হোম /খবর /কলকাতা /
ছাত্র ইউনিয়ন নির্বাচনের দাবিতে রাতভর অধ্যক্ষকে ঘেরাও মেডিক্যাল কলেজে 

ছাত্র ইউনিয়ন নির্বাচনের দাবিতে রাতভর অধ্যক্ষকে ঘেরাও মেডিক্যাল কলেজে 

সোমবার বিকেল থেকে অধ্যক্ষের ঘরের সামনে অবস্থানে বসেছেন মেডিক্যাল পড়ুয়ারা

সোমবার বিকেল থেকে অধ্যক্ষের ঘরের সামনে অবস্থানে বসেছেন মেডিক্যাল পড়ুয়ারা

Calcutta Medical College and Hospital: কর্তৃপক্ষ ২২ ডিসেম্বর ছাত্র ইউনিয়ন নির্বাচন স্থগিত রেখেছে। কিন্তু কেন? তার কোনও উত্তর দেওয়া হয়নি

  • Share this:

কলকাতা : ফের রাতভর ঘেরাও কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের অধ্যক্ষ। ছাত্র ইউনিয়নের নির্বাচনের দাবিতে সোমবার বেলা ৩টে থেকে শুরু হওয়া ঘেরাও অবস্থান চলল রাতেও। কার্যত রাতভর পড়ুয়াদের অবস্থান ঘেরাও কর্মসূচির জেরে অফিসেই রাত কাটালেন অধ্যক্ষ-সহ অন্যান্য বিভাগীয় প্রধান। ২২ ডিসেম্বর ছাত্র ইউনিয়নের নির্বাচন, এই মর্মে ইতিমধ্যে কলকাতা মেডিক্যাল কলেজের ভিতরে পড়েছে পোস্টার। কিন্তু হঠাৎ পড়ুয়ারা জানতে পারেন ওই দিন নির্বাচন স্থগিত রাখা হয়েছে। তাঁদের দাবি, কর্তৃপক্ষ ২২ ডিসেম্বর ছাত্র ইউনিয়ন নির্বাচন স্থগিত রেখেছে। কিন্তু কেন? তার কোনও উত্তর দেওয়া হয়নি।

তাই নির্ধারিত দিনেই ছাত্র ইউনিয়ন নির্বাচনের দাবিতে সোমবার বিকেল থেকে অধ্যক্ষের ঘরের সামনে অবস্থানে বসেছেন মেডিক্যাল পড়ুয়ারা। তাদের অভিযোগ, উচ্চপদস্থ কারও নির্দেশে এই নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। কার নির্দেশে করা হল? কেন করা হল? অধ্যক্ষ বা কর্তৃপক্ষ এ বিষয়ে পড়ুয়াদের কোনও বার্তা দেয়নি।তাই ২২ ডিসেম্বর ছাত্র ইউনিয়ন নির্বাচনের দাবিতে অবস্থান শুরু করেছেন তারা। তাদের বক্তব্য, যতক্ষণ তাদের দাবি নিয়ে আলোচনা না হচ্ছে এবং দাবি মেনে নির্বাচন করা না হচ্ছে এই অবস্থান তাঁরা চালিয়ে যাবেন। উল্লেখ্য, এই একই দাবি নিয়ে গত অক্টোবর মাসেও অধ্যক্ষকে ঘেরাও করে রেখেছিলেন পড়ুয়ারা। প্রায় ৫০ ঘণ্টার বেশি সময় ধরে ওই সময় এই অবস্থান চালিয়েছিলেন তারা। কর্তৃপক্ষের আশ্বাসে উঠেছিল অবস্থান।

আরও পড়ুন :  বিধ্বংসী আগুনে ভস্মীভূত নিউটাউনের ২০ টিরও বেশি দোকান, সর্বস্বান্ত ব্যবসায়ীরা

কিন্তু ফের একই অবস্থা হওয়ায় ঘেরাও করতে তারা বাধ্য হয়েছেন বলে দাবি পড়ুয়াদের। তাদের অভিযোগ অবস্থান চলাকালীন সোমবার রাতে বাইরে থেকে কিছু যুবক এসে পড়ুয়াদের অবস্থান তুলে নিতে বলে হুমকি দিয়েছে। অবস্থান তোলা না হলে পরে তাদের দেখে নেওয়া হবে হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ অবস্থানকারীদের। অভিযোগকারীদের বক্তব্য, শাসকদলের ছাত্র সংগঠন পরাজিত হবে বলেই নির্বাচন হতে দেওয়া হচ্ছে না। যদিও রোগী কল্যাণ সমিতির সদস্য তথা স্থানীয় কাউন্সিলর বিশ্বরূপ দে জানিয়েছেন, নির্বাচন কবে হবে তা স্থির করে স্বাস্থ্য বন। রাতে বউবাজার থানার তরফে অবস্থান তুলে নেওয়রোর জন্য আর্জি জানানো হলেও কোনও লাভ হয়নি।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published:

Tags: Calcutta Medical college