corona virus btn
corona virus btn
Loading

লক ডাউনঃ বিপর্যস্ত আইনজীবীদের ২০০০ টাকা করে দেবে হাইকোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন   

লক ডাউনঃ বিপর্যস্ত আইনজীবীদের ২০০০ টাকা করে দেবে হাইকোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন   

আর্থিকভাবে বেকায়দায় পড়ে যাওয়া আইনজীবিদের পাশে থাকার বার্তা দিল হাইকোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন।

  • Share this:

#কলকাতাঃ করোনা কাঁটায় জেরবার সমস্ত পরিষেবা। আইনি পরিষেবার সঙ্গে যুক্তরাও সমানভাবে ভুক্তভোগী। অতিমারি করোনা ঘরবন্দী করে দিয়েছে কালো কোর্ট পরিহিত উকিলবাবুদেরও। অনেক আইনজীবী প্রস্তুতি পুরোপুরি নিয়ে উঠতে পারেননি দীর্ঘমেয়াদি লক ডাউনের। তাই করোনা লকডাউনে বিপর্যস্ত আইনজীবীদের প্রাথমিকভাবে ২০০০ টাকা করে আর্থিক সাহায্য দেবে হাইকোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন। কলকাতা হাইকোর্টের আইনজীবী সংখা এই মুহূর্তে  প্রায় ১১ হাজারের বেশি। এদের মধ্যে হাইকোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সদস্য সংখ্যা প্রায় ৯৭০০। তার মধ্যে সক্রিয় সদস্য সংখ্যা প্রায় ৬৭০০।

করোনা জুজু গোটা বিশ্বে'র অর্থনীতিতে কাঁপুনি ছড়িয়ে দিতে পারে বলে ভবিষ্যবাণী করছেন অর্থনীতিবিদরা। বিশ্ব বাজারে আর্থিক মন্দার আশঙ্কা প্রকাশ করেছে ইন্টারন্যাশনাল মনিটারি ফান্ড। এমন একটা অবস্থায় রাজ্যের আদালত গুলি বন্ধ। কলকাতা হাইকোর্ট প্রশাসন ভিডিও কনফারেন্সে জরুরি শুনানির ব্যবস্থা করেছে। করোনা গোষ্ঠী সংক্রমণ রুখতে বাড়িতে থেকেই ইমেল করে জরুরি মামলা করার নির্দেশ জারি হয়েছে। কোর্ট ফি আপাতত স্থগিত রাখার সিদ্ধান্ত । লকডাউন সফল করতেই এমন ডামাডোল পরিস্থিতি। সেই সময় আর্থিকভাবে বেকায়দায় পড়ে যাওয়া আইনজীবিদের পাশে থাকার বার্তা দিল হাইকোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশন। ২০০০ টাকা করে আর্থিক সাহায্য দেওয়ার কথা ঘোষণা করা হয়েছে প্রাথমিকভাবে।

কলকাতা হাইকোর্ট বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি, সম্পাদক এবং সহ-সভাপতির ই-মেইল অ্যাকাউন্টে  আবেদন জানানো যাবে। বারে'র সদস্য মধু জানা জানান, রবিবার বিকেল পর্যন্ত ১০০ বেশি আবেদন জমা পড়েছে। বিষয়টা এমন নয় আর্থিকভাবে পিছিয়ে পড়া বলেই তারা সাহায্য চাইছেন। হঠাৎ লকডাউন হওয়ার কারণে তারা পর্যাপ্ত টাকার প্রস্তুতি নিয়ে রাখতে পারেননি। সোমবার কোভিড ১৯ নামে একটি ব্যাংক একাউন্ট খোলা হবে। এই ব্যাংক একাউন্ট থেকে অনলাইনে আবেদনকারীদের আবেদনের সত্যতা যাচাই করে টাকা পাঠানো হবে। প্রাথমিকভাবে হাইকোর্টের বার অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি, সম্পাদকে দেওয়া অর্থে ব্যাংক একাউন্ট শুরু হবে। বারে'র সম্পাদক ধীরাজ ত্রিবেদী জানান, "প্রধানমন্ত্রীর আবেদন মেনে আমরা আইনজীবীদের পাশে থাকার বার্তা দিচ্ছি। একজন আইনজীবী হয়ে আরও পাঁচজন আইনজীবীর পাশে করোনা অসময়ে দাঁড়াতে পারলে নিজেরই ভালো লাগবে।"

ARNAB HAZRA

First published: March 30, 2020, 12:45 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर