Home /News /kolkata /
Bangla News : পরিবেশ বাঁচাতে উদ্যোগে কলকাতা পুরসভা! গরফার পরে বেহালার পুকুরে এবার জঞ্জাল সরিয়ে স্বচ্ছ জল

Bangla News : পরিবেশ বাঁচাতে উদ্যোগে কলকাতা পুরসভা! গরফার পরে বেহালার পুকুরে এবার জঞ্জাল সরিয়ে স্বচ্ছ জল

Bangla News : জঞ্জাল আর আবর্জনার স্তুপ সরিয়ে পুকুরে টলটলে জল আনতে সংস্কার শুরু পুরসভার।

  • Share this:

#কলকাতা: পরিবেশ বাঁচাতে উদ্যোগে কলকাতা পুরসভা। ১০৬ নম্বর ওয়ার্ডের গরফার ৭ বিঘার পুকুরের পর এবার বেহালার এক বিঘার পুকুর। জঞ্জাল আর আবর্জনার স্তুপ সরিয়ে পুকুরে টলটলে জল আনতে সংস্কার শুরু পুরসভার।

কলকাতা পুরসভা একদিকে যেমন পুকুর সংস্কার করে পরিবেশ বাঁচাতে উদ্যোগী তেমনই প্লাস্টিকের ব্যবহার বন্ধ করতে সচেষ্ট কলকাতা পৌর কর্তৃপক্ষ। প্লাস্টিক ব্যবহার বন্ধ করতে সচেতনতা মূলক প্রচার মঙ্গলবার সকালে রামলাল বাজারে করেন স্থানীয় কাউন্সিলর এবং বিধায়ক। প্লাস্টিকের বদলে চটের ব্যাগ দেওয়া হয় স্থানীয় বাজার করতে আসা ক্রেতা-বিক্রেতাদের।

রামলাল বাজারে প্লাস্টিক বন্ধের আবেদন জানিয়ে প্রচারমূলক কর্মসূচীতে ছিলেন যাদবপুরের বিধায়ক এবং কলকাতা পৌরসভার মেয়র পরিষদ দেবব্রত মজুমদার এবং ১০৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অরিজিৎ দাস ঠাকুর ও ১০৫ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সুশীলা মণ্ডল।

প্লাস্টিক বন্ধের এই উদ্যোগ আগামী দিনেও চলবে এলাকার অন্যান্য বাজারেও এ কীভাবে সচেতনতা প্রচার করা হবে বলে জানালেন ১০৬ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর অরিজিৎ দাস ঠাকুর। দেবব্রত মজুমদার মেয়র পরিষদ কলকাতা পুরসভা এবং যাদবপুরের বিধায়ক জানান, প্লাস্টিক ব্যবহার বন্ধ না হলে কলকাতা পৌরসভার বিভিন্ন নিকাশি নালার জল জমার সমস্যার সুরাহা হবে না। দেবব্রত মজুমদার বলেন, আমরা যাদবপুরের মানুষ প্রতিজ্ঞা করেছি, আমরা সবাই মিলে প্লাস্টিক বন্ধ করব।

কলকাতা পুরসভার উদ্যোগ। বেহালায় শুরু হল পুকুর সংস্কার। দীর্ঘদিন ধরে আগাছা আর আবর্জনায় ভরাট হচ্ছিল জলাশয়। টক টু মেয়র এবং টক টু কাউন্সিলরে এলাকাবাসীর অভিযোগ। অবশেষে উদ্যোগী হলো পুরসভা। কলকাতা পুরসভার একশো কুড়ি নম্বর ওয়ার্ড। বেহালা ভূপেন রায় রোড। দীর্ঘদিন ধরেই এলাকার পুকুর চুরি হচ্ছিল। ব্যক্তিগত মালিকানার পুকুর হাতবদল হতেই ঘিরে দেওয়া হয়। প্রাচীর ঘেরা পুকুর আবর্জনা আর জঞ্জালে ভর্তি হতে থাকে।

আরও পড়ুন- মৃত্য়ুর আগে সৃজিতের ছবিতে কেকে-র শেষ প্লেব্য়াক! গান মুক্তি পেতেই আবেগে ভাসছে নেটিজেন

কয়েক মাস আগে কলকাতা পুরসভার টক টু মেয়রে ফোন করেন স্থানীয় বাসিন্দারা। প্রস্তুতি শুরু করে কলকাতা পুরসভার পরিবেশ বিভাগ। ইতিমধ্যে স্থানীয় বাসিন্দারা ফের একশো কুড়ি নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সুশান্ত ঘোষের টক টু কাউন্সিলরে ফোন করেন। কলকাতা পুরসভা ওই পুকুর নিজেদের অধীনে নেয়। তার আগে বারবার নোটিশ দিয়েও ওই জলাশয় এর মালিক কর্তৃপক্ষের সাড়া মেলেনি।

অবশেষে মঙ্গলবার কলকাতা পুরসভার একশো কুড়ি নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সুশান্ত ঘোষ নিজে দাঁড়িয়ে থেকে একদিকে মেশিন অন্যদিকে ম্যানুয়ালি কাজ শুরু করেন পুকুর খননের। আগাছা মুক্ত করে জঞ্জাল সাফ করে পুকুর খনন করা হবে এক মাসের মধ্যেই। শুধু টলটলে জল আর পুকুর খনন নয় এই জলাশয় এর সৌন্দর্যায়ন করবে কলকাতা পুরসভার প্রতিশ্রুতি দেন কাউন্সিলর সুশান্ত ঘোষ।

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published:

পরবর্তী খবর