আসানসোলে পৌঁছে প্রচার শুরু সায়নীর! প্রথম দিনই মানুষের সঙ্গে দেখা করলেন

আসানসোলে পৌঁছে প্রচার শুরু সায়নীর! প্রথম দিনই মানুষের সঙ্গে দেখা করলেন

আসানসোলে পৌঁছে প্রচার শুরু সায়নীর

কিছুদিন আগেই পা রেখেছেন রাজনীতির ময়দানে। তার কিছুদিনের মধ্যেই তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হিসেবে আসানসোল কেন্দ্র থেকে দাঁড়ান তিনি। তালিকা ঘোষণা হওয়ার পরে আর দেরি নয়। রবিবারই নিজের কেন্দ্রে হাজির হন সায়নী।

  • Share this:

#আসানসোল: রাজনীতির ময়দানে তারকা প্রার্থীর ছড়াছড়ি।এইবছর তৃণমূল কংগ্রেসের আসানসোল দক্ষিণের প্রার্থী জনপ্রিয় অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ। কিছুদিন আগেই পা রেখেছেন রাজনীতির ময়দানে। তার কিছুদিনের মধ্যেই তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হিসেবে আসানসোল কেন্দ্র থেকে দাঁড়ান তিনি। তালিকা ঘোষণা হওয়ার পরে আর দেরি নয়। রবিবারই নিজের কেন্দ্রে হাজির হন সায়নী।

রবিবারই কলকাতায় আসেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। মোদির ব্রিগেডে এদিন সবচেয়ে বড় চমক ছিল অভিনেতা মিঠুন চক্রবর্তীর উপস্থিতি। আর ঠিক সময়েই ঘাসফুল শিবিরও কোমর বেঁধে প্রচার করল। সাংসদ মিমি চক্রবর্তী ও নুসরত জাহানকে নিয়ে শিলিগুড়ির পথে হাঁটলেন মুখ্য়মন্ত্রী তথা তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। এরই মধ্যে আসানসোলে গিয়ে কথা বলে মানুষের মন বোঝার চেষ্টা করলেন সায়নী।

প্রার্থী তালিকা প্রকাশ হওয়ার পর থেকেই তারকা প্রার্থীদের সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে। তাঁদের মধ্যে অন্যতম সায়নী। এবারের নির্বাচনে তিনি একটি গুরুত্বপূর্ণ মুখ বলেই মনে করা হচ্ছে। পাশাপাশি কটাক্ষের মুখে পড়তে হয়েছে তাঁকে। তবে সায়নী নিজে বেশ আত্মবিশ্বাসী। নিজের কেন্দ্রের মানুষদের সঙ্গে দেখা করেও খুশি অভিনেত্রী।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রার্থীর নাম ঘোষণা করার পরেই সায়নী লেখেন, "আসানসোল এবার একসঙ্গে, ভালোবাসে, একে অপরের পাশে থেকে, চলো কিছু করে দেখাই।" এছাড়াও আসানসোলে তাঁর নামে শুরু হয়ে গিয়েছে দেওয়াল লিখন। সেই সব ছবিও পোস্ট করেছেন অভিনেত্রী। রবিবার আসানসোলে পৌঁছে সেখানকার মানুষের সঙ্গে ছবি তুলেও পোস্ট করেছেন অভিনেত্রী।

সাদা ও হলুদের মিশেলে একটি শাড়িতে দেখা গিয়েছে অভিনেত্রীকে। ক্যাপশনে সায়নী লিখেছেন, "সকলে গ্রহণ করেছেন এবং ভালোবাসা পেলাম অনেকটা। জয় বাংলা জয় হিন্দ।" জেলা সভাপতি অপূর্ব মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গেও এদিন দেখা করেন সায়নী। তিনি ক্যাপশনে লেখেন, "আসানসোলে প্রথম দিন এবং প্রথম সাক্ষ্যাৎ আমাদের জেলা সভাপতি শ্রদ্ধেয় অপূর্ব মুখার্জী ও তাঁর স্ত্রী আনন্দিতা মুখার্জীর সঙ্গে। তাঁদের অভ্যর্থনায় আমি অভিভূত ও আপ্লুত।"

Arunima Dey

Published by:Swaralipi Dasgupta
First published:

লেটেস্ট খবর