Home /News /kolkata /

BJP Bengal: 'তৃণমূলের সংস্কৃতি বিজেপি-তে চলবে না', অনুব্রতর উদাহরণ টেনে বার্তা সন্তোষের

BJP Bengal: 'তৃণমূলের সংস্কৃতি বিজেপি-তে চলবে না', অনুব্রতর উদাহরণ টেনে বার্তা সন্তোষের

কলকাতায় দলীয় বৈঠকে বি এল সন্তোষ৷

কলকাতায় দলীয় বৈঠকে বি এল সন্তোষ৷

বি এল সন্তোষের দাবি, রাজ্যে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে বিজেপি৷ ফলে হতাশ হওয়ার কিছু নেই (B L Santosh)৷

  • Share this:

#কলকাতা: বিধানসভা নির্বাচনের প্রত্যাশা পূরণ হয়নি৷ তার পর একে একে উপনির্বাচন, পুরভোটেও বিপর্যয় হয়েছে দলের (BJP Bengal)৷ তা সত্ত্বেও বাংলা নিয়ে এখনই হাল ছাড়ছে না বিজেপি শীর্ষ নেতৃত্ব৷ এ দিন রাজ্যে এসে এমনই বার্তা দিলেন বিজেপি-র সর্বভারতীয় সাধারণ সম্পাদক (সংগঠন) বি এল সন্তোষ (B L Santosh)৷ তাঁর দাবি, রাজ্যে দীর্ঘমেয়াদী পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে বিজেপি৷ ফলে হতাশ হওয়ার কিছু নেই৷ বরং ভবিষ্যতে রাজ্যে দল ক্ষমতায় আসবেই বলে দাবি করেছেন বিজেপি-র এই অন্যতম শীর্ষ নেতা৷

একই সঙ্গে অনুব্রত মণ্ডলের (Anubrata Mondal) উদাহরণ দিয়ে সন্তোষ বলেন, তৃণমূলের সংস্কৃতি বিজেপি-তে চলবে না৷ বীরভূমের তৃণমূল জেলা সভাপতিকে 'বদমায়েশ, গুন্ডা' বলেও কটাক্ষ করেন তিনি৷

আরও পড়ুন: 'আরও পাঁচটি গেল মনে হচ্ছে', BJP-কে বিঁধে বিস্ফোরক বাবুল সুপ্রিয়! গেরুয়া শিবিরে ঝড়

সম্প্রতি রাজ্য বিজেপি-র সংগঠনে ঢালাও রদবদল হয়েছে৷ তা নিয়ে দলেরই একটা বড় অংশের ক্ষোভ প্রকাশ্যে এসেছে৷ সংগঠনের হাল হকিকত বুঝতে এবং শক্তি দুর্বলতা পর্যালোচনা করতে এ দিন জাতীয় গ্রন্থাগারে দলের রাজ্য নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করেন বি এল সন্তোষ৷

সংগঠনে রদবদলের পর অসন্তোষের পর রাজ্য নেতাদের একাংশের মধ্যে অসন্তোষের খবর অজানা নয় বি এল সন্তোষের৷ এ দিন তাই সংগঠনকে মজবুত করা এবং মনোবল বৃদ্ধির উপরেই জোর দেন সন্তোষ৷ সংগঠন মজবুত করতে তারুণ্যের উপরেই যে জোর দেওয়া হবে, তাও স্পষ্ট করে দেন বিজেপি-র এই শীর্ষ নেতা৷

রাজ্য নেতাদের সন্তোষ জানিয়ে দিয়েছেন, যুব মোর্চার সভাপতিদের বয়স হতে হবে ৩৫-এর মধ্যে৷ মণ্ডল সভাপতিদের সর্বাধিক বয়স হতে পারে ৪৫৷ পাশাপাশি, আগামী ৯- ১০ জানুয়ারির আগে সব মোর্চা ও জেলা কমিটির পদাধিকারীদের নাম চূড়ান্ত করতে বলেছেন সন্তোষ।৩০ শে জানুয়ারির আগে সব মণ্ডলের কমিটি ও পদাধিকারীদের নাম চূড়ান্ত করে ঘোষণা করার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি৷

আরও পড়ুন: 'সর্ষের মধ্যেই ভূত', BJP নেতৃত্বের কাছে হারের 'গুরুতর' কারণ জানিয়ে গেলেন প্রার্থীরা! 

এ ছাড়াও দলের নেতা, কর্মীদের মনোবল বাড়াতে সন্তোষ বলেন, 'আমরা লম্বা সময়ের জন্য এসেছি। রাজ্যে আমরা ক্ষমতায় আসবই। আপনারা নিশ্চিত থাকুন। সংযম ও পার্টির অনুশাসন মেনে চলতে হবে।' এর সঙ্গে সন্তোষের সংযোজন, 'আমরা বামপন্থী বা চরম ডানপন্থী নই, আবার তৃণমূল বা কংগ্রেসের মত নই, আমরা রাষ্ট্রবাদী। তৃণমূলের গুন্ডা সংস্কৃতিকে বিজেপিতে আমদানি করা যাবে না। আমাদের সংযম দেখাতে হবে। অনুব্রতর মত গুন্ডা, বদমায়েশ আমাদের সভাপতি হবে না।'

পাশাপাশি সংগঠনের পদাধিকারীদের প্রাপ্য সম্মান দেওয়ার জন্য দলের বিধায়ক, সাংসদদের পরামর্শ দেন সন্তোষ৷

রাজ্যে যে বিজেপি-র সম্ভাবনা যথেষ্ট রয়েছে তা বোঝাতে গিয়ে সন্তোষ বলেন, 'মহারাষ্ট্র, হরিয়ানা, ঝাড়খন্ডের মতa রাজ্যে লোকসভায় ভাল ফল হয়েছে৷ কিন্তু পরে বিধানসভায় আমাদের ভোট কমেছে। এ রাজ্যে আমরা নিজেদের ভোট অনেকটাই ধরে রাখতে পেরেছি।' যদিও সদ্য সমাপ্ত কলকাতা পুরসভা নির্বাচনে ভোট প্রাপ্তির নিরিখে তিন নম্বরে নেমে গিয়েছে বিজেপি৷

Published by:Debamoy Ghosh
First published:

Tags: Anubrata Mondal, BJP

পরবর্তী খবর