Home /News /entertainment /
Kholamkuchi on Uribaba : প্রেম কি খোলামকুচি? ছাদনাতলায় যাওয়ার আগেই একসঙ্গে থাকা যায়? দেখাই যাক না!

Kholamkuchi on Uribaba : প্রেম কি খোলামকুচি? ছাদনাতলায় যাওয়ার আগেই একসঙ্গে থাকা যায়? দেখাই যাক না!

শ্রেয়া ভট্টাচার্য এবং অনিন্দ্য সেনগুপ্ত

শ্রেয়া ভট্টাচার্য এবং অনিন্দ্য সেনগুপ্ত

Kholamkuchi on Uribaba : ঝকঝকে ও ঝরঝরে ভাব থেমে যায়নি শীর্ষ সঙ্গীত ও ওপেনিং ক্রেডিট টাইটেল কার্ডের নান্দীমুখেই ৷ বরং আরও বেশি জারিয়ে গিয়েছে সিরিজ যত এগিয়েছে ৷

  • Share this:

এক যে আছেন অত্যাধুনিকা ৷ তিনি ঘটনাচক্রে বাবিনের পিসি ৷ কিন্তু এই মধ্যবয়সিনী কার্যত বাঙালির চিরাচরিত ‘পিসিমা’ ধারণার উল্টো মেরুতে বসে ধূমপান করতে করে শব্দছক করেন ৷ জগজিৎ সিংয়ের সুর ভাঁজতে ভাঁজতে চুমুক দেন সুরায় ৷ এহেন পিসিমার ভাইপো জ্যোতিষী অজন্তা শাস্ত্রীর একনিষ্ঠ ভক্ত৷ বাড়ির থালাবাসনে ‘আমিষ’, ‘নিরামিষ’ পরিচয় সেঁটে রক্ষা করে সাত্তিকতা ৷ পিসির কথায় তাঁর ভাইপো পুজো-আচ্চা-বাছবিচার-জ্যোতিষী নিয়ে রীতিমতো ‘অবসেসড ’৷ তাঁদের নিয়েই সূত্রপাত উরিবাবা-র নতুন ওয়েবসিরিজ ‘খোলামকুচি’-র প্রথম পর্ব ৷ পর্বের শুরুতেই মন ভাল করে দেয় এর টাইটেল সং ‘পাগল নাকি’৷  গেয়েছেন দেবদীপ মুখোপাধ্যায় ৷ এ গানের কথা ও সুরও তাঁরই৷

ঝকঝকে ও ঝরঝরে ভাব থেমে যায়নি শীর্ষ সঙ্গীত ও ওপেনিং ক্রেডিট টাইটেল কার্ডের নান্দীমুখেই ৷ বরং আরও বেশি জারিয়ে গিয়েছে সিরিজ যত এগিয়েছে ৷ সৌমিত দেব, সৌরভ পালোধীর গল্প এবং সৌমিতের চিত্রনাট্যের মতোই যথার্থ ও তীক্ষ্ণ প্রণয় দাশগুপ্তর সম্পাদনা ৷

তাঁদের সকলের প্রচেষ্টার যোগ্য সঙ্গত করেছে সিরিজে কুশীলবদের অভিনয় ৷ বাবিনের পিসির চরিত্রে অনবদ্য অর্পিতা ঘোষ ৷ তাঁর মতো বলিষ্ঠ নাট্যকর্মীর পাশে যথেষ্ট আত্মবিশ্বাসী দেখিয়েছে অনিন্দ্য সেনগুপ্ত এবং শ্রেয়া ভট্টাচার্যর মতো তরুণ প্রজন্মকেও ৷

 

আরও পড়ুন : কার্তিক আরিয়ানের মতো সুঠাম শরীর চান? দেখে নিন কীভাবে শরীরচর্চা করবেন, ডায়েটে কী রাখবেন!

বাবিন তথা সৌরভের চরিত্রে অনিন্দ্য ও গার্গীর ভূমিকায় শ্রেয়াই সিরিজের কেন্দ্রে ৷ ‘মা শ্যামা মিষ্টান্ন ভাণ্ডার’-এর মালিক বাবিন দেড় বছর বয়সেই হারিয়েছে তাঁর বাবা মাকে ৷ তাঁকে বড় করে তোলার জন্যই বিমানসেবিকার চাকরি ছেড়ে পিসি থিতু হয়েছেন বাড়িতে ৷

কিন্তু তাঁর মতো ছক ভাঙা নারীর লালনপালনেও ভাইপো বাবিন বিরাজমান তাঁর নিজস্ব জগতেই ৷ অধস্তন কর্মীকে তাঁর নির্দেশ, হাঁচি আসার আগেই 'স্যরি' বলে রাখতে হবে । যাতে সাবধান হওয়ার সময়টুকু পাওয়া যায় । কিন্তু বাবিনের জীবনেও আসে পাল্টা হাওয়া ।

মজা করে ওয়াইন দিয়ে ছাতুর সরবত গুলে দিতে চাওয়া, তাঁর কফিবিলাসিনী পিসির দৌলতেই বাবিনের জীবনে আগমন হয় আর এক নারী, গার্গীর ৷ বাংলায় পিএইচডিরত গার্গীর প্রেম ভেঙে গিয়েছে ৷ কারণ তিনি বিয়ের আগে প্রেমিকের সঙ্গে লিভ ইন করতে চেয়েছিলেন ৷ প্রেমিকের মনে হয়েছে প্রেমিকার সঙ্গে দিঘায় যাওয়া যায়, কিন্তু ফরাক্কার মতো ছোট শহরে বিয়ের আগে সহবাস অসম্ভব ৷

 

আরও পড়ুন :  "দর্শক হিসেবে অপেক্ষা করছি কবে জিৎ-দেব একসঙ্গে ছবি করবেন,হইহই করে হলে দেখতে যাব!" গৌরব চক্রবর্তী

কিন্তু কলকাতা থেকে দূরে সেই ছোট শহরেই বিয়ের আগে একছাদের তলায় থাকতে শুরু করলেন গার্গী ও সৌরভ ৷ কারণ দুই বাল্যবন্ধু-গার্গীর মা এবং সৌরভের পিসির ইচ্ছে এই দু’জনের গাঁটছড়া বাঁধা পড়ুক ৷

কিন্তু গার্গীর এক গোঁ ৷ বিয়ের আগে বহু জীবনসঙ্গীকে থাকতে হবে তাঁর সঙ্গে ৷ সমান ভাবে হাতে হাত লাগিয়ে সারতে হবে ঘরের কাজ ৷ পরের কথা তার পর ৷ তাই প্রেমপর্বে গান্ধিঘাটে দেখা, রাত জেগে ফোনালাপ না করে সরাসরি সহবাস ৷ বহু কাঠখড় পুড়িয়ে এতে বাবিনকেও রাজি করালেন তাঁর পিসি ৷

‘খোলামকুচি’-র প্রথম পর্বে আলাপের পর দ্বিতীয় পর্বে একই গৃহে প্রবেশ করেছেন বাবিন ও গার্গী ৷ আপাতত তাঁরা শুধুই একই ফ্ল্যাটের বাসিন্দা বা ফ্ল্যাটমেট ৷ ফ্লার্টমেট নন ৷ ইট বালি সিমেন্টের ছাড়াও তাঁদের দু’জনের মাঝে আছে বিপরীত মানসিকতার দুর্লঙ্ঘ্য দেওয়াল ৷ সেই ব্যবধান কি ঘুচবে? নাকি আরও জমাট হবে? সে গল্প বলবে ‘খোলামকুচি’-র পরবর্তী পর্বগুলি ৷ প্রত্যেক শুক্রবার, ‘উরিবাবা’ প্ল্যাটফর্মে ৷

সেইসঙ্গে দেবদীপ ও তরীষীর গলায় আরও গানের প্রতিশ্রুতি আছে আগামী পর্বগুলিতে । ওয়েবসিরিজের খোলামকুচির যুগে এই ধারাছবি দেখলে চোখে রামধনু ঢুকে যেতে পারে। মনে হতে পারে আমি তো মরেই গেছি কবে, নেহাত ও বেসেছিল ভাল।

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published:

Tags: Bengali Web series, Uribaba

পরবর্তী খবর