• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • কে ভিতরের, কে বাইরের, কিছুই যায় আসে না! নেপোটিজম বিতর্কে বিস্ফোরক তমান্না ভাটিয়া

কে ভিতরের, কে বাইরের, কিছুই যায় আসে না! নেপোটিজম বিতর্কে বিস্ফোরক তমান্না ভাটিয়া

  • Share this:

#মুম্বই: এর জার্নি শুরু হয়েছিল বেশ কয়েক বছর আগে। বলিউডের (Bollywood) প্রায় প্রত্যেকের মুখে ঘুরে ঘুরে আজ সে পাকাপাকি ভাবে বাস করে এই ইন্ডাস্ট্রিতে। এই শব্দকে ঘিরেই তামাম অভিনেতা-অভিনেত্রীর মধ্যে ঝামেলা, বিতর্ক, মনোমালিন্য, কাঁদা ছোড়াছুড়ি, মুখ দেখাদেখি বন্ধ... এমন কত কী-ই না ঘটছে।

সম্প্রতি সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) মৃত্যু আবারও নতুন করে নাড়িয়ে দিয়েছে নেপোটিজম (Nepotism)-এর প্রসঙ্গ। অনেক অভিনেতা, গায়ক, মেকআপ আর্টিস্ট, কোরিওগ্রাফার গর্জে উঠেছেন এর পক্ষ নিয়ে। অনেকে বলেছেন, বলিউডে তাঁরা নেপোটিজমের স্বীকার। অনেককে আবার বলতে দেখা গিয়েছে, এমন কিছু তাঁদের সঙ্গে ঘটেইনি কখনও।

এই তালিকায় এ বার নাম জুড়ল দক্ষিণী অভিনেত্রী তমন্না ভাটিয়া (Tamannaah Bhatia)-র। এক সাক্ষাৎকারে তিনি জানালেন, স্বজনপোষণের সমস্যা বা এমন কিছুর সম্মুখীন কখনওই হতে হয়নি তাঁকে। ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে দূর-দূরান্তে তাঁর কোনও সম্পর্ক ছিল না। তাঁর কেউ নেই এই জগতে। এই ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের জায়গা তিনি নিজে তৈরি করেছেন। তমন্না বলেন, কেউ বাইরে থেকে এসেছেন না ভিতরের, তাতে কিছু যায় আসে না। শুধু মাত্র নিজের প্রচেষ্টা আর পরিশ্রমই কাজে আসে কেরিয়ারে।

দক্ষিণী অভিনেত্রী তমন্না কয়েক বছর আগে পা রেখেছেন বলিউডে। তাঁর অভিনয় নজর কেড়েছে দর্শকদের। হিম্মতওয়ালা ও এন্টারটেইনমেন্ট এই দুই বলিউড ছবিতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। এক সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী জানান, সিনেমা জগতে প্রবেশের জন্য তিনি প্রচুর পরিশ্রম করেছেন। তিনি যতটা না আশা করেছিলেন, তার থেকেও বেশি ভালোবাসা পেয়েছেন মানুষের থেকে। তাঁর মত, কেউ যদি পরিশ্রমী, গুণী ও কাজের প্রতি ডেডিকেটেড হন, তা হলে যে কোনও পরিস্থিতিতেই তিনি টিঁকে থাকতে পারবেন।

তমন্না নিজের উদাহরণ দিয়ে আরও বলেন, তিনি এই সিনেমা জগতের মানুষ ছিলেন না। তাঁর কোনও গডফাদার বা মেন্টরও নেই এই ইন্ডাস্ট্রিতে। তিনি যা কিছু করেছেন, সবটাই নিজের প্রচেষ্টায় সম্ভব হয়েছে। তাই যাঁরা সুযোগ দিয়েছেন কাজের, তাঁদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন নায়িকা।

সকলের জন্যই সাফল্য অপেক্ষা করে, এই প্রসঙ্গ টেনে তমন্নার কথা, নিজের ট্যালেন্টকে লোকের সামনে তুলে ধরা ও ভাল কাজ করে যাওয়া গুরুত্বপূর্ণ। সেটাই এই জগতে কাজে আসে। পাশাপাশি তিনি বলেন, এখন বলিউডে প্রচুর ভালো ভালো কাজ হচ্ছে। প্রচুর কাজ রয়েছে। দারুণ সব স্ক্রিপ্টে কাজ করার সুযোগ থাকছে। আর এ ক্ষেত্রে বেশিরভাগ মানুষ ট্যালেন্টেই জোর দিচ্ছেন। তাই তাঁর মনে হয়, এ'ক্ষেত্রে আউটসাইডাররাই বেশি সুবিধা পাচ্ছেন!

নেপোটিজম ছাড়াও বর্তমানে মাদক সেবন, মাদক পাচার (Drugs) নিয়ে উত্তপ্ত বলিউড। একাধিক অভিনেতা-অভিনেত্রীর নাম জড়াচ্ছে। এই বিষয়টি নিয়ে তমন্নাকে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, সব কিছুতেই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিকে টার্গেট করা খুব সহজ আর সেলেব্রিটিরা তো লাইমলাইটেই থাকেন সব সময়েই। তবে, এই বছরটা যে সকলের জন্য খুবই খারাপ সময়, সেটাও স্বীকার করে নিয়েছেন তিনি!

Published by:Rukmini Mazumder
First published: