অভিনন্দন মিছিলে দিলীপকে 'গো ব্যাক' পোস্টার সংস্কৃত বিশ্ববিদ্যালয়ের সুদেষ্ণার

অভিনন্দন মিছিলে দিলীপকে 'গো ব্যাক' পোস্টার সংস্কৃত বিশ্ববিদ্যালয়ের সুদেষ্ণার

পোস্টার ছিঁড়ে দেওয়ার পাশাপাশি চলে বাকবিতন্ডা। মিছিল শেষ হওয়া অবধি হাজির ছিল সুদেষ্ণা।

  • Share this:

#কলকাতা: উপলক্ষ ছিল বিজেপির অভিনন্দন যাত্রা৷ সেখানেই সিএএ-এনআরসি বিরোধী পোস্টার দিয়ে 'অভিনন্দন' জানানো হল দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষকে৷ গেরুয়া-শিবিরের নেতা-কর্মী-সমর্থকদের থিকথিকে ভিড়ের মধ্যেই, দিলীপকে 'গো ব্যাক' পোস্টার দেখালেন সংস্কৃত বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী সুদেষ্ণা দত্তগুপ্ত৷

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও জাতীয় নাগরিকপঞ্জির সমর্থনে, বৃহস্পতিবার পাটুলি থেকে অভিনন্দন যাত্রা শুরু করেন দিলীপ ঘোষ৷ যদিও মিছিলের অনুমতি দেওয়া হয়নি বলে দাবি পুলিশের৷ ফলে ঘোড়ার গাড়ি চেপে দিলীপ ঘোষের মিছিল এগোতেই এক কিলোমিটার দূরে ব্যারিকেড গড়ে দেয় পুলিশ। আটকে যায় মিছিল। আর এই এক কিলোমিটার পথেই, দিলীপ ঘোষের ঠিক পাশ দিয়ে পোস্টার নিয়ে হেঁটে যান সুদেষ্ণা৷ পোস্টারে কালো কালি দিয়ে লেখা 'দিলীপ ঘোষ গো ব্যাক'৷ এছাড়া এনআরসি এবং সিএএ মানা হবে না বলেও লেখা ছিল পোস্টারে।

সুদেষ্ণাকে দেখেই অবশ্য রে...রে করে ছুটে যান বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা৷ তাঁদের সামনেই সুদেষ্ণার বক্তব্য, 'এই আইন মানা সম্ভব নয়। এতে সাধারণ মানুষের জীবন বিপন্ন হতে বসেছে। অবিলম্বে এই আইন প্রত্যাহার করতে হবে।' যদিও কিছুক্ষণের মধ্যেই পোস্টারটি ছিঁড়ে ফেলেন বিজেপি কর্মীরা৷ সুদেষ্ণাকে ঘিরে বিক্ষোভও দেখান তাঁরা৷ কিন্ত সভা শেষ না হওয়া পর্যন্ত ব্যারিকেডের কাছেই দাঁড়িয়েছিলেন সংস্কৃত বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী।

'ওরা তো এমনই। কারও কথা বা মত পছন্দ না হলে তাঁদের সঙ্গে খারাপ ব্য়বহার করে।' পোস্টার ছেঁড়ার পর এমনই প্রতিক্রিয়া সুদেষ্ণার৷ দিলীপ ঘোষ অবশ্য এদিনও তোপ দেগেছেন যাদবপুর নিয়ে। তার বক্তব্য, ‘যাদবপুর এখন সিপিএমের কবরস্থান হয়ে গিয়েছে৷'

দিলীপ তৃণমূলকে আক্রমণ করলেও, মিছিল কিন্তু এদিন বাঘাযতীন পর্যন্ত এগোতে পারেনি। কিছু বিজেপি সমর্থক ব্যারিকেড ভাঙার চেষ্টা করলেও নেতারা তাঁদের থামিয়ে দেন৷ মিছিল আটকানো সম্পর্কে দিলীপ ঘোষের প্রতিক্রিয়া, ' মিছিল আটকালেও আটকানো যাবে না বিজেপিকে৷

ABIR GHOSHAL

First published: January 30, 2020, 9:13 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर