বিনোদন

corona virus btn
corona virus btn
Loading

কঙ্গনার পক্ষে রায় বম্বে হাইকোর্টের, বাড়ির ভাঙার জন্য ক্ষতিপূরণ দিতে হবে বিএমসিকে

কঙ্গনার পক্ষে রায় বম্বে হাইকোর্টের, বাড়ির ভাঙার জন্য ক্ষতিপূরণ দিতে হবে বিএমসিকে

এই মুহূর্তে থালাইভি ছবি শ্যুটিং চলছে কঙ্গনার৷ শ্যুটিং সেট থেকে তিনি একটি ভিডিওর মাধ্যমে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন৷ বম্বে হাইকোর্টের নির্দেশকে তিনি গণতন্ত্রের জয় হিসাবে বর্ণনা করেছেন।

  • Share this:

#মুম্বই: বেআইনি অভিযোগে, ৯ সেপ্টেম্বর অভিনেত্রী কঙ্গনা রানাওয়তের অফিসে ভেঙে দেয় বিএমসি কর্তৃপক্ষ৷ সেই বিষয়ে রায় দিয়েছে বম্বে হাইকোর্ট। আদালত কঙ্গনার পক্ষে রায় দেওয়ায়, খুশি অভিনেত্রী। কঙ্গনার অফিস ভেঙে দেওয়ায় বিএমসিকে কটাক্ষ করে আদালত, এবং জানানো হয় যে বিএমসির এই পদক্ষেপ খুবই নেতিবাচক৷ এবং এর জন্য বিএমসিকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছে বম্বে হাইকোর্ট। আদালতের এই সিদ্ধান্তের পরে স্বাভাবত খুশি বলিউডের পঙ্গা গার্ল! এই মুহূর্তে থালাইভি ছবি শ্যুটিং চলছে কঙ্গনার৷ শ্যুটিং সেট থেকে তিনি একটি ভিডিওর মাধ্যমে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন৷ বম্বে হাইকোর্টের নির্দেশকে তিনি গণতন্ত্রের জয় হিসাবে বর্ণনা করেছেন।

কঙ্গনা রানায়ওত তাঁর ইনস্টাগ্রামে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন। এই ভিডিওটি শেয়ার করে নেওয়ার সময় তিনি ক্যাপশন লিখেছিলেন- 'যখন কেউ ব্যক্তিগতভাবে সরকারের বিরুদ্ধে দাঁড়ায় এবং জিতেন, এটি কোনও এক ব্যক্তির জয় নয়, এটি গণতন্ত্রের জয়। আপনারা সকলকে যারা আমাকে সাহস জুগিয়েছেন তাদের ধন্যবাদ জানাই। শুধুমাত্র আপনি ভিলেন হিসেবে ব্যবহার করেছেন বলেই আমি হিরো হতে পেরেছি৷

ভিডিওতে তিনি বলছেন, 'হ্যালো আপনারা সবাই, আমি এখন থ্যালাইভির জন্য শুটিং করছি। আমি সুসংবাদ পেয়েছি যে আমার বাংলো ভেঙে দেওয়া নিয়ে যে মামলা চলছিল তার সিদ্ধান্ত আমার পক্ষে এসেছে। আমি আপনাদের সকলকে ধন্যবাদ জানাতে চাই।

বিচারপতি এসজে কাইথওয়ালা এবং আরআই ছাগলার ডিভিশন বেঞ্চ এই মামলায় রায় দিয়ে বলেছেন যে এই ঘটনা যেভাবে ঘটানো হয়েছে তা অননুমোদিত। ভুল উদ্দেশ্য নিয়ে এটি করা হয়েছিল। আবেদনকারীকে আইনী সহায়তা চাইতে বাধা দেওয়ার চেষ্টা হয়েছিল। আদালত বিএমসির অবৈধ নির্মাণের নোটিশও বাতিল করে দিয়েছে।

গত ৯ সেপ্টেম্বর বৃহন মুম্বই কর্পোরেশন কঙ্গনা রানাওয়াতের অফিস ভাঙচুর করে এবং জানানো হয় যে কিছু অংশ অবৈধভাবে তৈরি হয়েছিল৷ যার বিরুদ্ধে কঙ্গনা আদালতে মামলা করেন কঙ্গনা। এর পরে, আদালত বিএমসির কাজে স্থগিতদেশ দেয়। কঙ্গনার আইনজীবী দাবি করেছেন যে ৪০ শতাংশ অফিস ভেঙে দেওয়া হয়েছিল। এতে অনেক মূল্যবান সম্পদ অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।

Published by: Pooja Basu
First published: November 27, 2020, 8:26 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर