Home /News /kolkata /
Arpita Mukherjee: জেলা থেকে আসত টাকা! কেন? উৎস কোথায়? জেরায় চাঞ্চল্যকর তথ্য জানালেন অর্পিতা!

Arpita Mukherjee: জেলা থেকে আসত টাকা! কেন? উৎস কোথায়? জেরায় চাঞ্চল্যকর তথ্য জানালেন অর্পিতা!

Arpita Mukherjee: এত কোটি কোটি টাকার উৎস কোথায়? জেলা থেকে কেন টাকা আসত অর্পিতার কাছে? জেরায় ইডির হাতে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য! জানুন

  • Share this:

    #কলকাতা: টেট কাণ্ড নিয়ে রাজ্যে এখন শোরগোল। কেলেঙ্কারিতে জড়িয়ে পড়েছেন প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্য়ায়। এ খবর আর নতুন নয়। হৈ হৈ পড়েছে পার্থ ঘনিষ্ঠ অর্পিতাকে নিয়ে। তার বাড়ি থেকে উদ্ধার হয়েছে এখনও পর্যন্ত প্রায় ৫০ কোটি নগদ টাকা। উদ্ধার হয়েছে সোনা, হদিশ মিলছে বহু বেনামি সম্পত্তির। দু'দিনে অর্পিতার বাড়ি থেকে ইডি ‌যা টাকা উদ্ধার করেছে তা গুনতে হাঁপিয়ে উঠছেন ব্যাঙ্কের কর্মিরা। অত্যাধুনিক মেশিন দিয়েও টাকা গুনতে কালঘাম ছুটছে তাদের। ইডি হেফাজতেই রয়েছেন অর্পিতা। চলছে জেরার পর জেরা! আর সেই জেরাতেই ফের চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এল।

    ইডির জেরার মুখে খুব সুকৌশলে নাম এড়িয়ে যাচ্ছেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। আজ দিনভর দফায় দফায় জেরায় টাকার উৎস কোথায়? তা জানার চেষ্টা করেন তদন্তকারীরা। বিভিন্ন জেলা থেকে টাকা আসত এমন ইঙ্গিত দিলেও সুকৌশলে নাম এড়িয়ে গেছেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায় দাবি ইডি-র। তবে এই আর্থিক লেনদেন নিয়ে সব তথ্যই যে জানতেন অর্পিতা। জেরাই উঠে এসেছে, একাধিকবার টাকা প্রেরক নিজেই অর্পিতার কাছে সরাসরি টাকা পৌঁছে দিয়েছে।

    ও পড়ুন:  অর্পিতার বাড়ি থেকে উদ্ধার কোটি কোটি টাকা! কী হবে এই টাকার? কারা পাবে এই টাকার ভাগ? জানুন

    তদন্তকারীরা মনে করছেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের কাছেই রয়েছে সুপারিশকারী বা চাকরি পাইয়ে দেওয়ার ক্ষেত্রে মধ্যস্থকারীদের নামের তালিকা। যে নামগুলি, জেরার তৃতীয় দিনে এড়িয়ে গেছেন অর্পিতা মুখোপাধ্যায়। তবে ওই নামের তালিকা, এবং টাকার আসল উৎস জানতে সব রকম চেষ্টা চালাচ্ছেন তদন্তকারীরা! কিন্তু অর্পিতাও পাকা খিলাড়ি, কিছুতেই নাম বলতে চাইছেন না তিনি!

    আরও পড়ুন:  পাড়ায় অর্পিতার মামা হিসেবেই পরিচিত পার্থ চট্টোপাধ্যায় ! মুখোপাধ্যায় বাড়ির অজানা খবর ফাঁস!

    প্রসঙ্গত, বুধবার বেলঘরিয়ার রথতলার একটি ফ্ল্যাট থেকে ইডি আধিকারিকরা ২৭ কোটি ৯০ লক্ষ টাকা-সহ সাড়ে তিন কেজি সোনা উদ্ধার করেন। বুধবার দুপুরে বেলঘরিয়ার ওই ফ্ল্যাটের তালা ভেঙে ঢোকে ইডি। উদ্ধার করা টাকা গুনতে গুনতে পার ১৯ ঘণ্টা। বুধবার দুপুর থেকে শুরু করে বৃহস্পতিবার ভোর ৪টে পর্যন্ত চলে তল্লাশি অভিযান। এরপর ফের বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা থেকে রথতলারই অভিজাত আবাসন ক্লাবটাউনে অর্পিতা মুখোপাধ্যায়ের অপর একটি ফ্ল্যাটে তল্লাশি শুরু করেছেন। একের পর এক তথ্য সামনে আসছে।

    অমিত সরকার

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Arpita Mukherjee, Partha Chatterjee, SSC Scam

    পরবর্তী খবর