সামান্য কোভিড আক্রান্তদের সিটি স্ক্যানে রয়েছে ক্যান্সারের ঝুঁকি! কী বলছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক?

রোগীর অবস্থার অবনতি ঘটলে সংক্রমণ সম্পর্কে ধারণা পেতে সিটি স্ক্যান করা হচ্ছে

রোগীর অবস্থার অবনতি ঘটলে সংক্রমণ সম্পর্কে ধারণা পেতে সিটি স্ক্যান করা হচ্ছে

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: দেশ জুড়ে এখন শুধুই করোনা-আতঙ্ক। প্রতি দিন যে ভাবে মানুষ করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন তাতে হাসপাতালে দেখা দিচ্ছে বেডের ঘাটতি। অন্য দিকে রেডিওলজি ল্যাবগুলিতে সিটি স্ক্যানের জন্যও উপচে পড়ছে ভিড়। প্রয়োজন থাক বা না থাক, চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়াই প্রায় প্রতিটি রোগী সিটি স্ক্যানের জন্য ল্যাবগুলিতে যাচ্ছেন। কিন্তু এখন প্রশ্ন হল কোনও সিটি স্ক্যান রিপোর্ট চিকিৎসা সম্পর্কে সিদ্ধান্ত নিতে কতটা সাহায্য করতে পারে? কত দিনের ব্যবধানে এটি কতবার করা প্রয়োজন? এর কি কোনও ক্ষতিকারক দিক রয়েছে? এমন আরও অনেক প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক নিকেত রাই (Niket Rai), MBBS, মৌলানা আজাদ মেডিক্যাল কলেজ (Maulana Azad Medical College) এবং লোকনায়ক হসপিটাল, দিল্লির (Lok Nayak Hospital, Delhi) অ্যাসোসিয়েট।

বর্তমানে করোনা সংক্রমণের তীব্রতার করাণে RT-PCR টেস্ট অনেকদিন ধরেই বন্ধ রয়েছে। এই পরিস্থিতিতে রোগীর অবস্থার অবনতি ঘটলে সংক্রমণ সম্পর্কে ধারণা পেতে সিটি স্ক্যান বা এক্সরে করা হচ্ছে। কিন্তু এই পদ্ধতি কতখানি যুক্তিগ্রাহ্য, তা জেনে নেওয়া যাক!

সিটি স্যান কী?

কম্পিউটেড টমোগ্রাফি স্ক্যান সংক্ষেপে সিটি স্ক্যান নামে পরিচিত। এটি এক প্রকার এক্স-রে। HRCT মানে হল High Resolution CT। কোভিড ১৯ নির্ণয়ের জন্য এটি করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। যেখানে RT-PCR করোনা ভাইরাস নির্বাচনে অক্ষম, সেখানে HRCT স্পষ্টভাবে সংক্রমণের উপস্থিতি এবং তীব্রতা সম্পর্কে জানায়।

কোভিডের সমস্ত রোগীদের সিটি চেস্ট করানোর দরকার আছে কি?

না।

যদি না হয় তবে কোন রোগীর এটি করা উচিত?

অক্সিজেন স্যাচুরেশন লেভেল (SpO2) যদি ৯৪-এর কম থাকে এবং প্রতি মিনিটে শ্বাস প্রশ্বাসের হার যদি ২৪-এর বেশি হয় এবং অবিরাম জ্বর, সর্দি-কাশি, ৭ দিনেরও বেশি সময় ধরে শ্বাসকষ্টের মতো মাঝারি থেকে গুরুতর লক্ষণযুক্ত রোগীদের বুকে সিটি স্ক্যান করানো যেতে পারে।

এক্সরে কি সিটি স্ক্যানের চেয়ে নিরাপদ?

হ্যাঁ। সিটি স্ক্যানে আরও বেশি রেডিয়েশন থাকে, যার সংস্পর্শ এলে অন্যান্য রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বাড়ে। বিভিন্ন ধরণের সিটি স্ক্যান রয়েছে, তবে কোভিডের জন্য HRCT (High Resolution Computed Tomography) সুপারিশ করা হয়, যার মাধ্যমে একজন রোগী এক্স-রে–এর তুলনায় ৫০ থেকে ১০০ গুণ বেশি রেডিয়েশনের সংস্পর্শে আসেন।

যদি হ্যাঁ হয় তবে কেন সিটি স্ক্যান করা দরকার?

এক্স-রে এর মাধ্যমে ফুসফুসকে টু-ডাইমেনশনে দেখা যায়। অন্য দিকে সিটি স্ক্যানে ফুসফুসকে থ্রি-ডাইমেনশনে দেখা যায়। তবে যদি কোভিডের উপসর্গগুলি কারও শরীরে কম থাকে তবে সিটি স্ক্যানের প্রয়োজন নেই। সেক্ষেত্রে সংক্রমণের অগ্রগতি মূল্যায়নের জন্য এক্স-রে করা যেতে পারে।

সিটিএসএস কী?

এটি সিটি স্ক্যান তীব্রতার স্কোর। ডান ফুসফুসে ৩টি লম্বা এবং বাম ফুসফুসে যে ২টি লব রয়েছে সেই প্রতিটি লবের আলাদা আলাদা স্কোর দেওয়া হয়েছে এবং এই স্কোর ১ থেকে ৫-এইভাবে ভাগ করা হয়েছে।

কখন পুনরায় সিটি স্ক্যান করানো উচিত?

রোগী যদি চিকিৎসায় সাড়া না দেয় বা করোনার ক্লিনিকাল লক্ষণগুলির অবনতি ঘটলে।

কখন পুনরায় সিটি স্ক্যান করানোর দরকার নেই?

রোগীর ক্লিনিকাল লক্ষণগুলি উন্নতি হলে, চিকিৎসায় সাড়া দিলে বা রোগী অবস্থা স্থিতিশীল থাকলে সিটি স্ক্যানের পুনরাবৃত্তি করার দরকার নেই।

যদি কোনও রোগী পুরোপুরি সুস্থ হয়ে উঠেন এবং তার পরেও সিটি স্কোর বেশি থাকে তবে তার অর্থ কী?

এর অর্থ, তীব্র সংক্রমণের কারণে ফুসফুসগুলি তন্তুময় হয়ে গেছে এবং যা ঠিক হতে কয়েক সপ্তাহ থেকে কয়েক মাস সময় লাগবে। তবে এবিষয়ে সেভাবে চিন্তা করার প্রয়োজন নেই। যদি ক্লিনিকাল উপসর্গগুলি ঠিক হয়ে যায় তবে CTSS সম্পর্কে আতঙ্কিত হওয়ার দরকার নেই।

সিটি স্ক্যান কী ক্ষতি করতে পারে?

সিটি স্ক্যান করালে, ভবিষ্যতে ক্যানসারের ঝুঁকি রয়েছে।

গর্ভবতী মহিলাদের কি সিটি স্ক্যান করা যেতে পারে?

না। রেডিয়েশন গর্ভের শিশুর উপর বিরূপ প্রভাব ফেলতে পারে।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: