Home /News /entertainment /
Aishwariya Sen Interview: "যদি বলো রঙিন, তোমাকেই শুধু আমি জানি..."

Aishwariya Sen Interview: "যদি বলো রঙিন, তোমাকেই শুধু আমি জানি..."

Aishwariya Sen

Aishwariya Sen

Aishwariya Sen Interview: যেটুকু বাঁচবে বেঁচে নাও। ছুটি বের করতে না পারলেও সময় বের করো। কাজের মানুষ আর কাছের মানুষ সবাইকেই কাছে রেখে দেওয়া দরকার।

  • Share this:

কথা বলতে বলতে মনে পড়ে যাচ্ছিল ঋতুপর্ণ ঘোষের 'উৎসব' ছবির সেই সংলাপের কথা। আসলে মানুষের জীবনে আনন্দ এত কম, সেটাকেই আমরা টেনে টেনে বাড়ানোর চেষ্টা করি। 'উসবের পরে'র 'সোহিনী'ও এমনটাই মনে করেন। প্রেম হোক বন্ধুত্ব, তাঁর আদরমাখানো অভিনয় জটিলতা থেকে আমাদের সরিয়ে এনেছেন বারাবার। বাস্তবে কেমন তিনি? প্রেম দিবসে রচনা মজুমদার-এর সঙ্গে গুছিয়ে আড্ডা দিলেন ঐশ্বর্য সেন

কীভাবে শুরু করলে প্রেমের সপ্তাহের উদযাপন?

ঐশ্বর্য: দেখো, আমি খুব একটা যে প্রেমের সপ্তাহ উদযাপন করি, সেটা ঠিক নয়। তবে হ্য়াঁ। তবে এই বছরটা আমার কাছে ভীষণ অন্য় রকম। বেশ মজার বলা যায়। মিউজিক ভিডিও শ্য়ুট ছিল, বিজ্ঞাপন শ্য়ুট ছিল এবং সবটাই প্রেমদিবস উপলক্ষই। তাই সেটেই আমরা মোটামুটি প্রেমের সপ্তাহ উপভোগ করে নিয়েছি। ওখানেই চকোলেট- ডে, ওখানেই রোজ ডে, বেশ অভিনব ব্য়াপার। মুখ ভার করে বসে থাকতে হয়নি। এক ঢিলে দুই পাখি মেরে দিয়েছি। সবটাই রিল, রিয়েল না। তবু উদযাপনই তো।

কী কাজ আসছে নতুন?

ঐশ্বর্য: ভ্য়ালেন্টাইনস ডে তে প্রথমেই একটা মিউজিক ভিডিও আসছে। এটার পরিচালক মণিদীপ সাহা এবং আমার সহ অভিনেতা দেবতনু। গান গেয়েছেন রূপক এবং কাজল। এটা একেবারেই একটা প্রেমের গল্প। প্রেস ক্লাবে এটার রিলিজ করছে। এ ছাড়া খাদিমস-এর জন্য় একটা শ্য়ুট করলাম। এটাও প্রেমদিবসের জন্য়ই।

বাঙালির প্রেমের দিন যেটা, মানে সরস্বতী পুজো, সেটাও তো খুব ধুমধাম করে উদযাপন করলে?

ঐশ্বর্য: একদম। এটা আমার মামার বাড়ির পুজো। একদম ভাইবোনেরা মিলেই সবটা করি। এখন তো বড় হয়েছি, দায়িত্ব বেড়েছে। বড়রা ধরে ধীরে দায়িত্ব ছেড়ে দিচ্ছেন আমাদের উপর। আগের বছর থেকেই শুরু হয়ে গিয়েছে।

টেলিভিশনে কী করছ এখন?

ঐশ্বর্য: টেলিভিশন থেকে আপাতত একটু বিরতি নিয়েছি। প্রায় দু’বছর নেই আমি টিভিতে। হ্য়াঁ, আবার ফিরব অবশ্য়ই। এখন একটু স্বাদ বদল পর্ব আর কী!

'একলা ঘর' নিয়ে কথা বলব এ বার...

ঐশ্বর্য: 'একলা ঘর' এপ্রিলে আসছে। তারপরেই আসছে সন্ধে নামার পরে। একলা ঘরে আমার সহ-অভিনেতা ঋষভ বসু। ছবির পরিচালক সৌম্য়জিত্ আদক। একলা ঘরও প্রেমেরই গল্প। তবে উনিশ শতকের প্রেম। যেই প্রেমে অনেক প্রতিবন্ধকতা ছিল। সেগুলোই দেখানো হবে এই ছবিতে। সন্ধে নামার পরে থ্রিলার। একই পরিচালকের। এটা রূপ প্রোডাকশনের একটা কাজ। আমার সঙ্গে আছেন সোমরাজ, অমৃতাদি, প্রান্তিকদা।

কী বুঝলে সেই সময়ের প্রেম নিয়ে ?

ঐশ্বর্য: তখনকার প্রেমটা অনেকটা আলাদা। কাজটা করতে করতে অনুভব করেছি কতটা সহজ ছিল তখনকার প্রেমটা। এখন তো অনেক জটিলতা, অনেক মানসিক চাহিদা। তবে আমি তো এই প্রজন্মের। তাই এখনকার প্রেমকেও আমি উপভোগ করি। আসলে আমরা তো অভিনেতা। তাই সব সময়ের যাপনের একটা সুযোগ আমাদের থাকে।

আচ্ছা থ্রিলারে কাজ করার অভিজ্ঞতা কেমন?

ঐশ্বর্য: থ্রিলার আমার প্রথম। তাই একটু চ্য়ালেঞ্জিংতো বটেই। খুব নরম মনের চরিত্রে কাজ করেছি এত দিন। এটা সেখান থেকে অনেকটা আলাদা।

পুজোতে কী করলে?

ঐশ্বর্য: পুজোতে অনুপম রায়ের একটা গান রিলিজ করেছে। মৃগনাভি। পাশাপাশি 'বোধন' আর 'আগমনি' বলে দুটো পুজোর ছবি করেছি।

 শুরুর কথা ?

ঐশ্বর্য: সে এক ভয়ঙ্কর গল্প। বাবাকে লুকিয়ে অডিশন দিতে গিয়েছিলাম।  দিনের পর দিন মা বসে থাকতেন। আমি কাজ করছি মা অপেক্ষা করছেন, এ রকম কত হয়েছে। আসলে বাড়ির লোক একটা নিরাপত্তাহীনতায় ভুগতেন। তাই হয়তো মা কাছছাড়া করেননি। খারাপ লাগত। মনে হত, আমি তো না হয় কাজে আছি। মা অতটা সময় চুপচাপ বসে আছেন। এখন আসতে আসতে স্বাভাবিক হচ্ছে সবটাই। খুব ছোট থেকে কাজ শুরু করেছি তো আসলে, ভয়টা স্বাভাবিক। প্রথম কাজ ছিল 'রাজলক্ষ্মী কুরুক্ষেত্রম'। সেই শুরু। এখনও চলছে।

আজ তো প্রেমের দিন। যারা তোমার মতোই ব্য়স্ত তাদের কিছু বলবে? মানে ব্য়স্ততার মাঝে কীভাবে সময় বের করবে তারা?

ঐশ্বর্য: আমাদের জীবন তো খুব ছোট। খুব অনিশ্চিত, তাই ছোট ছোট আনন্দগুলো উপভোগ করা উচিত। আমি সময় পেলেই কোথাও খেতে চলে যাই। আমার মনে হয় এতে জীবনের ব্য়ালান্স ঠিক থাকে। প্রিয় মানুষকে কিছু উপহার দাও। বই দিতে পারো, একসঙ্গে সিনেমা দেখতে পারো। আমার কাছে গ্রিটিঁস কার্ড খুব মিষ্টি একটা উপহার। এখন তো এ সব পুরনো হয়ে গিয়েছে। তবে আমার কাছে কিন্তু বার্তা লিখে দেওয়ার জন্য় এর থেকে সেরা আর কিছু হয় না। তাই যেটুকু বাঁচবে বেঁচে নাও। ছুটি বের করতে না পারলেও সময় বের করো। কাজের মানুষ আর কাছের মানুষ সবাইকেই কাছে রেখে দেওয়া দরকার। প্রেমের সপ্তাহ শেষ বলে মনখারাপ কোরো না, বাতাসে বহিছে প্রেম...

সাক্ষাৎকার: রচনা মজুমদার

Published by:Rachana Majumder
First published:

Tags: Tollywood, Tollywood Actress, Valentines Day 2022

পরবর্তী খবর