Home /News /kolkata /
Businessman murdered in Kolkata: কোটি টাকা মুক্তিপণ চেয়ে বাড়িতে ফোন, এলগিন রোডের গেস্ট হাউসে মিলল স্বর্ণ ব্যবসায়ীর দেহ

Businessman murdered in Kolkata: কোটি টাকা মুক্তিপণ চেয়ে বাড়িতে ফোন, এলগিন রোডের গেস্ট হাউসে মিলল স্বর্ণ ব্যবসায়ীর দেহ

এলগিন রোডের এই গেস্ট হাউস থেকেই উদ্ধার হয় ব্যবসায়ীর দেহ৷

এলগিন রোডের এই গেস্ট হাউস থেকেই উদ্ধার হয় ব্যবসায়ীর দেহ৷

ওই ব্যবসায়ীর বাড়িতে মুক্তিপণ চেয়ে ফোন গেলে ভবানীপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন পরিবারের সদস্যরা৷ এর পরেই নিখোঁজ ব্যবসায়ীর খোঁজে নামে পুলিশ ()৷

  • Share this:

#কলকাতা: এলগিন রোডের একটি গেস্ট হাউস থেকে এক স্বর্ণব্যবসায়ীর মৃতদেহ উদ্ধার (Murder) হওয়াকে ঘিরে চাঞ্চল্য৷ মৃতের নাম এস এল বেদ৷ তিনি দক্ষিণ কলকাতারই লি রোডের বাসিন্দা৷

গতকাল সোমবার বিকেলে নিজের বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন প্রবীণ ওই ব্যবসায়ী (Businessman murdered in Kolkata)৷ তার পর থেকেই নিখোঁজ ছিলেন তিনি৷ ওই ব্যবসায়ীকে অপহরণ করা হয়েছে বলে দাবি করে প্রায় কোটি টাকা মুক্তিপণ চেয়ে বাড়িতে ফোনও যায় বলে দাবি করেছেন নিহত ব্যবসায়ীর পরিবারের সদস্যরা৷ পুলিশের প্রাথমিক অনুমান, গলায় ফাঁস লাগিয়েই ওই ব্যবসায়ীকে হত্যা করা হয়েছে৷ ঘটনার তদন্তে নেমেছে লালবাজারের হোমিসাইড শাখা৷

আরও পড়ুন: তাঁর নাম করে তোলাবাজির অভিযোগ PA-র বিরুদ্ধে! যা করলেন চণ্ডীপুরের বিধায়ক সোহম চক্রবর্তী

জানা গিয়েছে, সোমবার ২০ নম্বর লি রোডের বাড়ি থেকে পান কিনতে বেরিয়েছিলেন ওই ব্যবসায়ী৷ পরে ওই ব্যবসায়ীর বাড়িতে মুক্তিপণ চেয়ে ফোন গেলে ভবানীপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন পরিবারের সদস্যরা৷ এর পরেই নিখোঁজ ব্যবসায়ীর খোঁজে নামে পুলিশ৷

ওই ব্যবসায়ীর মোবাইল ফোনের টাওয়ার লোকেশন ধরেই এ দিন সকালে এলগিন রোডের গেস্ট হাউসে পৌঁছয় পুলিশ৷ গেস্ট হাউসের চারতলার একটি ঘর থেকে ব্যবসায়ীর দেহ উদ্ধার হয়৷ তাঁর গলায় ফোনের তার দিয়ে ফাঁস লাগানো ছিল৷ প্রাথমিক ভাবে পুলিশের অনুমান, শ্বাসরোধ করেই ব্যবসায়ীকে খুন করা হয়েছে৷

আরও পড়ুন: কলেজ ছাত্রীকে খারাপ অঙ্গভঙ্গী, অভিযুক্ত যুবক

হোটেল কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, গেস্ট হাউসের ওই ঘরটি রবিবার থেকে ভাড়া নিয়ে থাকছিলেন এক ব্যক্তি৷ সোমবার বিকেলের দিকে তিনি এস এল বেদ নামে ওই ব্যবসায়ীকে নিয়ে গেস্ট হাউসে আসেন তিনি৷ ওই স্বর্ণ ব্যবসায়ীকে নিজের কাকা বলে পরিচয় দেয় অভিযুক্ত৷ এর পর ওই ব্যক্তি বাইরে যাওয়ার অছিলায় গেস্ট হাউস ছেড়ে বেরিয়ে যায়৷ এ দিন সকালে পুলিশ গেস্ট হাউসে পৌঁছয় চার তলার কুড়ি নম্বর ঘরের দরজা ভেঙে ওই ব্যবসায়ীর দেহ উদ্ধার করে৷

পলাতক ওই সন্দেহভাজনকেই এখন চিহ্নিত করার চেষ্টা করছে পুলিশ৷ শুধু মুক্তিপণের জন্য খুন, নাকি এই হত্যাকাণ্ডের পিছনে ব্যবসায়িক বা ব্যক্তিগত কোনও শত্রুতা রয়েছে, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷ গেস্ট হাউস এবং তার চারপাশের সিসিটিভি ফুটেজও খতিয়ে দেখে অভিযুক্তকে চিহ্নিত করার চেষ্টা করছে পুলিশ৷

পাশাপাশি খুন করার পরেই ঘটনার মোড় অন্য দিকে ঘোরাতে মুক্তিপণ চাওয়া হয়েছিল কি না, তা খতিয়ে দেখছে পুলিশ৷ কারণ সোমবার বিকেলে ওই ব্যবসায়ীকে গেস্ট হাউসে নিয়ে যাওয়া হয়৷ এর কিছুক্ষণ পর গেস্ট হাউস ছেড়ে বেরিয়ে যায় সন্দেহভাজন ব্যক্তি৷ আর মুক্তিপণ চেয়ে ব্যবসায়ীর বাড়িতে ফোন গিয়েছিল সোমবার রাতে৷ ফলে সবদিকই খতিয়ে দেখছেন তদন্তকারীরা৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Kidnap, Kolkata Police, Murder

পরবর্তী খবর