পাঠ্যক্রমে ঢুকছে কম্পিউটার, প্রাথমিকভাবে পঞ্চম শ্রেণীতে পড়ানোর সিদ্ধান্ত রাজ্যের

পাঠ্যক্রমে ঢুকছে কম্পিউটার, প্রাথমিকভাবে পঞ্চম শ্রেণীতে পড়ানোর সিদ্ধান্ত রাজ্যের
পঞ্চম শ্রেণিতেই কম্পিউটার পড়ানোর সিদ্ধান্ত রাজ্যের

আগামী জানুয়ারি মাস থেকেই রাজ্যের ১২০০০ স্কুলে পড়ানো হবে পড়ুয়াদের কম্পিউটার।

  • Share this:

SOMRAJ BANDOPADHYAY #কলকাতা: অবশেষে কম্পিউটার ফিরছে রাজ্যের স্কুল শিক্ষায়। প্রাথমিকভাবে পঞ্চম শ্রেণীতে কম্পিউটার পড়ানোর সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য স্কুল শিক্ষা দপ্তর। আগামী জানুয়ারি মাস থেকেই রাজ্যের ১২০০০ স্কুলে পড়ানো হবে পড়ুয়াদের কম্পিউটার। স্কুল শিক্ষা দপ্তর সূত্রে খবর, পড়ুয়াদের জন্য কম্পিউটার বাধ্যতামূলক করা হচ্ছে। তবে আপাতত এর জন্য নতুন কোনও শিক্ষক নিয়োগ করার পথে হাঁটছে না স্কুল শিক্ষা দপ্তর। এক বছর পাইলট প্রজেক্ট হিসাবে তা সফল হলে ধীরে ধীরে বাকি স্কুলগুলিতে কম্পিউটার পড়ানো হবে বলেই স্কুল শিক্ষা দপ্তর সূত্রে খবর। কিছুদিন আগেই রাজ্যের তরফে ঘোষণা করা হয়েছিল কম্পিউটার শিক্ষা বাধ্যতামূলক ভাবে পঞ্চম শ্রেণী থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত প্রত্যেকটি স্কুলে পড়ানো হবে। কিন্তু এবার সেই সিদ্ধান্তেতে সামান্য বদল করল রাজ্য স্কুল শিক্ষা দপ্তর। স্কুল শিক্ষা দপ্তর সূত্রে খবর, প্রাথমিকভাবে পঞ্চম শ্রেণীতেই পাইলট প্রজেক্ট হিসাবে পড়িয়ে দেখতে চায় স্কুল শিক্ষা দপ্তর। তা সফল হলেই পরবর্তীকালে ষষ্ঠ থেকে অষ্টম শ্রেণি পর্যন্ত পড়ানো হবে পড়ুয়াদের। প্রাথমিকভাবে পাইলট প্রজেক্ট এর মধ্যে রাজ্যের ৬৬ হাজার স্কুলের মধ্যে ১২০০০ স্কুলকে দেখা হয়েছে। এই স্কুলগুলিতে আইসিটি প্রজেক্টের অধীনে কম্পিউটার পাঠানো হয়েছে। সেই স্কুল গুলিতেই কম্পিউটার পড়ানো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। ইতিমধ্যেই রাজ্যের তরফে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ এবং মধ্যশিক্ষা পর্ষদকে এই বিষয় সম্পর্কে জানানো হয়েছে ও প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলা হয়েছে।

ইতিমধ্যেই প্রস্তুত হয়ে গিয়েছে পড়ুয়াদের জন্য নয়া কম্পিউটার ও বই। মূলত কম্পিউটার সম্পর্কে প্রাথমিক ধারণা, কম্পিউটারের ভাষা কী তা বোঝানো, এবং কীভাবে কম্পিউটার চালাতে হয় তার সম্পর্কে একটি ধারনা দেওয়া হয়েছে বইতে। এরই সঙ্গে ইন্টারনেট কী সে সম্পর্কেও সাময়িক ধারণা দেওয়া হয়েছে বইতে। এ প্রসঙ্গে সিলেবাস কমিটির চেয়ারম্যান অভীক মজুমদার জানিয়েছেন "ইতিমধ্যেই বই প্রস্তুত হয়ে গেছে। বইটি তৈরির ক্ষেত্রে যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সম্পর্কে অভিজ্ঞ অধ্যাপকদের মতামত ও নেওয়া হয়েছে। পড়ুয়ারা আনন্দের সঙ্গে কম্পিউটার বইটি পড়বেন। থিওরিটিক্যাল বিষয়়কে প্রাধান্য দেওয়া হলেও হাতে কলমে শেখার জায়গাও রাখা হয়েছে।" যদিও রাজ্য সিদ্ধান্ত নিয়েছিল মাধ্যমিক স্তরে কম্পিউটার বাধ্যতামূলক ভাবে পড়ানোর জন্য। যাতে অন্যান্য বোর্ডের পড়ুয়াদের সঙ্গে একটা জায়গায় প্রতিযোগিতা দিতে পারে। বর্তমানে মাধ্যমিক স্তরে কম্পিউটার অ্যাপ্লিকেশন ঐচ্ছিক বিষয় হিসেবেই নেওয়া যায়। স্কুল শিক্ষা দপ্ত্তর সূত্রে খবর রাজ্যের অনেক স্কুল এই প্রয়োজনীয় পরিকাঠামো এবং ইন্টারনেট সংযোগ না থাকায় সব স্কুলে এই মুহূর্তে কম্পিউটার পড়ানো যাচ্ছে না।

First published: December 21, 2019, 4:40 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर