corona virus btn
corona virus btn
Loading

উচ্চমাধ্যমিকের বায়োলজি পরীক্ষায় কিভাবে পাওয়া যাবে ভাল নম্বর? শেষ মুহূর্তের টিপস

উচ্চমাধ্যমিকের বায়োলজি পরীক্ষায় কিভাবে পাওয়া যাবে ভাল নম্বর? শেষ মুহূর্তের টিপস
  • Share this:
জীবনের দ্বিতীয় বড় পরীক্ষা, উচ্চমাধ্যমিকের আর হাতে গোণা কয়েকটা দিন বাকি ৷ শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি খুব গুরুত্বপূর্ণ ৷ পরীক্ষার্থীদের জন্য News18 Bangla এনেছে কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস ৷ আরও ভাল নম্বর পেতে কী করতে পারেন পড়ুয়ারা সে বিষয়ে জানাচ্ছেন শিক্ষিকারা ৷ উচ্চমাধ্যমিকের বায়োলজি অর্থাৎ জীববিদ্যায় শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি নিয়ে কিছু মূল্যবান তথ্য দিলেন শিক্ষিকা তানিয়া মৈত্র ৷ প্র: এখন সিলেবাস অনেক বদলেছে ৷ নতুন সিলেবাসে জীববিদ্যায় প্রশ্নে কিভাবে নম্বর ভাগ করা থাকে তা যদি পড়ুয়াদের শেষ মুহূর্তে আরেকবার মনে করিয়ে দেন.. উ: নম্বর তোলার জন্য নম্বরের প্যাটার্নটা মাথায় রাখা সবথেকে বেশি দরকার ৷ বায়োলজিতে এখন ৩০ নম্বর থাকে প্র্যাকটিক্যাল পরীক্ষায় ৷ ৩০ নম্বরের মধ্যে ১০ প্রজেক্ট আর ২০ বাকি প্র্যাকটিক্যাল ওয়ার্ক ৷ বাদবাকি ৭০ নম্বর লিখিত ৷ এখন পরীক্ষায় মাল্টিপ্যাল চয়েস কোয়েশ্চেন বা MCQ আসে ১৪ টা ৷ এই MCQ থাকে পার্ট-বি-তে ৷ এছাড়াও থাকে চারটি এক নম্বরের প্রশ্ন ৷ যাতে একটি বাক্যে উত্তর লিখতে হয় ৷ এছাড়া পার্ট-এ-তে ২ নম্বরের প্রশ্ন আসে ৫টা, তিন নম্বরের ৯টা প্রশ্নের উত্তর দিতে হয় এবং ৫ নম্বরের প্রশ্ন আসে তিনটে ৷
প্র: MCQ প্রশ্নগুলিতে তো ফুল মার্কস তোলার ১০০ শতাংশ জায়গা.. উ: আসলে MCQ প্রশ্নগুলিতে মার্কস কাটার জায়গা সবথেকে বেশি ৷ চয়েসগুলো এত কাছাকাছি থাকে ৷ পড়ুয়ারা তাড়াহুড়োয় অনেকসময় ভুল উত্তর বেছে ফেলে ৷ সেক্ষেত্রে টেক্সট বইটা ভাল করে না পড়লে এর কোনও সাজেশন হয় না ৷ এছাড়া পড়ুয়াদের জন্য একটা টিপস, MCQ প্রশ্নের ক্ষেত্রে পাশে দেওয়া বক্সে সঠিক উত্তর দেওয়া ছাড়াও টিক মার্কও দিতে হয় ৷ সেটা খুব খেয়াল করে দেওয়া দরকার ৷ নাহলে পুরো নম্বর পেতে অসুবিধা ৷ প্র: MCQ ও SDQ এর ক্ষেত্রে পড়ুয়াদের জন্য কি টিপস দেবেন? উ: টেক্সট বইটা খুঁটিয়ে পড়া ছাড়া আর কোনও টিপস নেই ৷ তবে প্রশ্নপত্রটাও খুঁটিয়ে পড়ে কী জানতে চাওয়া হয়েছে সেটাও দেখে নিতে হবে৷ কিন্তু পরীক্ষার হলে এই প্রশ্নগুলোর উপর বেশি সময় নষ্ট করা যাবে না ৷ ছোট উত্তর ভাবতে বেশি সময় নয় পড়ুয়ারা ৷ সেক্ষেত্রে পার্ট-এ- প্রশ্ন সমাধানে সময় কম পড়ে যাবে ৷ প্র: এখন এই চুড়ান্ত মুহূর্তে বইটা খুঁটিয়ে পড়া ছাড়া পড়ুয়াদের আর কোন বিষয় খেয়াল রাখতে হবে? উ: সারাবছর ভালভাবে পড়ে পড়ুয়াদের পরীক্ষার হলে ভাল করে লেখাটাও একটা বড় ব্যাপার ওটার উপরই সব নির্ভর করছে ৷ তাই উত্তর দেওয়ার সময় একটা জিনিস খেয়াল রাখতে পারলে ভাল, যে নির্দিষ্ট গ্রুপের উত্তর এদিক-ওদিক না ছড়িয়ে লিখে একজায়গায় লেখা ৷ অর্থাৎ ৫ নম্বরের উত্তর দিতে দিতে মাঝে ৩ নম্বরের প্রশ্নের উত্তর না লিখে একটা সম্পূর্ণ শেষ করে আরেকটাতে গেলে ভাল ৷ প্র: কোন প্রশ্নটা আগে করব কোনটা পরে করব, সেই বাছাইটাও একটা স্ট্র্যাটেজি ৷ পড়ুয়াদের এই নিয়ে কোনও পরামর্শ দেবেন? উ: এটা পরীক্ষার্থীদের নিজেদের ব্যাপার ৷ একেকজন একেকভাবে কোয়েশ্চেন পেপার সলভ করে ৷ তবে আমি আমার ছাত্রছাত্রীদের, ৩ নম্বরের ৯টা প্রশ্নের উত্তর একদম শেষে করতে বলি ৷ সময়ের অভাবে পাঁচ নম্বরের থেকে তিন নম্বর প্রশ্ন লিখতে না পারলে নম্বর কম কাটা যাবে ৷ বড় নম্বরের প্রশ্নের মধ্যেও টুকরো প্রশ্ন থাকে তাই নম্বর তোলাটা একদমই শক্ত নয় ৷ আরেকটা ব্যাপার ১৫ মিনিট প্রশ্নপত্র পড়ার জন্য সময় দেওয়া হয় ৷ তখনই বেছে নিয়ে চিহ্নিত করে নিতে হবে কোনটা লিখব ৷ টুকরো টুকরো প্রশ্ন বাছলে নম্বর তুলতে সুবিধা হয় ৷ প্র: বায়োলজি মানেই কিছু না কিছু আঁকা অর্থাৎ ডায়াগ্রাম থাকে ৷ সেটা নিয়ে কোনও টিপস? উ: এখন বায়োলজিতে আঁকার উপর অত জোর দেওয়ার দরকার নেই ৷ সঠিক হেডিং দিয়ে লেবেলিং করলে পার্টে পার্টে নম্বর থাকে সেগুলো পাওয়া যায় ৷ প্র: সঠিক উত্তর ছাড়াও কিভাবে পড়ুয়ারা উত্তরপত্র আরও ভাল করবে? উ: হেডিং ও পয়েন্ট করে উত্তর লিখতে পারলে ভাল ৷ গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টগুলো, প্রধান পয়েন্টগুলো আন্ডারলাইন করে দিতে পারলে ভাল ৷ তবে হাইলাইট পেন দিয়ে হাইলাইট করার দরকার নেই ৷ যে পেন দিয়ে লিখবে সেটাই আন্ডারলাইন করলেই হবে ৷ হাতে সময় থাকলে অন্য রঙ মানে কালো বা নীল দিয়ে আন্ডারলাইন করা যেতে পারে ৷
Published by: Elina Datta
First published: March 1, 2020, 9:17 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर