• Home
  • »
  • News
  • »
  • international
  • »
  • Kali Puja 2021: গোটা দেশের একমাত্র কালীপুজো, কামাল করছেন জাকার্তার বাঙালিরা

Kali Puja 2021: গোটা দেশের একমাত্র কালীপুজো, কামাল করছেন জাকার্তার বাঙালিরা

জাকার্তায় কালীপুজো

জাকার্তায় কালীপুজো

Kali Puja 2021: কালীপুজোকে জাকার্তার মাটিতে সার্থকভাবে দ্বিতীয় বছর পরিচালনা করছে জাকার্তার কিশোর কুমার ফ্যানস ক্লাব ও বেঙ্গলি অ্যাসোসিয়েশন একযোগে।

  • Share this:

    #জাকার্তা: কথায় বলে ইচ্ছে থাকলে উপায় হয়, বাঙালির শ্যামা মা, মা কালীর প্রতি ভক্তি কোন প্রতিরোধেই হার মানার নয়। শ্যামা পুজো বা কালীপুজো যে নামটার সঙ্গে অনেকটা শ্রদ্ধা, ভালোবাসা অনেক কিছুই লুকিয়ে থাকে মানুষের মনের গোপন কোণে। সেই কালীপুজোকে জাকার্তার মাটিতে সার্থকভাবে দ্বিতীয় বছর পরিচালনা করছে জাকার্তার কিশোর কুমার ফ্যানস ক্লাব ও বেঙ্গলি অ্যাসোসিয়েশন একযোগে।

    মা কালীর ভক্তরা গত বছর কঠিন মহামারীর পরিস্থিতির মধ্যেও তাঁদের মা কালী আরাধনার ইচ্ছাকে দমিয়ে না রেখে কলকাতা কুমোরটুলি থেকে মাটির প্রতিমা ,পুজোর যাবতীয় দশকর্মা দ্রব্যাদি ডাক মারফত নিয়ে এসে সম্পূর্ণ বাংলার কালীপুজোর রীতিতেই এই পুজো সম্পন্ন করেছিলেন। সেটাই ছিল তাদের জাকার্তা তথা ইন্দোনেশিয়া প্রথম ও একমাত্র কালীপুজো। এই বছর তাদের শ্রী শ্রী ওম জাকরতেশ্বরী মা কালীপুজোর দ্বিতীয় বছর, যা এই পুজোর উদ্যোক্তারা খুবই ধুমধামের সঙ্গে সমস্ত সরকারি ও লোকাল অথরিটির কোভিড নিয়মবিধি মেনে সুসম্পন্ন করতে চলেছেন জাকার্তার প্লুইত অঞ্চলের শিব মন্দিরে।

    জাকার্তার কালীপুজো জাকার্তার কালীপুজো

    আরও পড়ুন: 'শুনে নিন...', ফের বিস্ফোরক তথাগত রায়! হারের ক্ষতের মাঝেই বড় বিড়ম্বনা BJP-র

    পুজোর নির্ঘণ্ট সন্ধ্যে থেকে শুরু হয়ে সমাপ্ত হবে মধ্যরাতে হোম যজ্ঞ সম্পন্ন করে। গত বছর পশ্চিমবঙ্গের বারোয়ারি পুজোর মতোই তাঁদের প্যান্ডেল তৈরি হয়েছিল। গত বছর তাঁরা প্যান্ডেল তৈরি করেছিলেন দক্ষিণেশ্বরের মা কালীর মন্দিরের আদলে। এই বছর তাদের প্যান্ডেল তৈরি হচ্ছে গ্রাম বাংলার মন্ডপের আদলে। পুজোর উদ্যোক্তারা পুজোর দিন ভোরবেলা জাকার্তার বিভিন্ন অঞ্চল ঘুরে ঘুরে খুঁজে মা কালী পুজোর জন্যে জবা ফুল সংগ্রহ করেন যে  ফুল ইন্দোনেশিয়ার মতো দেশে খুঁজে পাওয়া যথেষ্ট কঠিন। জবার মালা, ১০৮ মাটির প্রদীপ, পুজোর ভোগ প্রসাদ কোন কিছুই বাদ পড়ে না তাদের এই মা কালীর আরাধনাতে। এই পুজোর জন্যে যেমন সেখানকার বাঙালিরা মুক্ত হস্তে দান করেন, তেমনি বিভিন্ন প্রাদেশিক ভাষা, বর্ণ নির্বিশেষে এই পুজোতে বহু মানুষকে অংশগ্রহণ করতে দেখা যায়।

    আরও পড়ুন: হাইকোর্টে বহাল সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ, বাংলার বাজিপ্রেমীদের জন্য বড় সুখবর

    আরও পড়ুন: 'পিছন থেকে ছুরির জবাব', BJP-র কাটা ঘায়ে নুনের ছিটে বাবুল সুপ্রিয়র! করলেন ভবিষ্যদ্বাণীও

    পশ্চিমবঙ্গ, কলকাতা থেকে এত দূরে থেকেও কিছু বাঙালি তাদের নিজেদের ঐতিহ্য, পুজো আচার-অনুষ্ঠানকে যেভাবে বহন করে নিয়ে চলেছেন জাকার্তা তথা ইন্দোনেশিয়ার মাটিতে, তা সত্যিই প্রশংসনীয়।

    Published by:Suman Biswas
    First published: