Home /News /howrah /
Howrah: সততা রিকশা চালকের, টাকা সমেত ম্যানিব্যাগ ফিরিয়ে দিলেন ব্যগের মালিককে

Howrah: সততা রিকশা চালকের, টাকা সমেত ম্যানিব্যাগ ফিরিয়ে দিলেন ব্যগের মালিককে

title=

বালি ট্রাফিক গার্ড সংলগ্ন রিক্সা স্ট্যান্ড। বর্তমানে অটো টোটো'র দৌরাত্বে রিকশার বাজার মন্দা। প্যাডেলে ভর দেওয়া রিকশার থেকে টোটোয় বা অটোতে চড়লে কম সময়ে গন্তব্যে পৌঁছানো যায়।

  • Share this:

    হাওড়া: বালি ট্রাফিক গার্ড সংলগ্ন রিক্সা স্ট্যান্ড। বর্তমানে অটো টোটো'র দৌরাত্বে রিকশার বাজার মন্দা। প্যাডেলে ভর দেওয়া রিকশার থেকে টোটোয় বা অটোতে চড়লে কম সময়ে গন্তব্যে পৌঁছানো যায়। তাই চাহিদা কমার সঙ্গে সঙ্গে রিকশাওয়ালাও কমতে শুরু করেছে। একসময় বালি রিকশা স্ট্যান্ডে সারি সারি অসংখ্য রিকশা দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যেত। কিন্তু এখন হাতে গোনা কয়েকটা রিকশা দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যায়। এদের মধ্যেই একজন কৃষ্ণা বাহাদুর। দিন এনে দিন খাওয়া! এলাকায় নেপালি রিকশা চালক নামেই পরিচিত কৃষ্ণা। রিকশা চালিয়ে কোনমতে চলে তার সংসার।

    অভাব-অনটন থাকলেও সততার যে অভাব নেই তারই পরিচয় দিল রিকশাচালক কৃষ্ণা বাহাদুর। এলাকার অনেকেই এখন সাধুবাদ জানাচ্ছেন তাকে। কয়েক দশক ধরে বালি এলাকায় রিকশা চালাচ্ছেন কৃষ্ণা। কৃষ্ণা বাহাদুর নেপালি রিকশা নামে একডাকে সকলে চেনেন।

    আরও পড়ুনঃ নদী গর্ভে চলে যাচ্ছে খেলার মাঠ,বাঁচানোর দাবি আট থেকে আশি সকলের

    শুক্রবার বালি রিকশা স্ট্যান্ড প্রতিদিনের মতোই যাত্রী অপেক্ষায় দাঁড়িয়ে ছিল কৃষ্ণা। সেখান থেকে কুড়িয়ে পায় একটি মানিব্যাগ। ব্যাগটি তে রয়েছে দুটি কার্ড টাকাসহ বহু নথি। সে সাতপাঁচ না ভেবে, ব্যাগটি নিয়ে সোজা চলে যান বালি ট্রাফিক গার্ড অফিসে। ট্রাফিকের সহযোগিতায় কুড়িয়ে পাওয়া মানিব্যাগ মালিকের সঙ্গে যোগাযোগ করে।

    আরও পড়ুনঃ মায়ের স্বপ্ন পূরণ ছেলের! বানিয়ে ফেললেন আস্ত একটা লাইব্রেরি!

    জানা যায় চন্ডীতলার বাসিন্দা সোমনাথ সাঁতরার মানিব্যাগ। ছিপছিপে চেহারার কৃষ্ণ বাহাদুর ম্যানিব্যাগ হাতে নিয়ে রিকশায় বসে দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করে। সোমনাথ বাবু এলে কৃষ্ণা বাহাদুর তার হাতে মানিব্যাগটি তুলে দেন।

    Rakesh Maity
    First published:

    Tags: Bally, Howrah

    পরবর্তী খবর