হোম /খবর /কলকাতা /
অভিষেক-শুভেন্দুর মহারণ দুই পরিবারের লড়াই, ফের বিস্ফোরক দিলীপ

Dilip Ghosh: অভিষেক-শুভেন্দুর মহারণ দুই পরিবারের লড়াই, ফের বিস্ফোরক দিলীপ

শুভেন্দু- অভিষেকের সভা নিয়ে বিস্ফোরক দিলীপ৷

শুভেন্দু- অভিষেকের সভা নিয়ে বিস্ফোরক দিলীপ৷

শুভেন্দুর এই সভাকে কোনও গুরুত্ব না দিয়ে রাজনৈতিক ভাবে উপেক্ষা করার কৌশল নিয়েছে তৃণমূল।

  • Share this:

#কলকাতা: শনিবার রাজ্যে অভিষেক - শুভেন্দু মহারণ। কাঁথিতে শুভেন্দু গড়ে অভিষেক বন্দোপাধ্যায়ের সভা। আর, প্রায় একই সময়ে  ডায়মন্ড হারবারে অভিষেকের সংসদীয় কেন্দ্রে সভা করতে চলেছেন শুভেন্দু অধিকারী। সেই  মহারণের আগে শুভেন্দু- অভিষেকের সভাকে কার্যত ব্যক্তিগত ও পারিবারিক লড়াই বলে মন্তব্য করলেন দিলীপ ঘোষ।

শুভেন্দু - অভিষেকর সভা নিয়ে যখন রাজনীতির পারদ ক্রমশ চড়ছে, তখন মিডিয়াকে 'ঢাল করে' এই হেভি ওয়েট জনসভাকে 'হাই ভোল্টেজ ড্রামা' বলে কটাক্ষ  করলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ সভাপতি দিলীপ ঘোষ।  দিলীপ বলেন, 'মিডিয়ার প্রচার দেখে মনে হচ্ছে, রাজ্যে দুটো পরিবার আর দুটো মানুষের লড়াই ছাড়া আর কিছু নেই। রাজনীতি রাজ্যের ১০ কোটি মানুষকে নিয়ে। রাজনীতি সেভাবেই হওয়া উচিত। রাজনীতিকে ড্রামায় পরিণত করার কোনও মানে হয় না।'

 আরও পড়ুন: অভিষেকের সভার আগেই ভগবানপুরে বিস্ফোরণে উড়ল তৃণমূল নেতার বাড়ি, মৃত ৩

আজ কাঁথিতে শুভেন্দু গড়ে সভা করার কথা আগেই ঘোষণা করেছিলেন অভিষেক। অভিষেকের সভা আটকাতে আদলতে যান শুভেন্দু। কিন্তু, আদলতে সভা আটকানো যাবে না, এটা বুঝে ওই দিনেই ডায়মন্ডহারবারে পাল্টা সভা করার সিদ্ধান্ত নেন শুভেন্দু।

এমনিতেই, শুভেন্দুর এই সভাকে কোনও গুরুত্ব না দিয়ে রাজনৈতিক ভাবে উপেক্ষা করার কৌশল নিয়েছে তৃণমূল। তৃণমূলের মুখপাত্র কূণাল ঘোষের মতে, শনিবার কোওন দুটো সভা নয়। একটিই সভা। সেটা কাঁথিতে অভিষেক বন্দোপাধ্যায়ের সভা। সেই সভাকে নিয়েই মানুষের মধ্যে উন্মাদনা তৈরি হয়েছে। শুভেন্দুর সভাকে কটাক্ষ করে কূণাল বলেন, 'প্রথমে সভা আটকাতে গিয়ে না পেরে এখন ছুটে বেড়াচ্ছে।'

 আরও পড়ুন: শুভেন্দু অধিকারীর সভাস্থলে 'তাণ্ডব' চালানোর অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

পর্যবেক্ষকদের মতে, তৃণমূলের 'উপেক্ষা'র পর, শুভেন্দুর এই সভা নিয়ে কার্যত কাটা ঘায়ে নূনের ছিটে দিলেন দিলীপ। শনিবার, ডায়মন্ড হারবারে বিরোধী দল নেতার সভা আদৌ দলের সভা কি না তা নিয়ে ঘুরপথে প্রশ্ন তুলে দিলেন দিলীপ। কারণ, দিলীপের মনে হয়েছে,  এটা দুই ব্যক্তি ও পরিবারের লড়াই। যদিও, তাঁর এই  মনে হওয়াকে কৌশলে দিলীপ প্রচার মাধ্যমের ঘাড়েই চাপাতে চেয়েছেন।

 বিজেপির অন্দরে দিলীপ- শুভেন্দুকে নিয়ে টানাপোড়েন কাটেনি।  দলের এক রাজ্য নেতার মতে,দক্ষিণে শুভেন্দু বনাম অভিষেকের লড়াই, উত্তরে নিশীথ বনাম উদয়ন। এতে রাজনৈতিক ভাবে বিজেপির কী লাভ? লোকে বলছে, এতো তৃণমূল বনাম তৃণমূলের লড়াই। এই লড়াইয়ে বিজেপি কোথায়? তার প্রতিফলন পড়ছে দলে।

তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে, শনিবার  এই মহারণের দিনে বিজেপির রাজ্য সভাপতি থাকবেন মালদার বৈষ্ণবনগরের জনসভায়। বৃহস্পতিবার বিকেলে নবাগত রাজ্যপালের কাছে রাজ্যে বিজেপির উপরে তৃণমূলের সন্ত্রাসের বিষয়ে অভিযোগ করতে রাজভবনে একাই গিয়েছিলেন সুকান্ত।

রাজ্য বিজেপিতে সুকান্ত - শুভেন্দুর রসায়ন যখন চর্চায়,তখন দিলীপের এই মন্তব্য রাজ্য বিজেপির গোষ্ঠী কোন্দলে নতুন মাত্রা দিল বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Abhishek Banerjee, Dilip Ghosh, Suvendu Adhikari