Shreyas Talpade: নিজের বউকে বোন বানিয়ে ছবির প্রিমিয়ারে নিয়ে গিয়েছিলেন শ্রেয়স! বলিউডের জোরজবরদস্তি চলেছিল পারিবারিক জীবনেও!

নিজের বউকে বোন বানিয়ে ছবির প্রিমিয়ারে নিয়ে গিয়েছিলেন শ্রেয়স, বলিউডের জোরজবরদস্তি চলেছিল পারিবারিক জীবনেও!

অনেকেই হয় তো জানেন না, শ্রেয়স তলপড়ে প্রথম ছবি রিলিজের আগেই বিয়ে করে নিয়েছিলেন।

  • Share this:

#মুম্বই: সম্প্রতি একটি সাক্ষাৎকারে বলিউড প্রসঙ্গে একাধিক বিস্ফোরক মন্তব্য করে বসেন অভিনেতা শ্রেয়স তলপড়ে (Shreyas Talpade)। তাঁর মতে, বলিপাড়ায় মাত্র ১০ শতাংশ মানুষই খাঁটি। অনেকেই তাঁর সঙ্গে বন্ধুত্বের সুযোগ নিয়ে তাঁকে ব্যবহার করেছেন। এমনকী স্বার্থ চরিতার্থ হয়ে গেলে নাকি পিছন থেকে ছুরি মেরেছেন তাঁরাই। যদিও এই প্রসঙ্গে কথা বলতে গিয়ে কারও নাম না নিলেও, তাঁর মন্তব্য বেশ সাড়া ফেলেছে বলিপাড়ায়। তবে শ্রেয়সের এই চাঁচাছোলা মন্তব্যের পাশাপাশি তাঁর বিবাহিত জীবন নিয়ে একটি অজানা কাহিনি উঠে এসেছে এই সাক্ষাৎকারে। অনেকেই হয় তো জানেন না, শ্রেয়স তলপড়ে প্রথম ছবি রিলিজের আগেই বিয়ে করে নিয়েছিলেন।

আজ্ঞে হ্যাঁ, অবিশ্বাস্য মনে হলেও এটাই সত্যি। এই সাক্ষাৎকারে অভিনেতা জানান, ডেবিউ ছবি ইকবাল (Iqbal)-এর শুটিংয়ের তিনদিন আগে অর্থাৎ ৩১ ডিসেম্বর বিয়ে ছিল তাঁর। ফলে সেই কারণে পরিচালক নাগেশ কুকুনুর (Nagesh Kukunoor)-এর কাছে ছুটির আবেদন করেছিলেন। তিনি ভেবেছিলেন বন্ধুদের সঙ্গে বর্ষশেষের পার্টি করবেন তিনি। তবে শ্রেয়স যখন জানান যে তাঁর বিয়ে, তখন চমকে ওঠেন নাগেশ। কারণ ইকবালে শ্রেয়স একজন কিশোরের চরিত্রে অভিনয় করছেন। ফলে ছবির প্রচারের সময় তাঁর বিয়ের কথা যদি ফাঁস হয়ে যায়, তাহলে সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। কারণ ছবিতে ইকবালের বিয়েই হয়নি। সেই কারণে শ্রেয়সকে বিয়ে বাতিলের নির্দেশ দেন পরিচালক।

কথাটি শুনে মাথায় আকাশ ভেঙে পড়ে শ্রেয়সের। কারণ বিয়ের কার্ড সকলের কাছে পৌঁছে গিয়েছে। সর্বোপরি একটা মধ্যবিত্ত বাড়িতে বিয়ে পিছিয়ে যাওয়া কোনও মুখের কথা নয়। ফলে পরিচালকের কাছে কাতর অনুরোধ করতে থাকেন তিনি। শেষমেশ নাগেশ রাজি হন। তবে শর্ত ছিল, কোনও ভাবেই ইকবাল রিলিজ পর্যন্ত বিয়ের খবর পাঁচকান করতে দেওয়া যাবে না।

অতঃপর, ওই ৩১ ডিসেম্বরে শ্রেয়স বিয়ে করেন দীপ্তিকে (Dipti Talpade)। কিন্তু গোল বাধে ছবির প্রিমিয়ারের সময়। কারণ হঠাৎই শ্রেয়সের স্ত্রী বায়না ধরেন যে ছবির প্রিমিয়ারে তাঁকেও নিয়ে যেতে হবে। এই নিয়ে নাগেশের সঙ্গে ফন্দি আটেন অভিনেতা। প্রিমিয়ারের দিন নাগেশের বোন হয়ে সেখানে উপস্থিত ছিলেন দীপ্তি। ওই দিন ছবির প্রযোজক সুভাষ ঘাই (Subhash Ghai)-এর বিষয়টি নজরে আসে। বলা বাহুল্য, শ্রেয়সের বিয়ের কথা জানতেন না তিনিও। স্বাভাবিক ভাবেই নাগেশের কাছে দীপ্তির বিষয়টি জানতে চাওয়া হলে হাটে হাঁড়ি ফাটান পরিচালক। শ্রেয়স জানান, সুভাষজি ভেবে নিয়েছিলেন আমি ১৮ বছরের একটি ছেলে এবং আমি বাল্যবিবাহ করেছি!

Published by:Pooja Basu
First published: