• Home
  • »
  • News
  • »
  • entertainment
  • »
  • Rituparna Sengupta: ভিডিওতে যৌনকর্মী, অ্যাসিড হামলায় আক্রান্তদের সঙ্গে নাচলেন ঋতুপর্ণা, দেবলীনা, রিচা

Rituparna Sengupta: ভিডিওতে যৌনকর্মী, অ্যাসিড হামলায় আক্রান্তদের সঙ্গে নাচলেন ঋতুপর্ণা, দেবলীনা, রিচা

নাচের মাধ্যমে শক্তি বন্দনা

নাচের মাধ্যমে শক্তি বন্দনা

Amra Durga: এই ভিডিওটিতে অংশগ্রহণ করেছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, রিচা শর্মা ও দেবলীনা কুমার এবং সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ এই ভিডিওটিতে অংশগ্রহণ করেছেন সমাজের অনেক পিছিয়ে পড়া মানুষও

  • Share this:

কলকাতা : কঠিন বাস্তবে, এই সমাজে বহুবার অপমানিত হতে হয় নারীকে। সমাজ যতই এগিয়ে যাক,  যতই আমরা আধুনিক হই,  আজও নিজের জায়গা পেতে অনেক লড়াই করতে হয় নারীকে। শুধু নারী কেন, সমাজে এমন পিছিয়ে পড়া অনেক মানুষ রয়েছেন, যাঁরা পরিস্থিতির শিকার। বিদ্রূপ সহ্য করতে হয়, লাঞ্ছনা যাঁদের সর্বদার সঙ্গী। তাঁদের নিয়ে কোরিওগ্রাফার অভিরূপ সেনগুপ্তর নতুন উদ্যোগ। তিনি বানিয়েছেন ‘আমরা দুর্গা’। নাচের মাধ্যমে শক্তি বন্দনা করেছেন অভিরূপ।

আরও পড়ুন : নজির স্থাপন প্রয়াত তারকা পুনীত রাজকুমারের, তাঁর দান করা চোখে আলো জ্বলবে কারওর অন্ধকার দৃষ্টিতে

এই ভিডিওটিতে অংশগ্রহণ করেছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত (Rituparna Sengupta), রিচা শর্মা ও দেবলীনা কুমার এবং সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ এই ভিডিওটিতে অংশগ্রহণ করেছেন সমাজের অনেক পিছিয়ে পড়া মানুষও। পতিতাপল্লীর বাসিন্দা, অ্যাসিড আক্রমণের শিকার মহিলারা, তৃতীয় লিঙ্গের প্রতিনিধি-সহ অনেক মানুষ রয়েছেন এই ভিডিওতে।

আরও পড়ুন : আর নয় ওটিটি মঞ্চে, স্পষ্ট জানালেন নওয়াজুদ্দিন সিদ্দিকী

আরও পড়ুন : জনপ্রিয় ব্লগার রিয়াজ এ বার গৌরবের ভাই, 'গাঁটছড়া' বাঁধতে গিয়েই শুরু গোলমাল

নারী শক্তির রূপ, নারী সৃষ্টি করেন। কিন্তু সেই নারীকে নানা সময়, নানা পরিস্থিতিতে লাঞ্ছনার শিকার হতে হয়। এই ভিডিওর মাধ্যমে নারী জীবনের দুঃখ ও পিছিয়ে পড়া মানুষের কষ্ট, তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন অভিরূপ। তাঁর কথায়, ‘‘এই কয়েকদিন আগেই দেবীপক্ষের সূচনা হয়েছিল। মা দুর্গা ঘরে এলেন। কিন্তু আমাদের মধ্যে এমন অনেকেই রয়েছেন যাঁরা নিজেদের ঘরে অপমানিত। হয়তো অ্যাসিড হামলায় আক্রান্ত৷ কেউ আবার পরিস্থিতির শিকার, তাঁদের বর্তমান ঠিকানা পতিতাপল্লী। কেউ একটু আলাদা, তৃতীয় লিঙ্গের প্রতিনিধি। এই সমস্ত মানুষের কষ্ট আমাকে খুব নাড়া দিয়েছিল। আমার সংস্থা ‘প্রয়াস’ সারা বছরই এ ধরনের মানুষদের নিয়ে নানা কাজ করে থাকে। হঠাৎ মনে হল আমরা সকলে আনন্দ করতে পারি পুজো, কালীপুজোতে, নানা অনুষ্ঠানে অংশ নিতে পারি। কিন্তু তাঁরা পারেন না। তাঁদের নিয়ে কিছু একটা করা প্রয়োজন। সেই ভাবনা থেকেই ভিডিওটি করা। আমি ঋতুদি, দেবলীনা, রিচার কাছে অসম্ভব কৃতজ্ঞ, তাঁরা আমার পাশে দাঁড়ালেন। আশা করি আগামী দিনে আরও এমন কাজ করতে পারব।’’

Published by:Arpita Roy Chowdhury
First published: