Home /News /kolkata /
Eye Health: ডায়েবিটিসে হারাতে পারে দৃষ্টিশক্তি, হতে পারে চরম ক্ষতি, সতর্ক হওয়ার পরামর্শ চিকিৎসকদের

Eye Health: ডায়েবিটিসে হারাতে পারে দৃষ্টিশক্তি, হতে পারে চরম ক্ষতি, সতর্ক হওয়ার পরামর্শ চিকিৎসকদের

নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব চিত্র

Eye Health: দীর্ঘ দিন ধরে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত থাকলে রেটিনা নিয়ে সতর্ক থাকার কথা জানাচ্ছেন ডক্টর আগরওয়াল চক্ষু হাসপাতালের চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডক্টর মধুর এ হিঙ্গরানি।

  • Share this:

#কলকাতা: হঠাৎ করেই অজান্তে ঝাপসা হয়ে যেতে পারে সামনের সব কিছু। দীর্ঘদিন ধরে ডায়াবেটিস বা মধুমেহ থাকলে, তা নিঃশব্দে আঘাত হানে চোখে।  ডায়াবেটিস রেটিনোপ্যাথি এমনই একটা ব্যাধি। আগামী ৩১ জুলাই পর্যন্ত সেই কারণে কলকাতার ডক্টর আগরওয়াল আই হসপিটালে উদ্বোধনে সদ্য তৈরি হওয়া রেটিনা কেয়ার সেন্টারে ৫০ ঊর্ধ্বে সবার জন্য বিনামূল্যে চক্ষু পরীক্ষা শিবির এবং রেটিনা স্ক্রিনিং প্যাকেজ-এর ক্ষেত্রে ৫০ শতাংশ ছাড় দিচ্ছে। রেটিনা চিকিৎসার ক্ষেত্রে এই হাসপাতালের নাম দেশ জোড়া।

আরও পড়ুন: বিরাট খবর, স্কুল শিক্ষকদের আর প্রাইভেট টিউশন নয়-বন্ধ কোচিংয়ে পড়ানোও! নির্দেশ রাজ্যের

গত ২৪ জুন কসবা অ্যাক্রোপলিস মলের পাশে এই রেটিনা কেয়ার সেন্টারের উদ্বোধন করেন সঙ্গীতশিল্পী ঊষা উথুপ। তিনি জানান, "এই হাসপাতাল যে ভাবে বিশ্বমানের অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি দিয়ে চোখের চিকিৎসা করছে, তা সত্যিই অতুলনীয়। এ ছাড়াও এই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ যেভাবে চক্ষুদান নিয়ে প্রত্যেক রোগীকে সচেতনতার বার্তা দিচ্ছে, তাও অত্যন্ত ব্যতিক্রমী।"

আরও পড়ুন : পয়লা জুলাই কি ব্যাঙ্ক বন্ধ? জুলাই মাসে ১৪ দিন Bank Holiday! দেখুন তালিকা

দীর্ঘ দিন ধরে ডায়াবেটিসে আক্রান্ত থাকলে রেটিনা নিয়ে সতর্ক থাকার কথা জানাচ্ছেন ডক্টর আগরওয়াল চক্ষু হাসপাতালের চক্ষু বিশেষজ্ঞ ডক্টর মধুর এ হিঙ্গরানি। তিনি আরও জানাচ্ছেন," ভারতবর্ষে ৭৭ মিলিয়ন মানুষ ডায়াবেটিসে আক্রান্ত, যা বিশ্বের মধ্যে দ্বিতীয়। চোখের পিছনের দিকে যে রক্তনালী রয়েছে, তা ক্ষতিগ্রস্ত হলেই ফ্লুইড বেরিয়ে যায়, একেই বলা হয় ডায়াবেটিক রেটিনোপ্যাথি। এই ফ্লুইড বেরিয়ে যাওয়ায় চোখের ভিতরে রক্তক্ষরণ শুরু হয়, এর ফলে চোখের দৃষ্টিশক্তি মারাত্মক ভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং দ্রুত চোখ নষ্ট হয়ে যায়। চোখে হঠাৎ করে যদি সামনের জিনিস ঢেউ খেলানো দেখতে পাওয়া যায়, দৃষ্টির পরিবর্তন, ঝাপসা দৃষ্টি, রঙ চিনতে অসুবিধা হয়, কোনও রকম দেরি না করে দ্রুত চক্ষু চিকিৎসকের দ্বারস্থ হওয়া উচিত।"

রেটিনোপ্যাথির মূলত তিনটি লক্ষণ হয়। ঝাপসা,ঘোলাটে  দৃষ্টি, চোখের সামনে ছোট পোকার মতন কিছু ঘুরে বেড়ানো মনে হওয়া, হঠাৎ করে আলোর ঝলকানি দেখা, হঠাৎ করে দৃষ্টিশক্তি চলে যাওয়া।  ডায়াবেটিক রেটিনোপ্যথি , রেটিনাল টিয়ার রেটিনাল ডিটাচমেন্ট ম্যাকিউলার হোল, ম্যাকুলার ডি জেনারেশন, রেটিনাইটিস পিগমেন্তসা চোখের নানা ধরনের জটিল রোগের চিকিৎসা এখানে বাকি বিভিন্ন কর্পোরেট হাসপাতালের নিরিখে অনেক কম মূল্যে অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতি এবং চিকিৎসকের দ্বারা করা হয় বলে জানান এই হাসপাতালের জোনাল হেড ডক্টর কলা দেবী সতীশ।

Abhijit Chanda
Published by:Uddalak B
First published:

Tags: Eye Health

পরবর্তী খবর