি, হিন্দির সাথে বাংলা যোগ করেই বলেন  এ বার।

UJJAL ROY

Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Jyoti Basu

পরবর্তী খবর