Narada Case Update: ভিন রাজ্যে চলে যাবে নারদ মামলা? নিজাম প্যালেস-পর্বই 'অস্ত্র' সিবিআই'য়ের

হাইকোর্টে আজ শুনানি

Narada Case Update: আদালতে সিবিআই দাবি করেছেন, দলের নেতাদের গ্রেফতারের পর স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী পর্যন্ত নিজাম প্যালেসে চলে এসেছিলেন। রাজ্যজুড়ে বিশৃঙ্খলার পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছিল নেতাদের গ্রেফাতারির পরই।

  • Share this:
    কলকাতা: নারদ মামলা (Narada Case) গত শুক্রবারই নাটকীয় মোড় নিয়েছিল। চার অভিযুক্তের শর্তসাপেক্ষে অন্তর্বর্তী জামিন মঞ্জুর করেছিল হাইকোর্টের পাঁচ বিচারপতির বৃহত্তর বেঞ্চ। ২ লাখ টাকার ব্যক্তিগত বণ্ডে জামিন পেয়েছেন ফিরহাদ হাকিম (Firhad Hakim), শোভন চট্টোপাধ্যায় (Sovan Chatterjee), মদন মিত্র (Madan Mitra) এবং সুব্রত মুখোপাধ্যায় (Subrata Mukherjee)। একইসঙ্গে আদালত নির্দেশ দিয়েছে, নারদ মামলা সহ পুরনো কোনও মামলা নিয়ে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে সাক্ষাৎকার দিতে পারবেন না এই চার অভিযুক্ত। কোনও তথ্য প্রমাণও বিকৃত করা যাবে না বলে সতর্ক করে দিয়েছে আদালত। আর এরই মাঝে চর্চা চলছে, নারদ মামলা কি ভিনরাজ্যে সরে যাচ্ছে? সেই মামলারই শুনানি রয়েছে আজ হাইকোর্টে। হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চেই নারদ মামলা স্থানান্তর নিয়ে শুনানি হবে। ইতিমধ্যেই আদালতে সিবিআই দাবি করেছেন, দলের নেতাদের গ্রেফতারের পর স্বয়ং মুখ্যমন্ত্রী পর্যন্ত নিজাম প্যালেসে চলে এসেছিলেন। রাজ্যজুড়ে বিশৃঙ্খলার পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছিল নেতাদের গ্রেফাতারির পরই। এই কারণ দেখিয়ে এই রাজ্যে তদন্ত চালানো সম্ভব না দাবি করে মামলা সরানোর জন্য আবেদন করেছিল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ অবশ্য সেই মামলা খারিজ করে দিয়েছিল। কিন্তু এরপর সিবিআই হাইকোর্টের বৃহত্তর বেঞ্চের কাছেও সেই আবেদন করে। সেই মামলারই শুনানি হবে আজ। প্রসঙ্গত, সিবিআইয়ের হয়ে সওয়াল করবেন সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা। অভিযুক্তদের হয়ে লড়ছেন কংগ্রেস সাংসদ তথা আইনজীবী অভিষেক মনু সিংভি। এর আগে ফিরহাদ হাকিমদের জামিনের বিরোধিতা করতে গিয়েও তুষার মেহেতা বারবার মামলা সরানোর 'প্রয়োজনীয়তাও' তুলে ধরেছিলেন। মুখ্যমন্ত্রী ও অন্যান্য নেতাদের নিজাম প্যালেস যাওয়ার প্রসঙ্গটিকেও বেনজির বলে অভিযোগ করেছিলেন তিনি। গত ২২ মে নারদ মামলায় সিবিআই আধিকারিকরা চার হেভিওয়েট নেতা-মন্ত্রীকে গ্রেফতার করে নিজাম প্যালেসে নিয়ে যাওয়ার পরই তাঁদের মুক্তি দেওয়ার দাবি তুলে করোনা বিধি ভেঙেই নিজাম প্যালেসের সামনে জড়ো হন অগণিত তৃণমূল কর্মী-সমর্থকরা। সেখানে কেন্দ্রীয় বাহিনীর সঙ্গে বিতণ্ডাতেও জড়িয়ে পড়ে তাঁরা। শুধু তাই নয়, মুখ্যমন্ত্রী তথা তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় নিজে সিবিআই দফতরে গিয়ে প্রায় ৬ ঘণ্টা ছিলেন। সেই বিষয়গুলি আজ ফের তুলে ধরে মামলা ভিনরাজ্যে সরানোর দাবি জানাবে সিবিআই।
    Published by:Suman Biswas
    First published: