corona virus btn
corona virus btn
Loading

জ্যোতিষীদের লকডাউন, নিজেদের ভাগ্য নিজেরাই জানতে চান তাঁরা

জ্যোতিষীদের লকডাউন, নিজেদের ভাগ্য নিজেরাই জানতে চান তাঁরা

সকাল থেকে বিকাল তাদের জন্য অনেকে অপেক্ষা করলেও করোনা সংক্রমণের ভয়ে দেখা যাচ্ছে না আগের মতো ভিড়

  • Share this:

#কলকাতা: চিকিৎসকদের কথা মতো সব সময় হাত ধুতে হবে, স্যানিটাইজার দিয়ে হাত পরিষ্কার করতে হবে। এবার সেই হাত নিয়ে সমস্যায় জ্যোতিষীরা। হাতের রেখার বদল না ঘটলেও বদল ঘটাতে হয়েছে অভ্যাসে। যে জ্যোতিষী আগে নিজের চেম্বারে ঘণ্টার পর ঘণ্টা বসে হাতের রেখায় ভবিষ্যৎ দেখতো সে এখন বসে থাকে ল্যাপটপের সামনে। অন-লাইনে পড়াশোনার মত জ্যোতিষীর কনফারেন্সেও জমছে ভিড়। যাদের হাত দেখে লোকের ভাগ্য বলত অনায়াসে, এখন তাদের কর্মসঙ্কটে ভাগ্য বদলের আশায়।

আগে সকাল থেকে বিকাল লম্বা লাইন আর হাত দেখে ভাগ্য বিচার চলত যখন-তখন। এখন নিদিষ্ট সময় মেনে অন-লাইনে চলছে জ্যোতিষীদের ভাগ্য বিচার৷ যদি কেউ চলে আসেন চেম্বারে তাহলে তো কথা নেই। বারবার স্যানিটাইজিং আর সামাজিক দুরত্ব মেনে চলতে হচ্ছে সব সময়। করোনা পরিস্থিতিতে অনেকটাই কষ্টের মধ্যে রয়েছেন নামজাদা জ্যোতিষীরা। তাদের মধ্যে অনেকেই নতুন নতুন উপায় তৈরি করলেও দুধের স্বাদ মিটছে না ঘোলে।

তপন শাস্ত্রীর অবস্থা একইরকম। সকাল থেকে বিকাল তাদের জন্য অনেকে অপেক্ষা করলেও করোনা সংক্রমণের ভয়ে দেখা যাচ্ছে না আগের মতো ভিড়। তপন শাস্ত্রীর কথায় আগের মত আর লোকের আনাগোনা নেই, লোকের সমাগমে চেম্বারে লোকের জায়গা হত না। এখন করোনার ভয়ে তাও নেই, অন-লাইনে অনেকেই আসছেন। শহরের নামী-দামী জ্যোতিষী থেকে নতুন জ্যোতিষীদের একটাই আবেদন নিজের ভাগ্যের বদল হবে কবে? এই প্রশ্ন অনেকের হলেও উত্তর কারোর জানা নেই।

Susovan Bhattacharjee

Published by: Ananya Chakraborty
First published: July 28, 2020, 11:42 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर