পদে পদে বিপত্তি, এবার বৈশাখী চটলেন তাঁর নামের আগে 'শ্রীমতী' দেখে

পদে পদে বিপত্তি, এবার বৈশাখী চটলেন তাঁর নামের আগে 'শ্রীমতী' দেখে

বৈশাখীর মন বুঝতে নাস্তানাবুদ বিজেপি

এবার ঘটনার সূত্রপাত এক সাদামাটা নেমপ্লেট নিয়ে, সেই জল এতদূর গড়াবে কে ভেবেছিল!

  • Share this:

#কলকাতা: এই গোঁসাঘরে খিল দিচ্ছেন, তো এই আবার মান ভেঙে মিশে যাচ্ছেন সকলের সঙ্গে। তিনি বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়, তাঁর মনের গভীরে কখন কোন মেঘ জমা হচ্ছে তা বুঝতে নেমে বারবারই যেন বিশ বাঁও জলে পড়ছে বিজেপি। এবার ঘটনার সূত্রপাত এক সাদামাটা নেমপ্লেট নিয়ে, সেই জল এতদূর গড়াবে কে ভেবেছিল!

মুরলীধর লেনের বিজেপি অফিসে শোভন বৈশাখীর চেম্বারে সম্প্রতি তাঁদের নেমপ্লেট বসানো হয়েছে। দরজায় আলাদা নেমপ্লেটে লেখা রয়েছে শ্রী শোভন চট্টোপাধ্যায়, শ্রী দেবজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়দের , শ্রীমতী বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায় এবং শঙ্কুদেব পণ্ডার নাম।‌ সূত্রের খবর, তাঁর নামের আগে শ্রীমতী বসানোর 'বাড়াবাড়ি'তেই চটেছেন বৈশাখী। কার অনুমতিতে এমনটা করা হল, তিনি নাকি এই নিয়ে প্রশ্নও তোলেন।

বৈশাখী যে চটতে পারেন তা সম্ভবত আগেভাগেই বুঝেছিল বিজেপি। সেই কারণেই সম্ভবত ১৩ জানুয়ারি তাঁদের সদর দফতর যাওয়া সংক্রান্ত বিবৃতিতে তাঁর নামের আগে আর শ্রীমতী বসানো হয়নি। পরিচিতি সারতে বলা হয়েছে ডক্টর বৈশাখী বন্দ্যোরাধ্যায়। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বিজেপি নেতা ঘটনার সত্য়তা স্বীকার করে বললেন, উনি বলেছেন ভবিষ্যতে ওঁর পরিচয় ব্যবহারের আগে সতর্কতা অবলম্বন করতে। প্রয়োজনে ওঁর মত নিতে।

এই মান-অভিমান পালা নতুন নয়। রাজনৈতিক মহলের মত, গত দেড় বছরে এই ব্যাপারটা তাঁদের গা-সওয়া হয়ে গিয়েছে। পর্যবেক্ষকরা বলছেন, দক্ষিণ চব্বিশ পরগণার শক্তমাটিতে থই পেতে বিজেপির যেনতেন প্রকারেণ চাই শোভন চট্টোপাধ্যায়ের সক্রিয়তা। আর বৈশাখীর বিষয়ে পান থেকে চুন খসলেই যে বেঁকে বসবেন শোভন, তা ওপেন সিক্রেট। সেই কারণেই কোনও ভাবেই ভুল পদক্ষেপ করতে চায় না বিজেপি, বরং প্রয়োজনে হ্যাঁ তে হ্যাঁ মিলিয়ে চলার বার্তাই দলের ভিতর চালাচালি হয়েছে বলে জানাচ্ছে একসূত্র।

অতীতে দিলীপ ঘোষ ডালভাত বলেছিলেন শোভন বৈশাখীকে। তাই নিয়ে কম জলঘোলা হয়নি। বৈশাখী কম গুরুত্ব পাচ্ছেন এই অভিযোগে দোরে শিকল তুলেছেন শোভন। সেই আগল ভেঙে সবে সক্রিয় হয়েছে শোভন-বৈশাখী। সোমবার অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের খাসতালুক ডায়মন্ডহারবারে রোড শো করবেন তাঁরা। বিজেপি বলছে, সাধু সাবধান।

Published by:Arka Deb
First published: