দৃষ্টিকোণের বদল ঘটাতে ঋতুপর্ণার ‘অ্যাডভোকেট’ হলেন প্রসেনজিৎ

Prosenjit Chatterjee & Rituparna Sengupta in Drishtikone

  • Share this:

    #কলকাতা: সম্পর্ক ধাঁধার মতোই জটিল ৷ নানা রকম সমীকরণ তার ৷ যেমন তার জটিলতা আবার তেমনই ঠুনকো ৷ আর অনেক ক্ষেত্রেই সম্পর্কগুলো বদলে যায় সমাজের চোখে ৷ আসলে একটাই সম্পর্ক তফাত হয়ে যায় দৃষ্টিকোণের ফারাকে ৷ পরিচালক কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের ‘দৃষ্টিকোণ’-এর ট্রেলারে উঠে এল সেই সম্পর্কের জটিল রসায়নই ৷ প্রাক্তনের পর আরও একবার এই ছবিতে দেখা যাবে বাংলা ছবির অন্যতম জুটি প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণাকে ৷ এই ছবির ট্রেলার দেখতে গিয়ে সবার আগে মন টানে তা হল প্রসেনজিতের লুক ৷ এক্কেবারে অন্যভাবে এই ছবিতে পাওয়া যাবে নায়ককে ৷ একজন নায়কের কাছে অভিব্যক্তি প্রকাশের সবচেয়ে বড় অস্ত্র হল তাঁর চোখ ৷ আর সেখানে প্রসেনজিৎ আরও এক ধাপ এগিয়ে চ্যালেঞ্জ নিয়ে ফেলেছেন ৷

    দেখুন ট্রেলার

    ''বন্ধুত্ব, ভালোবাসা মিউচুয়াল ফান্ডের ইনভেসমেন্টের মতো নয়, যে রোজ শুতে পারবে, আর ইচ্ছে মতো তুলে নেবে''। 'দৃষ্টিকোণ'-এর ট্রেলার শুরুতেই 'সম্পর্ক'-এর ব্যখ্যায় এই কঠিন ব্যাখ্যাটাই দেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। যে ডায়লগের সঙ্গেই প্রসেনজিতের বিপরীতে ভেসে আসে ঋতুপর্ণা ও চূর্ণী গঙ্গোপাধ্যায়ের মুখ। যা থেকে শুরুতেই স্পষ্ট হয়ে যায় আরও একবার 'দৃষ্টিকোণ'-এর মধ্যে দিয়ে সম্পর্কের জটিলতা তুলে ধরতে চেয়েছেন পরিচালক কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়। আবার ট্রেলারের শেষ পথে এগিয়েও শ্রীমতির (ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তের) উদ্দেশ্য জিওন মিত্রের (প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়) প্রশ্ন ''আমি কে?''শ্রীমতির (ঋতুপর্ণা) উত্তর, '' আমার অ্যাডভোকেট।'' সবমিলিয়ে এই ছবিতে ভালোবাসা, বন্ধুত্বের বুননে যে সম্পর্কের জটিলতা উঠে আসতে চলেছে তা স্পষ্ট। এ ছবির ঘোষণা হওয়া থেকেই দর্শকদের মধ্যে উত্তেজনা তুঙ্গে। প্রাক্তন-এর পর আবারও জুটি বাঁধতে চলেছেন প্রসেনজিৎ-ঋতুপর্ণা। স্বাভাবিকভাবেই বাঙালি সিনেপ্রেমীরা উচ্ছ্বসিত। তারপর কৌশিক গঙ্গোপাধ্যায়ের ছবি মানেই অন্য এক স্বাদের সন্ধান। সব মিলিয়ে ট্রেলারেই যা ইঙ্গিত মিলছে, তাতে বিসর্জনের পর আবারও একটা হৃদয়ে দোলা দেওয়া ছবির জন্যই পিপাসা জাগছে। ছবির ট্রেলার লঞ্চের পাশাপাশি মিউজিক লঞ্চও হয়েছে। ছবিতে সংগীত পরিচালনা করেছেন অনুপম রায়।

    First published: