আতঙ্কজনক হারে বেড়েছে ইঁদুরের সংখ্যা, কেন দিন-রাত ইঁদুর ধরছেন অস্ট্রেলিয়ার অধিবাসীরা?

অস্ট্রেলিয়ায় আতঙ্কজনক হারে বেড়েছে ইঁদুরের সংখ্যা, কেন দিন-রাত কেবলই ইঁদুর ধরছেন অধিবাসীরা?

জানা গিয়েছে যে অস্ট্রেলিয়ার বিশেষ করে নিউ সাউথ ওয়েলস এবং কুইন্সল্যান্ডে সম্প্রতি ইঁদুরের বংশবিস্তার হয়েছে আতঙ্কজনক হারে।

  • Share this:

#অস্ট্রেলিয়া: সত্যি বলতে কী, এছাড়া এখন আর কোনও উপায় নেই! ইঁদুর নিজে থেকে পালাচ্ছে না, অতএব তাদের ধরার উদ্যোগ মানুষকেই নিতে হবে! না হলে যে কোনও মুহূর্তে ছড়িয়ে যেতে পারে প্লেগের মতো ভয়াবহ অতিমারী!

জানা গিয়েছে যে অস্ট্রেলিয়ার বিশেষ করে নিউ সাউথ ওয়েলস এবং কুইন্সল্যান্ডে সম্প্রতি ইঁদুরের বংশবিস্তার হয়েছে আতঙ্কজনক হারে। শুধু যে মানুষের ঘরে এদের দেখা যাচ্ছে তা নয়, শপিং মল, সিনেমা হল, দোকানপাট, রাস্তাঘাট- সর্বত্রই চোখে পড়ছে ইঁদুর। এমনকি পাবলিক ট্রান্সপোর্টেও ইঁদুর দেখা যাচ্ছে। ফলে এখন দিন নেই রাত নেই, ইঁদুর ধরার কাজে মন দিয়েছেন অস্ট্রেলিয়ানরা। রীতিমতো ভিডিও করে তাঁরা ইঁদুরের গতিবিধি নজরে রাখছেন, সূত্রে উঠে এসেছে এমন খবরও!

কী ভাবে ইঁদুর এত বেড়ে গেল অস্ট্রেলিয়ায়?

আশ্চর্যের বিষয় হল এই যে আগে অস্ট্রেলিয়ায় না কি ইঁদুর ছিলই না! ব্রিটেনের সঙ্গে বাণিজ্যনীতির হাত ধরে ওই দেশ থেকে অস্ট্রেলিয়ায় ইঁদুর এসেছিল বলে জানা যায়। ১৭৮৭ সালে তথ্য অনুযায়ী অস্ট্রেলিয়ায় প্রথম ইঁদুর দেখা যায়। তার পর থেকে রীতিমতো অবাক করা হারে বংশবিস্তার করে চলেছে এরা। সঙ্গে করে চলেছে ফসলের ক্ষতি। জানা যায় যে প্রতি চার বছর অন্তর অস্ট্রেলিয়া না কি ইঁদুরের উৎপাতের মুখে পড়ে। ১৯৯৩ সালে ইঁদুরের উৎপাতে অস্ট্রেলিয়ায় শস্যের ক্ষতি হয়েছিল রেকর্ড পরিমাণ, সেই বছরে নষ্ট হয়েছিল ৯৬ মিলিয়ন অস্ট্রেলিয়ান ডলার মূল্যের ফসল!

ফসল ছাড়া অন্য ক্ষতি:

শুধু যে এই ইঁদুরগুলো ফসলের ক্ষতি করেই ক্ষান্ত থাকছে না, এমনটা কিন্তু নয়। একই সঙ্গে এদের আক্রমণের মুখে পড়ছে গবাদি পশুগুলো। নানা খামারে গবাদি পশুর শরীরে ইঁদুরের কামড়ের দাগ দেখা যাচ্ছে, অনেক পশুর সারা শরীর হয়ে উঠে ক্ষত-বিক্ষত। ফলে, তাদের মেরে ফেলা ছাড়া আর কোনও উপায় থাকছে না। এই দিক থেকে দেখলে ইঁদুরের আক্রমণে দেশের প্রাণীসম্পদও এসে দাঁড়িয়েছে লোকসানের মুখে।

একই সঙ্গে ইঁদুরের আক্রমণে রবার এবং বিদ্যুতের কারখানারও ক্ষতি হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে। ক্ষতি হচ্ছে যানবাহনেরও। এরা সহজেই নানা তার কেটে দিয়ে পরিষেবা ব্যাহত করার মতো পরিবেশ তৈরি করে তুলছে।

আচমকা কী ভাবে এত ইঁদুর জড়ো হল লোকালয়ে?

বর্তমানে অস্ট্রেলিয়া একের পর এক প্রাকৃতিক দুর্যোগের মুখে পড়ছে। বনভূমিতে দাবানলের ঘটনায় সেখান থেকে ইঁদুর পালিয়ে লোকালয়ে এসেছে বলে মনে করা হচ্ছে। তাছাড়া সম্প্রতি নিউ সাউথ ওয়েলসে বন্যা হয়েছে, সে কারণেও মাঠঘাট ছেড়ে ইঁদুরেরা মানুষের বসতিতে আশ্রয় নিয়েছে বলে মনে করছেন পশুবিদরা। ২০২০ সালে একবার এই পরিস্থিতির মোকাবিলায় বন্যা আটকানোর চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছিল অস্ট্রেলিয়ার সরকার। তার পর থেকে কেবলই বেড়ে চলেছে অস্ট্রেলিয়ায় ইঁদুরের সংখ্যা। সৌভাগ্যবশত সেখানে এখনও প্লেগ দেখা দেয়নি। তবে ভবিষ্যতের গর্ভে কী লুকিয়ে আছে, আপাতত তা ভেবেই দুশ্চিন্তায় দিন কাটছে অধিবাসীদের।

Published by:Pooja Basu
First published: