First Bangladeshi Film at Cannes: ইতিহাস গড়ল বাংলাদেশ, ‘রেহানা মরিয়ম নূর’ পা রাখল কান-এ

কান চলচ্চিত্র উৎসবে যাচ্ছে বাংলাদেশের ছবি ।

এই চরিত্রটার জন্য ২০১৮ সালে অডিশন দিয়ে নির্বাচিত হয়েছিলেন বাঁধন । নিশ্চিত হওয়ার পর ৯ মাস ধরে রিহার্সাল চলেছিল তাঁদের ।

  • Share this:

    #ঢাকা: তৈরি হল ইতিহাস । বাংলাদেশ থেকে প্রথম বাংলা ছবি এ বার পাড়ি দিল ‘কান চলচ্চিত্র উৎসব’-এ । ইতিহাস তৈরি করলেন বিখ্যাত চলচ্চিত্র পরিচালক আবদুল্লাহ মহম্মদ সাধ । এটি তাঁর পরিচালিত দ্বিতীয় ছবি । ছবির নাম ভূমিকায় অভিনয় করেছেন আজমেরি হক বাঁধন । কান-এর Un Certain Regard বিভাগে এই ছবি জায়গা করে নিয়েছে ।এই বিভাগে সারা বিশ্বের নন-ট্র্যাডিশনাল বিভিন্ন ছবিকে পুরষ্কৃত করা হয় ।

    ‘রেহানা মরিয়ম নূর’-এর গোটা গল্পটাই রেহানাকে নিযে । যিনি মেডিক্যাল কলেজের একজন অধ্যাপিকা । পেশায় চিকিৎসক । পাশাপাশি তিনি একজন শিক্ষিকা ও একজন মা-ও বটে । হঠাৎ তাঁর জীবনে একটা বড় পরিবর্তন আসে তাঁরই কলেজের এক ছাত্রীর হাত ধরে । সেই ছাত্রীর জীবনে এমন একটা ঘটনা ঘটে যে তার সঙ্গে জড়িয়ে যান রেহানা । গোটা সিস্টেমের বিরুদ্ধে গিয়ে গর্জে ওঠেন তিনি । লড়াইয়ের মাঠে নামেন । এই নিয়েই এগিয়ে চলের গল্পের পথ ।

    মহম্মদ সাধের পরিচালিত দ্বিতীয় ছবি এটি । প্রথমটি ২০১৬ সালের ‘লিভ ফ্রম ঢাকা’ । সেই ছবিতেও আজমেরি হক বাঁধন ছিলেন মুখ্য ভূমিকায় । এ ছাড়াও ছিলেন আফিয়া জাহিন, কাজি শামি হাসান, তুহীন তাজিমবল প্রমূখ । ছবিটির জন্য সিঙ্গাপুর আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে সেরা পরিচালকের পুরষ্কার পেয়েছিলেন সাধ ।

    তবে রেহানার চরিত্রে কাজ করাটা বাঁধনের পক্ষে মোটেই সহজ ছিল না । তিনি নিজেই সে কথা জানিয়েছেন । তিনি বলেন, ‘সাধের জন্যই সবটা সম্ভব হয়েছে । তিনি বুঝতে পেরেছিলেন আমি রেহানা হয়ে উঠতে পারব, কারণ আমার জীবনেও প্রচুর লড়াই এসেছে ।’’ এই চরিত্রটার জন্য ২০১৮ সালে অডিশন দিয়ে নির্বাচিত হয়েছিলেন বাঁধন । তারপরের ২ মাস সাধ শুধুই তাঁকে পর্যবেক্ষণ করতেন যে, তিনি চরিত্রটি ফুটিয়ে তুলতে পারবেন কিনা । এ ব্যাপারে নিশ্চিত হওয়ার পর ৯ মাস ধরে রিহার্সাল চলেছিল তাঁদের ।

    সব পরিশ্রম সফল হয়েছে এ দিনের সুখবরে । বাঁধন বললেন, ‘‘সাধ যখন আমায় ফোন করেন, আমি তখনও বিশ্বাস করিনি । আমি কেঁদে ফেলেছিলাম । এমনকি এখনও আমার চোখে আনন্দাশ্রু আসছে । এটা শুধু আমাদের ছবির নয়, গোটা বাংলাদেশের কাছেই গর্বের সময় । আমাদের দেশ আর দেশের সিনেমা দুনিয়ায় একটা ইতিহাস তৈরি হল । এই অপূর্ব টিমটার সঙ্গে যুক্ত হতে পেরে নিজেকে খুব ভাগ্যবান মনে হচ্ছে ।’’

    এর আগে প্রয়াত তারিক মাসুদের ছবি ‘মাটির ময়না’ কান-এর Director's Fortnight বিভাগে গিয়েছিল । ২০০২ সালে । FIPRESCI award পেয়েছিল । Un Certain Regard বিভাগে শেষ বাংলা ছবি গিয়েছিল সন্দীপ রায়ের ‘উত্তরণ’ ।

    Published by:Simli Raha
    First published: