corona virus btn
corona virus btn
Loading

লাদাখ সীমান্তে ভারত-চিন সংঘর্ষের জের, ভারতে নিষিদ্ধ হল TikTok

লাদাখ সীমান্তে ভারত-চিন সংঘর্ষের জের, ভারতে নিষিদ্ধ হল TikTok

কেন্দ্রীয় তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৬৯-এ ধারার ক্ষমতা প্রয়োগ করে সোমবার এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় ।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি:  ভারতে নিষিদ্ধ হচ্ছে জনপ্রিয় চিনা অ্যাপ টিকটক (TikTok) । সীমান্তে ভারত-চিন সংঘর্ষ ও ২০ জন ভারতীয় সেনার শহিদ হওয়ার উত্তপ্ত আবহে চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করার সিদ্ধান্ত নিল ভারত সরকার । কেন্দ্রীয় তথ্য প্রযুক্তি আইনের ৬৯-এ ধারার ক্ষমতা প্রয়োগ করে সোমবার এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয় ।

সাংবাদিক সম্মেলনে কেন্দ্রীয় তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়, ভারতীয়দের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষিত রাখতেই কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্ত । কারণ এই ধরনের চিনা অ্যাপ , মোবাইল ফোনে থাকলে তথ্য ফাঁস হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে । তাই সেই সব অ্যাপ থেকে বিরত থাকাই শ্রেয় ।

পরিসংখ্যান অনুযায়ী , চিন ও ইংল্যান্ডের পর ভারতে টিকটক ব্যবহারকারীর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি । ইতিমধ্যেই টিকটক ইউজারের সংখ্যা ছাড়িয়েছে ২ বিলিয়ন । তার মধ্যে ৬১১ মিলিয়ন ব্যবহারকারীই ভারতের নাগরিক । টিকটক-এর এই জনপ্রিয়তা করোনা মহামারি এবং তা রুখতে জারি করা লকডাউনের সময়ে সবথেকে বেশি মাত্রায় লক্ষ্য করা গিয়েছে । লকডাউনে বাড়িতে বসে টিকটক-কেই সর্বাধিক সাধারণ মানুষ বিনোদনমূলক অ্যাপ হিসাবে বেছে নিয়েছিল । কিন্তু , লাদাখ সীমান্তে চিনা আগ্রাসনের ফলে সেলেব্রিটি-সহ সচেতন নাগরিকদের সিংহভাগই এই ধরনের অ্যাপ ব্যবহারে উৎসাহ হারান । এমনকি অনেকে মোবাইল থেকে আন-ইনস্টলও করে দেন ।

প্রসঙ্গত, মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করে অ্যান্ড্রয়েড এবং আইওএস প্ল্যাটফর্ম থেকে   গ্রাহকদের তথ্য চুরির অভিযোগ জমা পড়ছিল কেন্দ্রীয় তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রকের কাছে । এরপরই জনপ্রিয় চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় কেন্দ্র।  তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রকের তরফে জানানো হয়েছে, ১৩০ কোটি ভারতবাসীর তথ্য সুরক্ষিত রাখার জন্যই এই সিদ্ধান্ত । শুধু টিকটক নয় , ইউসি , ক্যাম স্ক্যানার , শেয়ারইট-সহ আরও ৫৯টি চিনা অ্যাপ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে ।

Published by: Shubhagata Dey
First published: June 29, 2020, 10:30 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर