Trina Saha: জমাইষষ্ঠীর পরেই 'ভাল খবর' দিলেন গুনগুন ওরফে তৃণা সাহা

Trina Saha

(Trina Saha)শোনালেন দারুণ খুশির খবর (Trina Saha good news)! নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই পোস্টটি দিয়ে উচ্ছ্বসিত তৃণা একেবারে নেচে উঠলেন!

  • Share this:

    #কলকাতা: জনপ্রিয় ধারাবাহিক খড়কুটোর অতি জনপ্রিয় চরিত্র গুনগুন(Gungun of Khorkuto) ওরফে তৃণা সাহা৷ খুবই মিষ্টি মেয়ে তৃণা৷ একেবারে ধারাবাহিকে যেমন সরল এবং ঠোঁটকাটা গুনগুন, বাস্তবেও তাঁকে তেমন ভাবেই চেনেন সকলে৷ মাস কয়েক আগেই হয়েছে বিয়ে৷ স্বামীও জনপ্রিয় টেলি অভিনেতা নীল ভট্টাচার্য (Neel Bhattachariya)৷ যিনি কৃষ্ণকলি (Krishnakoli serial) সিরিয়ালের নিখিলের চরিত্রে খুবই পরিচিত৷ বিয়ের পর প্রথম জামাইষষ্ঠীতে দারুণ আনন্দ করতে দেখা গেল তৃণা-নীলকে (TRINEEL)৷ আর তারপরই তৃণা (Trina Saha)শোনালেন দারুণ খুশির খবর (Trina Saha good news)! নিজের সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই পোস্টটি দিয়ে উচ্ছ্বসিত তৃণা একেবারে নেচে উঠলেন!

    নীল-তৃণার (Trina Saha-Neel Bhattachariya) প্রেম বহু বছর ধরে৷ তাঁরা ছোটবেলায় বন্ধু ছিলেন৷ সেখান থেকে বেস্ট ফ্রেন্ড৷ তারপর প্রেম৷ মাঝে প্রেমে কিছু সমস্যাও আসে৷ তবে শেষ পর্যন্ত চার হাত এক হয়েছে৷ এখন তাঁরা জনপ্রিয় তারকা দম্পতি৷ অন্যদিকে তৃণার সিরিয়াল খড়কুটোতেও তাঁকে দেখা যাচ্ছে কৌশিক অর্থাৎ সৌজন্যের স্ত্রী হিসেবে৷ সৌজন্য-গুনগুন, দু’জনেই খুব ভালবাসে৷ কিন্তু কেউ প্রকাশ করতে চায় না৷ গুনগুন তার স্বামীকে ক্রেজি বলে ডাকে৷ কারণ গুনগুনের (Gungun-Soujan) কাছে তার স্বামীর হাবভাব একটু অদ্ভূত ঠেকে৷ অন্যদিকে গুনগুনের ছেলেমানুষ স্বভাব নিয়ে প্রথমে বিরক্ত হলেও, সেটাকেই ভালবেসে ফেলেছে সৌজন৷ কিন্তু বিশেষ কিছু কারণে তাদের মধ্যে দূরত্ব তৈরি হয়েছে৷ গুনগুন বাপের বাড়ি ছিল বেশ কিছুদিন৷ সেখান থেকে তাকে ফিরিয়ে সৌজন্য৷ এবার সৌজন্যের দিল্লি যাওয়া আটকাতে কী করে গুনগুন? সত্যিই কি দিল্লি যাওয়া হবে না সৌজন্যের? এবং শেষ পর্যন্ত কী একে অপরের প্রতি ভালবাসা স্বীকার করে নেবে সৌজন্য-গুনগুন? তার অপেক্ষায় দর্শক৷

    দারুণ মজাদার পারিবারিক ধারাবাহিক খড়কুটো, ভীষণ পছন্দ দর্শকদের৷ ফলে লকডাউনে বাড়ি থেকে শ্যুটিং করেও নতুন এপিসোড দর্শকদের সামনে এনেছেন প্রযোজকরা৷ উপভোগ করেছে দর্শক৷ এভাবেই দেখতে দেখতে ৩০০ পর্ব পার করেছে ধারাবাহিক খড়কুটো৷ তাই তো কলাকুশলীরা খুব খুশী৷ খড়কুটোর ৩০০ পর্ব খড়কুটোর ৩০০ পর্ব ভক্তদের সঙ্গে সেই খুশির খবর ভাগ করে নিলেন গুনগুন ওরফে তৃষা৷ তিনি জানালেন সকলের ভালবাসা ছাড়া এতটা পথ চলা সফল হত না৷ তৃণার খুশিতে তাঁর ভক্তরাও খুশি৷ এভাবেই এগিয়ে চলুক ধারাবাহিক, বলছেন সকলে৷

    Published by:Pooja Basu
    First published: