• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • ট্যাক্সিতে উঠে গান গেয়ে শোনালেই রাইড ফ্রি! দেশের অভিনেতাদের গায়কসত্ত্বাও আবিষ্কার করেছেন এই ট্যাক্সি ড্রাইভার!

ট্যাক্সিতে উঠে গান গেয়ে শোনালেই রাইড ফ্রি! দেশের অভিনেতাদের গায়কসত্ত্বাও আবিষ্কার করেছেন এই ট্যাক্সি ড্রাইভার!

photo source collected

photo source collected

যাত্রীরা গান গাইলে মাঝে মাঝে পুরো রাইডটাই ফ্রি হয়ে যায়, একটিও পয়সা নেন না তিনি। আর যদি যাত্রীরা মন ভালো করে দেওয়ার মতো দারুণ গান গাওয়ার ক্ষমতা রাখেন? সে ক্ষেত্রে রাইড তো ফ্রি হয়ে যায়ই, পাশাপাশা আবার একটা নগদ অর্থমূল্য তাঁদের হাতে পুরস্কার হিসেবেও তুলে দেওয়া হয়।

  • Share this:

#তাইওয়ান: এমনটাও কি সত্যি হতে পারে? ট্যাক্সিতে ওঠার পর গান গেয়ে শোনালে একটাও পয়সা নেবেন না ট্যাক্সি ড্রাইভার? বরং গান পছন্দ হলে হাতে ধরিয়ে দেবেন নগদ অর্থমূল্যের পুরস্কার?

শুনতে যতই অদ্ভুত লাগুক না কেন, সম্প্রতি সংবাদমাধ্যমে উঠে এসেছে তেমনই এক খবর। রীতিমতো হইচই পড়ে গিয়েছে চিয়াং লিয়াং নামের এক ট্যাক্সি ড্রাইভারকে নিয়ে। তাইওয়ানের পথে পথে এই গানের দৌলতেই এখন সুপারহিট তাঁর ট্যাক্সি-রাইড!

তবে যে সে গান নয়! খবরে জানা গিয়েছে যে লিয়াংয়ের ট্যাক্সিতে উঠে গাইতে হবে ক্যারাওকে। অর্থাৎ একটি মাইকের মধ্যে ভরাই থাকবে নানা জনপ্রিয় গানের সুর। সেই সুরের তালে, হাতে মাইক নিয়ে কেবল গানটা গেয়ে শোনাতে হবে যাত্রীদের।

সংবাদমাধ্যমকে লিয়াং জানিয়েছেন যে যাত্রীরা যদি গান গাইতে রাজি হন, তা হলে তিনি তাঁদের গাড়িভাড়ার উপরে একটা ডিসকাউন্ট দিয়ে থাকেন। যাত্রীরা গান গাইলে মাঝে মাঝে পুরো রাইডটাই ফ্রি হয়ে যায়, একটিও পয়সা নেন না তিনি। আর যদি যাত্রীরা মন ভালো করে দেওয়ার মতো দারুণ গান গাওয়ার ক্ষমতা রাখেন? সে ক্ষেত্রে রাইড তো ফ্রি হয়ে যায়ই, পাশাপাশা আবার একটা নগদ অর্থমূল্য তাঁদের হাতে পুরস্কার হিসেবেও তুলে দেওয়া হয়।

তা বলে এটা ভাবা ভুল যে এই সব করতে গিয়ে লোকসানের মুখ দেখেন লিয়াং। উল্টে বেশির ভাগ সময়েই মুগ্ধ যাত্রীরা তাঁকে গাড়িভাড়ার চেয়ে বেশি অঙ্কের টিপস দিয়ে যান। ৫৭ বছরের এই ট্যাক্সি ড্রাইভার রীতিমতো জনপ্রিয় তাইওয়ানে।

আসলে তাইওয়ানে ক্যারাওকের জনপ্রিয়তা খুবই বেশি। গাড়ি বুক করার সময়ে সেখানে ক্যারাওকে থাকবে কি না, সেই অপশনটাও দেওয়া হয়ে থাকে যাত্রীদের। সে কারণেই দিনের পর দিন এই ব্যবস্থা চালিয়ে যেতে পারছেন লিয়াং।

লিয়াং জানিয়েছেন যে তাইওয়ানের জনপ্রিয় অভিনেতা এডওয়ার্ড চেনের সঙ্গীতপ্রতিভা তাঁর ট্যাক্সির কল্যাণেই দেশ জানতে পেরেছিল। ইচ্ছুক যাত্রীদের গানের ভিডিও যে তিনি আপলোড করে থাকেন YouTube-এ।

এ হেন লিয়াংয়ের কেবল একটাই আশা- কোনও একদিন ডাকসাইটে গায়ক এড শিরান (Ed Sheeran) তাঁর ট্যাক্সিতে সওয়ার হয়ে ক্যারাওকের তালে গান গেয়ে শোনান!

Published by:Piya Banerjee
First published: