Home /News /jalpaiguri /
Jalpaiguri News: খুন করে ব্যক্তির দেহ তিন দিন বাড়িতে লুকিয়ে রাখল মেয়ে ও স্ত্রী! কেন? কারণ অবাক করবে

Jalpaiguri News: খুন করে ব্যক্তির দেহ তিন দিন বাড়িতে লুকিয়ে রাখল মেয়ে ও স্ত্রী! কেন? কারণ অবাক করবে

ভয়ঙ্কর কাণ্ড জলপাইগুড়িতে! স্বামীকে খুনের পর ৩ দিন লুকিয়ে রাখা হল দেহ

ভয়ঙ্কর কাণ্ড জলপাইগুড়িতে! স্বামীকে খুনের পর ৩ দিন লুকিয়ে রাখা হল দেহ

Jalpaiguri News: ভয়ঙ্কর বললেও কম বলা হবে! স্ত্রী ও মেয়ের হাতে খুন হত হল ব্যক্তিকে! চলত মানসিক অত্যচারও! খুনের কারণ অবাক করবে

  • Share this:

    #জলপাইগুড়ি: এমন ও হয়? বাবার ওপর দীর্ঘদিন ধরে অত্যাচার করত মা ও মেয়ে এমনটাই অভিযোগ। তবে এবার যেন সব অত্যাচারের সীমা অতিক্রম করল তারা।অত্যাচার নয়, খুন হল জলপাইগুড়ি কলেজ পাড়ার বাসিন্দা অজিত কর্মকার। কেবল তারা খুন করেছেন তাই নয়, মৃতদেহ আটকে রেখেছেন ঘরের ভেতর। পচা-গলা দেহটি শুক্রবার দিন বিকেলে উদ্ধার করেছে জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার পুলিশ। এ ঘটনায় তীব্র চাঞ্চল্য জলপাইগুড়ির কলেজ পাড়া এলাকায়। স্থানীয় এলাকাবাসীরা ওই বাড়ির সামনে ভিড় করেন।কীভাবে ওই ব‍্যক্তি, অজিত বাবুকে খুন করে তিনদিন ধরে ঘরে মধ্যেই ফেলে রাখল স্ত্রী ও কন‍্যা? কেউই কি টের পেলেন না? প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে। নারকীয় এই ঘটনাতে স্তব্ধ এলাকাবাসী। খোদ শহরের ওপরে এমন একটি খুনের কাণ্ডতে হতবাক পুলিশও। চাঞ্চল্যকর এই ঘটনা ঘটেছে জলপাইগুড়ি শহরের কলেজপাড়া এলাকায়।

    স্থানীয় সূত্রে এদিন জানা যায়, মৃতের নাম অজিত কর্মকার। শুক্রবার বিকেলে নিজের বাড়ি থেকে তাঁর পচাগলা মৃতদেহ উদ্ধার করে জলপাইগুড়ি কোতোয়ালি থানার পুলিশ। মৃতের আত্মীয়‌দের অভিযোগ, অজিত কর্মকারের ওপর দীর্ঘদিন ধরেই অত‍্যাচার চালাত মেয়ে অনিন্দিতা কর্মকার ও স্ত্রী অঞ্জলি কর্মকার। এজন্য স্ত্রী ও কন‍্যার বিরুদ্ধে অজিত কর্মকারকে খুন করা একেবারেই অসম্ভব নয়। এই দিকে এই খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন মৃতার বোন গীতা‌রানী কর্মকার।ভাইকে খুন করার অভিযোগে রাগে ক্ষোভে‌র বশে সকলের সামনেই ভাইঝি অনিন্দিতা কর্মকার ও তার মা অঞ্জলি কর্মকারকে জুতোপেটা করেন তিনি। কিভাবে এই খুনের ঘটনা ঘটেছে তা তদন্ত করে দেখছে পুলিশ।

    আরও পড়ুন: জন্মাষ্টমীতে সেজে উঠেছে মায়াপুর ইসকন মন্দির! রইল বিশেষ ভিডিও

    অজিত কর্মকার তিস্তা ব্যারেজে গাড়ি চালাতেন এমনটাই স্থানীয় সূত্রে খবর। এখন অবসর নেওয়ার পর বাড়িতেই থাকতেন।এদিকে অজিতবাবুর এক বোন দাবি করেছেন, তার বৌদি ও তার মেয়ে মানসিক ভাবে খানিকটা অসুস্থ ছিল। এমনকি তারা অজিতবাবুকে বাড়িতে আটকে রাখত। অজিত বাবুর উচ্চ রক্তচাপ ছিল। ঘটনার কথা তারা জানতেন না।এক প্রতিবেশী জানিয়েছেন, তিন দিন আগে তারা বোঝেন যে এই বাড়িতে একটা কিছু হয়েছে। কিন্তু কৌতুহল দেখালে মেরে ফেলার হুমকি দেয় অজিতবাবুর পরিবার। এদিন গন্ধ পেয়ে তারা বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনের কাছে যান।তখনই দেখা যায়, দেহটি পচে গলে ফুলে গিয়েছে। তদন্তে নেমেছে প্রশাসন।

    গীতশ্রী মুখার্জি

    Published by:Piya Banerjee
    First published:

    Tags: Jalpaiguri, Jalpaiguri News, Murder

    পরবর্তী খবর